বিস্ময় অ্যানসারস এ আপনাকে সুস্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং বিস্ময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...
104 জন দেখেছেন
"ইসলাম" বিভাগে করেছেন (4,425 পয়েন্ট)
সম্পাদিত করেছেন
মহান আল্লাহ্ তা'আলা কিভাবে হুরগণকে সৃষ্টি করেছেন?
১। চেহারা: কয়টি রঙ দ্বারা সৃষ্টি করেছেন?
২। দেহ: কি কি দ্বারা সৃষ্টি করেছেন?
৩। কেশ: কি দ্বারা সৃষ্টি করেছেন?
৪। পায়ের আঙ্গুলি থেকে হাঁটু পর্যন্ত: কি দ্বারা সৃষ্টি করেছেন?
৫। হাঁটু থেকে নাভি পর্যন্ত: কি দ্বারা সৃষ্টি করেছেন?
৬। নাভি থেকে কাঁধ পর্যন্ত: কি দ্বারা সৃষ্টি করেছেন?
৭। কাঁধ থেকে মাথা পর্যন্ত: কি দ্বারা সৃষ্টি করেছেন?

1 উত্তর

+1 টি পছন্দ
করেছেন (813 পয়েন্ট)
হুর কি?

বেহেস্তি নারীরা হুরাইন নামে পরিচিত,যাদের শুধুমাত্র জান্নাতে প্রবেশকারি ব্যক্তিদের জন্যই তৈরি।হুর হল একজন সুন্দরি যুবতি,যার ত্বক উজ্জ্বল শুভ্র বর্ণের আর কাল ঘন আবেগপূর্ণ চোখ। অন্য একটি বর্ণনা মতে তাদের চোখ সাদা আর কালোর সংমিশ্রেণ এমনভাবে তৈরি যা অত্যন্ত সুন্দর হিসেবে বিবেচনা করা হয়।অথবা এটা দ্বারা এ ও বুঝায় যে তাদের সৌন্দর্য অন্যদের বিস্মিত এবং হতবাক করে দেবে। আ’ইন এর অর্থ হল বড় আকর্ষণীয় চোখের নারী, যেটাকে সৌন্দর্যের অন্য একাটা সাইন বলা যেতে পারে।(১)

হুর কিসের তৈরি?

ইবন আব্বাস আনাস আবু সালামাহ এবং মুজাহিদ থেকে বর্ণিত আছে যে, হুর হবে সাফফ্রন থেকে তৈরি।সাফফ্রন কমলা রঙের উপাদান যা ফুল থেকে তৈরি করা হয় এবং এটা খাবারের রঙ আর স্বাদ বৃদ্ধিকারক।যেখানে মানুষজাতি (কাঁদা মাটির তৈরি) উত্তম গঠন আর সৌন্দর্যের অধিকারী সেখানে আপনারা অন্তত কল্পনা করে দেখতে পারেন সাফফ্রন দিয়ে তৈরি নারিদের সৌন্দর্য সম্পর্কে।(২)

জান্নাতে বেশি হুর পাওয়ার উপাই কি?

রাগ নিয়ন্ত্রণ করেঃ

মু’আয বিন আনাস(রাঃ) হতে বর্ণিত রাসুলুল্লাহ (সঃ) বলেছেন, যে তার রাগ প্রকাশ করা থেকে নিজেকে সংবরণ করবে,আল্লাহ সুবহানাহুতায়লা কাল হাশরে তামাম মাখলুকের সামনে ডেকে এক দল হুর থেকে যাকে পছন্দ তাকে নেওয়ার অনুমতি দেবেন।(৩)

ভাল কাজের মাধমেঃ

ঈমাম রাযী (রহঃ) বলেছেন, আল্লাহ সুবহানাহুতায়ালা তাঁর মুমিন বান্দাদের প্রত্যেক ভাল কাজের বিনিময়ে যত সংখ্যক তিনি চান তত সংখ্যক হুর দিতে পারেন। হুর এর আধিক্যতা নির্ভর করবে আল্লাহর নির্দেশিত আদেশ পালনের উপর এবং কোন ব্যাক্তির জান্নাতের লেভেল এর উপর।আর এই জন্যই আমাদের এ পৃথিবীতে(পরীক্ষা ক্ষেত্র) যত বেশি সম্ভব নেক আমল করা উচিত জান্নাতে প্রবেশ করার জন্য ।(৪)

জান্নাতের মূল্য-

“অবশ্যই আল্লাহ মুমিনদের জান এবং মাল জান্নাতের বিনিময়ে কিনে নিয়েছেন। তাঁরা আল্লার রাস্তায় জিহাদ করে, আর তাই তাঁরা শত্রুদের(আল্লাহর শত্রু) হত্যা করে অথবা শহীদ হন।আল্লাহ এই অঙ্গীকার করেছেন তওরা, ইঞ্জিল এবং কোরআনুল কারীম এ । আল্লাহর অঙ্গীকার ছাড়া কার অঙ্গীকার সত্য? আর প্রফুল্ল থাক তোমরা যে বাণিজ্য করেছ তাতে, ইহাই তোমাদের বিরাট সাফল্য।” আল কুরআন ৯ ঃ ১১১

আল্লাহ জান্নাতটাকে মুমিনের জান এবং মালের বিনিময় হিসেবে রেখেছেন, অন্যভাবে বলা যায় আল্লাহ জান্নাতের বিক্রেতা আর আমরা আমাদের জান এবং মাল দ্বারা এর ক্রেতা ।যখনি আমরা আল্লাহর দেয়া জান ও মাল উভয়ই আল্লাহর রাস্তায় খরচ করব শুধু তখনি আমরা এই পুরস্কার প্রত্যাশা করতে পারি।

ও আল্লাহ ! আমাদের ক্ষমা করুন এবং সরল পথে চালান, তাঁদের পথে চালান যারা আপনার সন্তুষটি অর্জন করেছেন।আমীন ।

তথ্যসুত্রঃ

১-হাদিউল আরওয়াহ ২৫৯-দারু!কুতুবুল আরাবি, বেইরুত।

২-হাদিউল আরওয়াহ

৩-আবু দাউদ,তিরমিযি

৪-তাফসির রাযী ১৫/১৬৮-দারুল ফিকর, বেইরুত

৫-দি মেইডেনস অফ জান্নাত(প্যরাডাইস), মাওলানা আব্দুল্লাহ নানা।

[collected ]

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

1 উত্তর

312,745 টি প্রশ্ন

402,308 টি উত্তর

123,566 টি মন্তব্য

173,287 জন নিবন্ধিত সদস্য

বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
...