বিস্ময় অ্যানসারস এ আপনাকে সুস্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং বিস্ময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...
461 জন দেখেছেন
"খাদ্য ও পানীয়" বিভাগে করেছেন (4,429 পয়েন্ট)
সম্পাদিত করেছেন
করেছেন (1,525 পয়েন্ট)
পৃথিবীতে মোট ৫০ হাজার শাকসবজি আছে। আপনি নির্দিষ্ট কোনো এক বা একাধিক সবজির নাম বলুন তবেই সেটির  সুনির্দিষ্ট উপকারিতা দেয়া যায়। 
করেছেন (4,429 পয়েন্ট)
আপনি আপনার পরিচিত যেসব শাক-সবজির উপকারিতা জানেন, সেসব শাক-সবজির উপকারিতা জানালে উপকৃত হবো। ধন‍্যবাদ।

1 উত্তর

+1 টি পছন্দ
করেছেন (3,437 পয়েন্ট)
কয়েকটি শাক সবজির উপকারিতা ও গুণাগুণ : ১.শসা : এটি প্রোটিন পরিপাকে সহায়ক। কিডনি ও পাকস্থলী প্রদাহ নিরাময়ে ফলপ্রসূ। ২. টমেটো : এর গুণাগুণ সম্পর্কে নতুন করে কিছু বলার নেই। প্রবাদ আছে দৈনিক একটা টমেটো খেলে ডাক্তারের কাছে যেতে হয় না। টমেটো কাঁচা পাকা রান্না করে অথবা সালাদ হিসাবে খাওয়া হয়। এতে প্রচুর ভিটামিন, লবন, অক্সালিক অ্যাসিড, পটাশ, লোহা, ম্যাঙ্গানিজ বিদ্যমান। কোষ্ঠকাঠিন্য, ক্যান্সার প্রতিরোধে সাহায্য করে। প্রচুর খনিজ সমৃদ্ধ সবজি। ভিটামিন ‘এ’ সমৃদ্ধ। ৩. গাজর : গাজর অত্যন্ত পুষ্টিমান সম্পন্ন সবজি। কাঁচা এবং রান্না অথবা সালাদ হিসাবেও খাওয়া যায় । গাজরের হালুয়া ও পায়েস রান্নাও সুস্বাদু । ক্ষিধে বাড়ায়, অর্শ, পেটের অসুখ ভাল করে । মস্তিস্ক ও হার্টের জন্য হিতকর। তবে গাজর বেশী খেলে গর্ভপাত হতে পারে । এতে প্রচুর ক্যারোটিন ও ফসফরাস বিদ্যমান । এটি রাতকানা, ক্যান্সার ও ফুসফুসের সংক্রমণ প্রতিরোধ করে। ভিটামিন সমৃদ্ধ সবজি। ৪ . ফুলকপি, পাতাকপি, ওলকপি: ফুলকপি মায়েদের স্তনে দুধ বাড়ায়, বীর্যবর্ধক, কফ নাশ করে। তবে ঘনঘন খেলে বাতের ব্যথা বাড়তে পারে। পাতাকপি বা বাঁধাকপি হার্টের জন্য ভাল। মুত্রবর্ধক, লিভারের জন্য হিতকর। আছে আয়োডিন, ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম, পটাশিয়াম ও ভিটামিন ‘সি’ এবং ‘ই’। ওলকপি বা শালগম সুস্বাদু, পেট পরিস্কার করে। কৃমি ও কফ নাশক। তিন প্রকারের কপিতেই প্রোটিন, কার্বোহাইড্রেট , ক্যালশিয়াম, আয়রন ও ভিটামিন ’এ’ বি’ সি’ রয়েছে। ৫. শিম: অনেকে বলেন শিম গরম এবং হজমে দেরী করে । বিশেষজ্ঞরা বলেন, রান্নার সময় রসুন ফোড়ন দিলে হজমে কোন অসুবিধা হয় না শিম বলদায়ক, বায়ু ও পিত্ত নাশক। শিমের বীচিতে প্রচুর আমিষ আছে শিমে প্রচুর পরিমানে প্রোটিন, ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম, ফসফরাস, সোডিয়াম, পটাশিয়াম ও আয়রন থাকে। ৬. করোলা : করোলা স্বাদে তিক্ত হলেও অত্যন্ত উপকারী । তিক্ততাই এর গুন । করোলা কাটার আগে ধূয়ে নিতে হয়। কাটার পরধুলে গুন নষ্ট হয়ে যায় । করোলা বায়ু, পিত্ত ও কফ ত্রিদোষনাশক । ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য এটা মহৌষধ । করোলা পেট পরিস্কার করে, রক্ত পরিস্কার করে, ক্ষিদে বাড়ায় এবং কৃমি নাশক । ৭. বেগুন : বেগুন নানাগুনে সমৃদ্ধ । বেগুনে মুত্রকৃচ্ছতা সারে, লিভার ভাল রাখে, কিডনিতে পাথর হলে বেগুন খেলে তা প্রস্রাবের সাথে বের হযে যায়। অর্শ রোগে বেগুন উপকারী। মেদ কমায, ক্ষুধা বাড়ায়, মেয়েদের মাসিক নিয়ন্ত্রন করে। এতে কার্বোহাইড্রেট, ফ্যাট, প্রোটিন, ভিটামিন ও আয়রন আছে । ৮. পটল : তাজা পটল হজমশক্তি বাড়ায়। কাশি, জ্বর, রক্তদুষ্টি ভাল করে । হার্টের শক্তি বৃদ্ধি, পিত্তজ্বর, কৃমি সাড়ায় এবং শরীর ঠান্ডা রাখে।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

0 টি উত্তর
01 ডিসেম্বর 2018 "খাদ্য ও পানীয়" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Johirul Rana (20 পয়েন্ট)
1 উত্তর
27 জুন 2018 "খাদ্য ও পানীয়" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Badshah Niazul (4,429 পয়েন্ট)
1 উত্তর
02 জুলাই "খাদ্য ও পানীয়" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন মোঃতোফাজ্জল ইসলাম (483 পয়েন্ট)
1 উত্তর

311,758 টি প্রশ্ন

401,339 টি উত্তর

123,243 টি মন্তব্য

172,802 জন নিবন্ধিত সদস্য

বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
...