95 জন দেখেছেন
"পবিত্র কুরআন" বিভাগে করেছেন (25 পয়েন্ট)
আমি কিভাবে বুঝবো যে আমি আল্লাহর অলি হয়ে গেছি, আল্লাহ কুরআনে তার অলি হবার জন্য কি কি গুন থাকতে বলেছেন?
বন্ধ

2 উত্তর

0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন (5,678 পয়েন্ট)
নির্বাচিত করেছেন
 
সর্বোত্তম উত্তর

ওলী আরবী শব্দ যার অর্থঃ অভিভাবক বা মুরুব্বী, বন্ধু। আরবী ভাষায় আউলিয়া শব্দটি ওলীর বহুবচন। ওলী অর্থঃ বন্ধু, মিত্র বা অনুসারী। কখনো শব্দটির অর্থঃ হয় শাসক,অভিভাবক বা কর্তা।


পবিত্র কোরআনে “ওলী” এবং “আউলিয়া” এ উভয় শব্দটির ব্যবহার হয়েছে অসংখ্য বার। আল্লাহ তায়ালা কুরআনে বলেছেনঃ আলা ইন্না আওলিয়া আল্লাহি লা খওফুন আলাইহিম ওলাহুম ইয়াহজানুন। আল্লাযীনা আমানূ ওকানূ ইয়াত্তাকানূন।


অর্থঃ জেনে রাখ নিশ্চয়ই আল্লাহর ওলীদের কোন ভয় নাই এবং তাহারা দুঃখিতও হবে না। যারা ঈমান এনেছে এবং তাকওয়া অবলম্বন করেছে। (সূরা ইউনুস ১০: ৬২- ৬৩)


এখানে আল্লাহ তায়ালা ওলীদের দুইটি গুণ বর্ণনা করেছেন।

(১) যারা ঈমান আনয়ন করেছে। শিরক মুক্ত মুসলমান যারা।

(২) তাকওয়া অর্থাৎ, সর্বক্ষেত্রে একমাত্র আল্লাহকে ভয় করে তাঁর নিষিদ্ধ সকল প্রকার হারাম কাজ বর্জন করে চলা।


নিশ্চয়ই তোমাদের ওলী হলেন আল্লাহ এবং তাঁর রসুল আর ঈমানদার লোকেরা- যারা সালাত কায়েম করে, যাকাত দিয়ে দেয়, এবং আল্লাহর প্রতি অনুগত বাধ্যগত থাকে।


এই আয়াত থেকে জানা গেল, সকল মুমিনই আল্লাহর অলী, আল্লাহ তায়ালা কুরআনে বলেছেনঃ ওয়াল্লাহু ওয়ালীউল মুমিনীন। অর্থঃ আর আল্লাহ মুমিনদের অভিভাবক। (সূরা আলে ইমরানঃ ৬৮)


তাই আপনি আল্লাহর প্রিয় বান্দা ও ওলী আউলিয়া হতে চাইলে আগে মুমিন মুত্তাকীন হতে হবে।


0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন (3,297 পয়েন্ট)
আল্লাহ বলেন, আল্লাহ মুমিনগনের ওলি।তিনি তাদের কে অন্ধকার থেকে বের করে আলোতে নিয়ে যান।সুরা বাকারা আয়াত নং ১৫৭ প্রথমাংশ। তাই আপনি যদি আল্লার প্রীয়বান্দা কিংবা আউলিয়া হতে চান , তাহলে আপনার যে কাজটি করতে হবে তা হলো মুমিন হতে হবে।
টি উত্তর
২১ জানুয়ারি ২০১৯ "ক্যারিয়ার" বিভাগে উত্তর দিয়েছেন Ariful (৬৩৭৩ পয়েন্ট )
টি উত্তর

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

7 টি উত্তর
01 অক্টোবর 2015 "ইসলাম" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Tanha Tabassum (0 পয়েন্ট)
1 উত্তর

283,184 টি প্রশ্ন

367,605 টি উত্তর

110,732 টি মন্তব্য

152,773 জন নিবন্ধিত সদস্য



বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
* বিস্ময়ে প্রকাশিত সকল প্রশ্ন বা উত্তরের দায়ভার একান্তই ব্যবহারকারীর নিজের, এক্ষেত্রে কোন প্রশ্নোত্তর কোনভাবেই বিস্ময় এর মতামত নয়।
...