75 জন দেখেছেন
"ধর্ম ও আধ্যাত্মিক বিশ্বাস" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন (0 পয়েন্ট)

4 উত্তর

1 টি পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
উত্তর প্রদান করেছেন (3,574 পয়েন্ট)
হাদিসে নারীর অধিকার ও মর্যাদা পুরুষের চেয়ে বেশি দিয়েছে। একটি বিখ্যাত হাদিস আমাদের সবার জানা জরুরি। এক সাহাবি রসুল (সা.)-কে বললেন, এই পৃথিবীতে আমার সব ভালোবাসা আর ভালো আচরণ কাকে উৎসর্গ করব? রসুল (সা.) বললেন, তোমার মাকে। এভাবে তিনবার রসুল (সা.) মায়ের কথা বলে চতুর্থবার বাবার কথা বলেছেন। আসলে নারীর সবচেয়ে বড় মর্যাদা হলো তার মাতৃরূপ। তারপর আসে বধূরূপের কথা। এখানেও রসুল (সা.) নারীকে পুরুষের ওপরে স্থান দিয়েছেন। বলেছেন, যার স্ত্রী সাক্ষ্য দেবে তার স্বামী ভালো, তার জন্য জান্নাত অপরিহার্য। কারণ, একমাত্র স্ত্রীই জানে তার স্বামী ভালো না মন্দ। স্ত্রীর পর নারীর আরেকটি রূপ কন্যা। এ কন্যা সম্পর্কেও রসুল (সা.) বলেছেন, যে পিতা বা ভাই একটি কন্যাকে ভালোভাবে লালন-পালন করবে তার জন্য একটি জান্নাত। দুটি কন্যা লালন-পালন করলে দুটি জান্নাত। অথচ কোথাও বলা হয়নি একটি পুত্রসন্তান লালন-পালন করলে একটি জান্নাত বা এই প্রতিদান।
0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
উত্তর প্রদান করেছেন (2,571 পয়েন্ট)
ইসলামে নারী পুরুষের সমান মর্যাদা। কারো কম বা কারো বেশি নেই।
0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
উত্তর প্রদান করেছেন (4,025 পয়েন্ট)
ইসলাম নারীকে দিয়েছে সর্বোচ্চ সম্মান ও মর্যাদা। ইসলামের আগমনের আগে সামাজিকভাবে নারীদের কোনো মর্যাদাই ছিলনা। নারীদের প্রতি করা হতো অমানবিক আচরণ তারা ছিল নির্যাতিত অপমানিত। প্রাক ইসলামি যুগের দিকে তাকালেই তা অনুধাবন করা যায়। একমাত্র ইসলাম-ই দিয়েছে নারীর মর্যাদা, অধিকার ও নিরাপত্তা।

[শুধুমাত্র সম্পদের অধিকার থেকে তাদের একটু খাটো করে রাখা হয়েছে]
মন্তব্য করা হয়েছে করেছেন (70 পয়েন্ট)
খাটো করা হয় নি।একজন নারী কন্যা হিসেবে পিতার সম্পত্তি আবার স্ত্রী হিসেবে স্বামীর সম্পত্তি দুটোই পাবেন।তাহলে হিসাব তো মিলেই গেল।     
মন্তব্য করা হয়েছে করেছেন (4,025 পয়েন্ট)
আমি এটাই বলতে চাইছিলাম যে, পিতার অংশ থেকে আল্লাহ তোমাদেরকে এই বিধান দিচ্ছেনঃ পুরুষের অংশ দুই নারীর সমান হবে। কিন্ত উত্তরে তা স্পষ্ট হয়নি।
0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
উত্তর প্রদান করেছেন (2,678 পয়েন্ট)
তোমাদের স্ত্রীরা হলো তোমাদের জন্য শস্য ক্ষেত্র। তোমরা যেভাবে ইচ্ছা তাদেরকে ব্যবহার কর।["সূরা আল বাকারা-২২৩")

َ আর তালাকপ্রাপ্তা নারীদের জন্য প্রচলিত নিয়ম অনুযায়ী খরচ দেয়া পরহেযগারদের উপর কর্তব্য।("সূরা আল বাকারা-২৪১) (আয়াত দুইটি পড়ে বুঝতে পারি- দুইজনের অধিকার সমান)
closeWe

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

1 উত্তর
20 সেপ্টেম্বর 2015 "চাকুরী" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন আরিফুল (6,530 পয়েন্ট)

259,331 টি প্রশ্ন

338,293 টি উত্তর

98,708 টি মন্তব্য

135,657 জন নিবন্ধিত সদস্য



বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
closeWe
* বিস্ময়ে প্রকাশিত সকল প্রশ্ন বা উত্তরের দায়ভার একান্তই ব্যবহারকারীর নিজের, এক্ষেত্রে কোন প্রশ্নোত্তর কোনভাবেই বিস্ময় এর মতামত নয়।
...