119 জন দেখেছেন
"ধর্ম ও আধ্যাত্মিক বিশ্বাস" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন (0 পয়েন্ট)
বন্ধ করেছেন
পুরুষ মানুষ কি আংটি ব্যাবহার করতে পারে এবং সনার. জদি জায়েয হয় তাহলে কোন হাতে. এব্যাপারে ইসলাম কি বলেছে
এই চিরকূট সহকারে বন্ধ করা হয়েছে : যথেষ্ট উত্তর হয়েছে

5 উত্তর

1 টি পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
উত্তর প্রদান করেছেন (4,824 পয়েন্ট)
পুরুষদের জন্য সোনার আংটি ব্যবহার করা হারাম। তবে বিশেষ কারনে অন্যান্য পদার্থের আংটি ব্যবহার করা যাবে।

রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম সোনার আংটি পরতে নিষেধ করেছেন।

ইবনে উমার (রাঃ) হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম একটি রৌপ্যের আংটি তৈরি করেছিলেন। তিনি তা দ্বারা চিঠিপত্রে সীল মারতেন, তবে তিনি সচরাচর তা পরিধান করতেন না।

জাফর ইবনে মুহাম্মাদ (রহঃ) হতে বর্ণিত। তিনি তার পিতার হতে বর্ণনা করেন যে, হাসান ও হুসাইন (রাঃ) বাম হাতে আংটি পরিধান করতেন।

রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম আংটি ডান ও বাম হাতে পরিধান করতেন- এ সম্পর্কে উভয় ধরনের হাদীস বর্ণিত আছে। ইমাম বুখারী (রহঃ) ও ইমাম তিরযিমী (রহঃ) এর মতে ডান হাতে আংটি পরিধান করার হাদীস প্রাধান্যযোগ্য। তবে এ অধ্যায়ে ইমাম তিরমিয়ীর শিরোণাম থেকেই স্পষ্ট হয়ে যায়, তিনি ডান হাতে পরিধান করার হাদীসসমূহকে প্রাধান্য দিয়েছেন।

রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ডান হাতে আংটি পরিধান করতেনঃ

আলী ইবনে আবু তালেব (রাঃ) হতে বর্ণিত নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ডান হাতে আংটি পরিধান করতেন। (সহীহ শামায়েলে তিরমিযী, করতেন, হাদিস নম্বরঃ ৭৫)

(সূনান আত তিরমিজী, হাদিস নম্বরঃ ২৬৪)
(সহীহ শামায়েলে তিরমিযী, হাদিস নম্বরঃ ৭০-৭৯)
মন্তব্য করা হয়েছে করেছেন (3,093 পয়েন্ট)
জাফর ইবনে মুহাম্মাদ (রহঃ) হতে বর্ণিত। তিনি তার পিতার হতে বর্ণনা করেন যে, হাসান ও হুসাইন (রাঃ) বাম হাতে আংটি পরিধান করতেন। এর তথ্যসূত্র কি ? আর পুরুষের জন্য অন্য পদার্থের আংটি ব্যবহার করা যাবে তার প্রমাণ কি ?
মন্তব্য করা হয়েছে করেছেন (4,824 পয়েন্ট)
রেফারেন্স আগেই দেওয়া ছিল। সহীহ শামায়েলে তিরমিযী, হাদিস নম্বরঃ ৭৯ মান সহিহ।
মন্তব্য করা হয়েছে করেছেন (3,093 পয়েন্ট)
পুরুষের জন্য অন্য পদার্থের আংটি ব্যবহার করা যাবে তার প্রমাণ কি ?
1 টি পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
উত্তর প্রদান করেছেন (2,269 পয়েন্ট)
স্বর্ণের আংটি বা সোনার অন্য যে কোন অলংকার ব্যবহার পুরুষের জন্য একেবারে হারাম। আবু মুসা আশ‘আরী (রা.) রাসূলুল্লাহ্ (সা.) থেকে বর্ণনা করেছেন, ﺃُﺣِﻞَّ ﺍﻟﺬَّﻫَﺐُ ﻭَﺍﻟْﺤَﺮِﻳﺮُ ﻟِﺈِﻧَﺎﺙِ ﺃُﻣَّﺘِﻲ، ﻭَﺣُﺮِّﻡَ ﻋَﻠَﻰ ﺫُﻛُﻮﺭِﻫَﺎ “আল্লাহ তা‘আলা আমার উম্মতের নারীদের জন্য রেশম ও স্বর্ণ হালাল করেছেন এবং পুরুষদের জন্য হারাম করেছেন।”(সুনান নাসাঈ হাদীস নং-৫২৬৫)
1 টি পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
উত্তর প্রদান করেছেন (3,171 পয়েন্ট)
পুরুষের জন্য সোনার চেন, ঘড়ি, আংটি, বোতাম, কলম ইত্যাদি ব্যবহার বৈধ নয়। যেহেতু মহানবী (সঃ) বলেন, “সোনা ও রেশম আমার উম্মতের মহিলাদের জন্য হালাল এবং পুরুষদের জন্য হারাম করা হয়েছে।”  (তিরমিযী, নাসাঈ, মিশকাত ৪৩৪১ নং)

