বিস্ময় অ্যানসারস এ আপনাকে সুস্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং বিস্ময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...
393 জন দেখেছেন
"খাদ্য ও পানীয়" বিভাগে করেছেন (4,429 পয়েন্ট)

2 উত্তর

0 টি পছন্দ
করেছেন (1,316 পয়েন্ট)

কাঁচা মরিচের বিস্ময়কর কিছু স্বাস্থ্য উপকারিতা:

১। গরম কালে কাঁচা মরিচ খেলে ঘামের মাধ্যমে শরীর ঠান্ডা থাকে।

২। প্রতিদিন একটি করে কাঁচা মরিচ খেলে রক্ত জমাট বাধার ঝুঁকি কমে যায়।

৩। নিয়মিত কাঁচা মরিচ খেলে হৃদপিণ্ডের বিভিন্ন সমস্যা কমে যায়।

৪। কাঁচা মরিচ মেটাবলিসম বাড়িয়ে ক্যালোরি পোড়াতে সহায়তা করে।

৫। কাঁচা মরিচে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বিটা ক্যারোটিন আছে যা কার্ডোভাস্ক্যুলার সিস্টেম কে কর্মক্ষম রাখে।

৬। নিয়মিত কাঁচা মরিচ খেলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ে।

৭। কাঁচা মরিচ রক্তের কোলেস্টেরল কমায়।

৮। কাঁচা মরিচে আছে ভিটামিন এ যা হাড়, দাঁত ও মিউকাস মেমব্রেনকে ভালো রাখতে সহায়তা করে।

৯। কাঁচা মরিচে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি আছে যা মাড়ি ও চুলের সুরক্ষা করে।

১০। নিয়মিত কাঁচা মরিচ খেলে নার্ভের বিভিন্ন সমস্যা কমে। 

তবে কাঁচা মরিচ কাচা খাওয়া ভালো। কারণ ৩৭০ ডিগ্রি তাপমাত্রার বেশি তাপমাত্রায় কাঁচামরিচ সেদ্ধ করলে কিংবা ভেজে খাওয়ার ফলে এর বিদ্যমান ভিটামিন সি নষ্ট হয়ে যায়। তাই এর আসল উপকারিতা পেতে প্রতিদিন খাবারের সঙ্গে কাঁচা মরিচ কাঁচা খেতে অভ্যাস করুণ।


শুকনা মরিচের গুণাগুণ ও উপকারিতা: 

ডায়াবেটিস (Diabetes) মরিচের প্রধান রাসায়নিক উপাদানের নাম ক্যাপসিসিন,যা তীব্র ঝাল লাগার অনুভুতি সৃষ্টি করে থাকে।ক্যাপসিসিন নামক এই উপাদানটি রক্তে সুগারের মাত্রা কমায়। স্থূলতা (Obesity) ক্যাপসিসিন হলো এক ধরনের থার্মোজেনিক উপাদান যা বিপাক ক্রিয়াকে বৃদ্ধি করে এবং চর্বি ভাঙ্গন প্রক্রিয়াতে বিশেষ উপকরন হিসাবে কাজ করে। ডায়াবেটিস নিউরোপ্যাথি মরিচে যে ফাইটোকেমিকেল থাকে তা অ্যান্টি-ইনফ্লামেটরি হিসেবে কাজ করে ডায়বেটিস নিউরোপ্যাথি সম্পর্কিত ব্যথা হওয়ার সম্ভাবনা কমায়। ক্যান্সার এতে ফাইটোকেমিকেল প্রচুর পরিমানে আছে।ফাইটোকেমিকেল নামক এনজাইমের বিরূদ্ধে কাজ করে ক্যান্সার প্রতিরোধে সাহায্য করে,জ্যান্থিন অক্সিডেজ এমন একটি এনজাইম যা ফ্রি-র‍্যাডিকেল তৈরি করে ডিএনএ(DNA) এবং সেলুলার টিস্যু নষ্ট করে দেয়। পাকস্থলির ক্ষত মরিচ পাকস্থলির অভ্যন্তরীণ দেয়াল কে উদ্দীপিত করে এক ধরনের রস নিঃসন করতে সাহায্য করে এর মাধ্যমে পাকস্থলি ক্ষতিকর ব্যকটেরিয়া দ্বারা আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি কমে যায়।হজম এবং অন্ত্রের মাংস পেশির ক্রিয়াশীলতা স্বাভাবিক রাখে, যার ফলে হজমে সহায়ক এনজাইম নিঃসৃত হয় এবং খাবারের পুষ্টি সহজেই শোষিত হয়। শুকনা মরিচের ক্ষতি: গ্যাস্ট্রোইসোফেজিয়াল রিফ্লাক্স ডিজিজ/ বুকজ্বালা (Gastroesophageal reflux disease) শুকনা মরিচ অধিক পরিমাণে গ্রহণের ফলে গ্যাস্ট্রো-ফাগিয়েল রিফ্লাক্স (GER) হতে পারে। লিভার ক্যান্সার (Liver cancer) শুকনা মরিচে অ্যাফ্লাটোক্সিন নামক ক্ষতিকর যৌগ রয়েছে যা পাকস্থলী, যকৃত ও কোলন ক্যান্সারের ঝুঁকি বহুগুণে বাড়িয়ে দেয়। পাকস্থলীর ক্যান্সার (Stomach cancer) শুকনা মরিচে অ্যাফ্লাটোক্সিন নামক ক্ষতিকর যৌগ রয়েছে যা পাকস্থলী, যকৃত ও কোলন ক্যান্সারের ঝুঁকি বহুগুণে বাড়িয়ে দেয়। ওরাল ক্যাভেটি, গলা ও পেটের সমস্যা যারা ওরাল ক্যাভেটি, গলা ও পেটের সমস্যায় ভুগছেন তারা অধিক পরিমাণে শুকনা মরিচ গ্রহণ করলে শরীরে বিভিন্নধরণের প্রদাহ ও জ্বালা পোড়া দেখা দিতে পারে।

0 টি পছন্দ
করেছেন (3,198 পয়েন্ট)
কাঁচা মরিচ এ ভিটামিন "সি" রয়েছে। কাঁচা মরিচ খেলে  ঘাটতি পুরন হয় যা শরীরের জন্য উপকারী আর শুকনো মরিচ খেলে পেটে গ্যাস্ট্রিক - আলসার হবার সম্ভাবনা থাকে।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

311,757 টি প্রশ্ন

401,337 টি উত্তর

123,242 টি মন্তব্য

172,802 জন নিবন্ধিত সদস্য

বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
...