বিস্ময় অ্যানসারস এ আপনাকে সুস্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং বিস্ময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...
56 জন দেখেছেন
"যা কিছু জাতীয়" বিভাগে করেছেন (4,429 পয়েন্ট)
বন্ধ করেছেন

'জাতীয়' এবং 'বিজাতীয়' বলতে কি বুঝ? 'জাতীয়তা' এবং 'জাতীয় বিষয়াবলী' কি?

কিভাবে কোনো দেশের জাতীয় বিষয়াবলী নির্বাচন করা হয়?
ভারতের কোনো নাগরিক কি বাংলাদেশের নাগরিকত্ব লাভ ছাড়াই বাংলাদেশের জাতীয় ব‍্যক্তিত্বে পরিণত হতে পারে? যতক্ষণ না পর্যন্ত সে বাংলাদেশের নাগরিকত্ব লাভ না করছে, ততক্ষণ পর্যন্ত তো তার জাতীয়তা ভারতীয়, বাংলাদেশী না। তাহলে, বাংলাদেশী না হয়েও কি কোনো ভারতীয়, ব্রিটিশ, আমেরিকান বাংলাদেশের জাতীয় ব‍্যক্তিত্বে পরিণত হতে পারে? অথবা তাদের কোনো লেখা বাংলাদেশের জাতীয় বিষয়াবলীতে যোগ হতে পারে? কোনো দেশের জাতীয় বিষয়াবলী তো সে দেশের নিজস্ব জাতীয় পরিচয়, সেই দেশের নিজস্ব সংস্কৃতি, ইতিহাস, ঐতিহ‍্য, সেই দেশের নিজস্ব নাগরিক বা ব‍্যক্তিত্ব, সেই দেশের নিজস্ব নাগরিক বা ব‍্যক্তিদের লেখা? অন‍্য দেশের নাগরিক বা তাদের লেখা জাতীয় পরিচয় বহন করে না। কেননা, তারা আমাদের জাতীয় না, তারা বিজাতীয়। দেশের ভেতরের হলে, তা জাতীয় এবং দেশের বাইরের হলে, তা বিজাতীয়। বিজাতীয় ব‍্যক্তি, বিজাতীয় ব‍্যক্তিদের লেখা গান-কবিতা-সঙ্গীত, বিজাতীয় সংস্কৃতি কখনো জাতীয় ব‍্যক্তি, জাতীয় গান-কবিতা-সঙ্গীত বা জাতীয় সংস্কৃতি হতে পারে না। মনে রাখতে হবে, বিশ্বকবি, বিশ্বলেখক, বিশ্বগায়ক হলেও কেউ অন‍্য দেশের নাগরিকত্ব অর্জন ব‍্যতিত, সে দেশের জাতীয় বা জাতীয়তার অধিকারী হতে পারে না। কাজী নজরুল ইসলাম ভারতের কবি ছিলেন, তাঁকে বাংলাদেশের নাগরিকত্ব প্রদান করে, তারপর বাংলাদেশের জাতীয় কবি বানানো হয়েছে। অর্থাৎ প্রথমে তিনি ভারতীয় বা বিজাতীয় ছিলেন, পরে বাংলাদেশের নাগরিকত্ব অর্জনের মাধ‍্যমে বাংলাদেশী বা এ দেশের জাতীয় পরিচয় বহন করেছেন। তাই তাকে বাংলাদেশের জাতীয় কবি বানানো সম্ভব হয়েছে। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বাংলাদেশের নাগরিকত্ব অর্জন করার সৌভাগ‍্য লাভ করেন নি। তাঁর জাতীয়তা বাংলাদেশী না, তিনি ভারতীয়। অর্থাৎ তিনি বাংলাদেশের জাতীয় পরিচয় বহন করেন না, ভারতের নাগরিক হওয়ার কারনে ভারতের জাতীয় পরিচয় বহন করেন। ভারতের জাতীয় সঙ্গীত তাঁর লেখা হতেই পারে, কারণ তিনি ভারতীয় বা সে দেশের নিজস্ব সম্পদ বা ব‍্যক্তি। বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার জাতীয় সঙ্গীত, নিজস্ব জাতি, জাতীয় বা জাতীয়তার দিকে লক্ষ না রেখে, শুধুমাত্র বন্ধুপ্রতিম রাষ্ট্র ভারতকে খুশি করার জন‍্য অসতর্কভাবে, জাতীয়তার বাইরে গিয়ে, নিয়ম বহির্ভূত ভাবে, বিজাতীয়তাকে আঁকড়ে ধরে করা হয়েছে। আবেগ দিয়ে সব হয় না। আমাদের বর্তমান জাতীয় সঙ্গীত গাওয়ার মাধ‍্যমে আমরা কেবল রবীন্দ্রনাথের সোনার পশ্চিম বাংলাকেই ভালোবাসছি, সোনার বাংলাদেশকে নয়। কারন, রবীন্দ্রনাথের যখন মৃত‍্যু হয়, তখন সোনার বাংলাদেশেরই জন্ম হয়নি। তাহলে মৃত‍্যুর পর তিনি বাংলাদেশকে নিয়ে 'আমার সোনার বাংলা, আমি তোমায় ভালোবাসি' লিখলেন কিভাবে? আসলে তিনি তাঁর গানে সোনার পশ্চিম বাংলা বা ভারত বন্দনাই গেয়েছেন। তাঁর লেখা এই সঙ্গীতটি এ দেশের জাতীয় সঙ্গীত করা হয়ে গেছে বিধায় আমরা গাইতে গাইতে এটিকে খুব বেশি ভালোবেসে ফেলেছি, যে কারনে এটাকে বিজাতীয় বললে খারাপ লাগে, আবেগতাড়িত হয়ে পড়ি। কিন্তু আসলেও কি আমরা ঠিক করছি? কবে আমরা আমাদের জাতীয় সঙ্গীতে পশ্চিম বাংলা বা ভারত বন্দনা ছেড়ে, বাংলাদেশ বন্দনা শুরু করবো? কবে আমরা আবেগকে ছেড়ে সত‍্যকে আঁকড়ে ধরবো? কবে আমরা 'আমার সোনার (পশ্চিম) বাংলা, আমি তোমায় ভালোবাসি' বাদ দিয়ে গাইবো, 'আমার সোনার বাংলাদেশ, আমি তোমায় ভালোবাসি'?
এই চিরকূট সহকারে বন্ধ করা হয়েছে : অযাচিত প্রশ্ন
করেছেন (4,429 পয়েন্ট)
মন্তব‍্যে আপনাদের উত্তর জানাতে পারেন। ধন‍্যবাদ।
করেছেন (5,575 পয়েন্ট)
বাংলা মানে পশ্চিম বাংলা নয়, বাঙালিদের বসবাসকারী প্রত্যেকটি স্থানকেই বলা যায়। তাই বাংলাকে ভালোবাসতে দোষ নেই। আর বাংলা তো মাতৃভাষাও হতে পারে! আমি তো বাংলাকে ভালোবাসি। বাংলাদেশ আর বাংলা মোটেই আলাদা নয়। বরং বাংলারই অংশ বাংলাদেশ। ব্রিটিশদের ভুল পশ্চিমবঙ্গ ও রোহিঙ্গাদের আমাদের সাথে দেয় নি। দিলে বাঙালি, বাংলা, বাংলাদেশ এগুলো আলাদা হত না। কিন্তু জাতি কিন্তু আমরা একটাই

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

3 টি উত্তর
2 টি উত্তর
24 মার্চ 2018 "প্রেম-ভালোবাসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন shohan sakil (11 পয়েন্ট)

311,813 টি প্রশ্ন

401,404 টি উত্তর

123,265 টি মন্তব্য

172,833 জন নিবন্ধিত সদস্য

বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
...