ইবনে আব্বাস (রঃ) হতে বর্ণিত, একদা আল্লাহ্‌র রাসুল (সঃ) এক ব্যক্তির হাতে সোনার আংটি দেখলেন। তিনি তাঁর হাত থেকে তা খুলে ছুঁড়ে ফেলে দিলেন এবং বললেন, “তোমাদের কেউ কি ইচ্ছাকৃত দোযখের আঙ্গারকে হাতে নিয়ে ব্যবহার করে?”

অতঃপর নবী (সঃ) চলে গেলে লোকটিকে বলা হল, ‘’তোমার আংটিটা কুড়িয়ে নিয়ে অন্য কাজে লাগাও। (অথবা তা বিক্রয় করে মূল্যটা কাজে লাগাও।) কিন্তু লোকটি বলল, “আল্লাহ্‌র কসম! আমি আর কক্ষনো তা গ্রহণ করব না, যা আল্লাহ্‌র রাসুল (সঃ) ছুঁড়ে ফেলে দিয়েছেন।”  (মুসলিম ২০৯০ নং)

প্রকাশ থাকে যে, ব্যতিক্রমভাবে পুরুষের জন্য সোনার নাক বাঁধার অনুমতি রয়েছে ইসলামে। সাহাবী আরফাজার নাক কাটা গেলে নবী (সঃ) তাঁকে সোনার নাক বানাতে নির্দেশ দিয়েছিলেন।  (আহমাদ ১৮৫২৭, আবূ দাঊদ ৪২৩২, তিরমিযী ১৭৭০, নাসাঈ ৫১৬১ নং)

প্রয়োজনে সোনার তাঁর দিয়ে দাঁত বাঁধতে অথবা সোনার দাঁত বাঁধিয়ে ব্যবহার করাতেও অনুমতি আছে শরীয়তে।
0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
উত্তর প্রদান করেছেন (2,594 পয়েন্ট)
পূনঃপ্রদর্শিত করেছেন
স্বর্নের আংটি পরা পুরুষদের হারাম।।।।।মহিলারা স্বর্নের আংটি পড়তে পারবে।
মন্তব্য করা হয়েছে করেছেন (2,594 পয়েন্ট)
অসম্পুর্ন কিভাবে বুঝলাম না?
0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
উত্তর প্রদান করেছেন (2,689 পয়েন্ট)
ইসলামে পুরুষ মানুষ স্বর্ণের আংটি ব্যাবহার করতে পারবে। তবে আংটির পরিমান এমন হবে, যা বিক্রি করে তাকে দাহ করার কাপরের খরচ পাওয়া যায়।
মন্তব্য করা হয়েছে করেছেন (4,824 পয়েন্ট)
যা বিক্রি করে তাকে দাহ করার কাপরের খরচ পাওয়া যায়। কথাটি ক্লিয়ার নয়! সম্পাদনায় রেফারেন্স দিবেন।
closeWe

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

1 উত্তর

265,663 টি প্রশ্ন

347,073 টি উত্তর

102,228 টি মন্তব্য

139,817 জন নিবন্ধিত সদস্য



বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
closeWe
* বিস্ময়ে প্রকাশিত সকল প্রশ্ন বা উত্তরের দায়ভার একান্তই ব্যবহারকারীর নিজের, এক্ষেত্রে কোন প্রশ্নোত্তর কোনভাবেই বিস্ময় এর মতামত নয়।
...