150 জন দেখেছেন
"নিত্য ঝুট ঝামেলা" বিভাগে করেছেন অজ্ঞাতকুলশীল

আমার সামনে পরীক্ষা কিন্ত আমার ভয়  লাগছে অতিরিক্ত। 

আমি লেখা পড়া করিঃ

  • ভোর ৪ টা থেকে সকাল ৮ টা পর্যন্ত।
  • আবার সকাল ৯টা থেকে দুফুর ১২ টা পর্যন্ত।
  • দুফুর ২ টা থেকে বিকেল ৪ টা পর্যন্ত।
  • সন্ধ্যা ৬ টা থেকে রাত ৮.৩০ পর্যন্ত
  • রাত ৯.৩০ থেকে রাত ১০.৩০ পর্যন্ত। 

এই গুলা আমার পড়ার সময় কিন্ত তবুও কেন  জানি মনে হচ্ছে আমি অল্প পড়ছি।। 

এতে কী  আমার পক্ষে বেস্ট রেজাল্ট করা সম্ভব নয়।

বেস্ট রেজাল্ট করতে আমাকে আর কী কী করতে হবে..............!?????

করেছেন (571 পয়েন্ট)
খুব সুন্দর রুটিন।ইনশাহল্লা সফল হবেন।
করেছেন (158 পয়েন্ট)
প্রশ্নটিতে যথেষ্ট উত্তর এসেছে । তাই প্রশ্নটি বন্ধ করা হোক ।

7 উত্তর

1 টি পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন (158 পয়েন্ট)
এখানে ভয় পাওয়ার কিছু । আপনি আপনার পড়ার রুটিনে যে পরিমাণ সময় দিয়েছেন এটা যথেষ্ট সময় । আর এভাবেই যদি পরিক্ষা শেষ হওয়া পর্যন্ত পড়তে থাকেন তাহলে ইনশাআল্লাহ আপনি পরীক্ষায় অনেক ভাল করতে পারবেন । তবে মনে রাখবেন, আপনি যদি ভালো করে মন দিয়ে পড়েন তাহলে এতটা সময় পড়ার প্রয়োজন হবে না!
0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন (3,064 পয়েন্ট)
ভালো রেজাল্ট করার জন্য রুটিনের গুরুত্ব অপরিসীম। আপনি উপরোক্ত যেভাবে রুটিন সাজিয়েছেন, তার দ্বারাই ভালো রেজাল্ট করা সম্ভব।
0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন (3,724 পয়েন্ট)
সম্পাদিত করেছেন
আপনি  মন থেকে ভয় ঝেড়ে ফেলে দিয়ে উদ্যমতার সাথে পড়া-লেখা করতে থাকুন। আর মনে রাখবেন নিয়ম মাফিক পড়া-শুনা সাফল্য বয়ে আনে। আর হাঁ, আপনার রুটিনটি ভাল লেগেছে। কাজে লাগাতে পারেন। 
করেছেন (3,064 পয়েন্ট)

সাফ্যল নয় আসল উচ্চারণ "সাফল্য"। সম্পাদনা করুন।

0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন (32 পয়েন্ট)
রুটিন মাফিক পড়াশোনায় অবশ্যই ভালো রেজাল্ট সম্ভব। আর আপনার রুটিন টি ও যথেষ্ট ভালো। ভালো ভাবে পড়াশোনা করলে ভয় কিচ্ছু করতে পারবে না। আর পরীক্ষার আগে ভয় ভয় লাগে, এটাই সাভাবিক। এটা নিয়ে চিন্তার কিছু নেই।
0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন (11 পয়েন্ট)

মনের ভিতরের ভয় সৃষ্টির বিভিন্ন কারণ আছে। মনের ভয়ের সবচেয়ে বড় কারণ হচ্ছে, আল্লাহর সঙ্গে সম্পর্কের দুর্বলতা, তাঁর প্রতি আনুগত্য ও তাওয়াক্কুল-ভরসা কমে যাওয়া।

কারণ আল্লাহ বলেছেন, মনে রেখো যারা আল্লাহর বন্ধু, তাদের কোনো ভয় নেই, তারা চিন্তান্বিত হবে না। (সুরা : ইউনুস, আয়াত : ৬২ )

সুতরাং ভয় দূর করতে প্রথম কাজ হলো, আল্লাহর ওপর ভরসা করা। আল্লাহ বলেছেন, আর যে আল্লাহর ওপর তাওয়াক্কুল করে, আল্লাহই তার জন্য যথেষ্ট। (সুরা তালাক, আয়াত : ৩)

এছাড়াও সহজ কিছু দোয়া রয়েছে। এগুলো বেশি করে বিশেষভাবে ভয়ের মুহূর্তে ও যথাসময়ে পড়লে উপকার পাওয়া যাবে। এতে আল্লাহর সঙ্গে সম্পর্কের উন্নতি হবে, তাওয়াক্কুল-ভরসা বাড়বে এবং ধীরে ধীরে মনের ভয়ও দূর হবে। ইনশাআল্লাহ।

لَا إِلَهَ إِلَّا اللَّهُ الْعَظِيمُ الْحَلِيمُ ، لَا إِلَهَ إِلَّا اللَّهُ رَبُّ الْعَرْشِ الْعَظِيمِ ، لَا إِلَهَ إِلَّا اللَّهُ رَبُّ السَّمَاوَاتِ وَرَبُّ الْأَرْضِ وَرَبُّ الْعَرْشِ الْكَرِيمِ

উচ্চারণ : লা ইলাহা ইল্লাল্লাহুল আযিমুল হালিম। লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু রাব্বুল আরশিল আযিম। লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু রাব্বুস সামাওয়াতি ওয়া রাব্বুল আরদ্বি ও রাব্বুল আরশিল কারিম।

অর্থ : মহান ও মহা-ধৈর্যশীল আল্লাহ ছাড়া সত্য কোনো উপাস্য নেই। মহান আরশের রব আল্লাহ ছাড়া সত্য কোনো উপাস্য নেই। আসমানসমূহ ও জমিনের রব এবং মহান আরশের রব আল্লাহ ছাড়া সত্য কোনো উপাস্য নেই।`

ফজিলত : ইবনে আব্বাস (রা.) থেকে বর্ণিত, প্রিয় নবী হযরত মুহম্মদ (সা.) বিপদাপদকালে ওই দোয়া পাঠ করতেন। (সহিহ বুখারি, হাদিস নম্বর ৬৩৪৬)

بِسْمِ اللّهِ الَّذِيْ لَا يَضُرُّ مَعَ اسْمِه شَيْءٌ فِي الْأَرْضِ وَلَا فِي السَّمَاءِ وَهُوَ السَّمِيْعُ الْعَلِيمُ

উচ্চারণ : বিসমিল্লাহিল্লাযি লা ইয়াদুররু মাআসমিহি শাইয়ুন ফিল আরদি ওয়ালা ফিস সামাই ওয়াহুয়াস সামিউল আলিম।

অর্থ : আল্লাহর নামে, যার নামের বরকতে আসমান ও জমিনের কোনো কিছুই কোনো ক্ষতি করতে পারে না, তিনি সর্বশ্রোতা ও সর্বজ্ঞ।

ফজিলত : উসমান ইবনে আফ্ফান (রা.) থেকে বর্ণিত, প্রিয় নবী হযরত মুহম্মদ (সা.) বলেছেন, যে ব্যক্তি প্রতিদিন সকালে ও প্রতি রাতের সন্ধ্যায় তিনবার এই দোয়াটি পাঠ করবে, কোনো কিছুই তার ক্ষতি করতে পারবে না। (তিরমিজি, হাদিস নম্বর ৩৩৮৮)

0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন (2,837 পয়েন্ট)
আপনি যে রুটিন তৈরি করেছেন। এটা যদি নিয়মিত অনুসরণ করতে পারেন তবে আপনার কোনো ভয় পাওয়ার দরকার নেই।মনের জোর টা বাড়ান ইনশাল্লাহ জীবনে সফল হবেন।
0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন (104 পয়েন্ট)
এভাবে চালিয়ে যান,, আপনি যথেষ্ট পড়েন।আপনাকে কম সময় পড়লেও ভালো হতো,এজন্য পড়ায় মনোযোগ থাকতে হবে।পড়ার মাঝে কিছুক্ষণ ব্যায়াম করুণ।এভাবে পড়া ভালো হয়।আরএরকম মনে হওয়া স্বাভাবিক।এটা ভালো ফলাফলের জন্য যথেষ্ট
টি উত্তর

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

1 উত্তর
30 অক্টোবর 2016 "নিত্য ঝুট ঝামেলা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন শাওন রহমান (294 পয়েন্ট)
2 টি উত্তর
09 ডিসেম্বর 2017 "যৌন" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন goballu (8 পয়েন্ট)
1 উত্তর
08 ডিসেম্বর 2017 "যৌন" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন goballu (8 পয়েন্ট)

276,240 টি প্রশ্ন

360,108 টি উত্তর

107,576 টি মন্তব্য

147,778 জন নিবন্ধিত সদস্য



বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
* বিস্ময়ে প্রকাশিত সকল প্রশ্ন বা উত্তরের দায়ভার একান্তই ব্যবহারকারীর নিজের, এক্ষেত্রে কোন প্রশ্নোত্তর কোনভাবেই বিস্ময় এর মতামত নয়।
...