114 জন দেখেছেন
"টিউটোরিয়াল" বিভাগে করেছেন (5 পয়েন্ট)
করেছেন (735 পয়েন্ট)
    এই প্রশ্নটি ধর্ম ও আধ্যাত্মিক বিশ্বাস বিভাগে হবে

3 উত্তর

0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন (5,484 পয়েন্ট)
রাসুল (সাঃ) বলেন, যে ব্যক্তি সকালে এক বার ও বিকালে এক বার আয়াতুল কুরসি পাঠ করবে, শয়তান থেকে সে সারাদিন আল্লাহর আশ্রয়ে থাকবে। তিনি গর্তে পেশাব করতে নিষেধ করেছেন কারণ গর্ত হল জিনদের থাকার জায়গা। যে ব্যক্তি শোয়ার সময় আয়াতুল কুরসী পড়বে শয়তান সারা রাত তার নিকটে যাবে না। যখন তোমাদের কেউ হাই তোলে তখন সে যেন তার মুখে হাত দিয়ে বাধা দেয়। কারণ হাই তোলার সময় শয়তান প্রবেশ করে। সন্ধ্যা বেলায় তোমাদের সন্তানদের বাহিরে যাওয়া থেকে বিরত রাখবে। কারণ, তখন শয়তানেরা ছড়িয়ে পড়ে। এটা প্রমাণিত যে, কেউ যদি উপরে বর্ণিত আমলগুলো করে তবে জিন-সয়তান তার কোন ক্ষতি করতে পারবে না কিন্তু কেউ এই আমলগুলো না করার কারণে যদি জিন-সয়তান পাকড়াও করে ফেলে তবে আয়াতুল কুরসি, সূরা ফালাক, সূরা নাস দিয়ে ঝার ফুক করলে জীন-শয়তান চলে যাবে ইনশা-আল্লাহ।
0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন (2,102 পয়েন্ট)
একটাই হল নিয়মিত নামাজ পড়া।

১. দিনের শুরু মানে ফজর নামাজ পরে আয়াতুল কুরছি, হাশরের তিন আয়াত পড়া।একই ভাবে মাগরিব এর পরও।

ঘুমানোরর আগে উক্ত আমল করা।জ্বিনেরা আমলদারী দের ভয় পায়।তাই ৫ অয়াক্ত নামাজ পড়তে হবে।

জিকির আযগার করতে হবে।
0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন (31 পয়েন্ট)
জিন পেত থেকে দুরে থাকতে হলে আপনি আয়াতুল কুরসি পড়ুন।পাশাপাশি "লা হাওলা ওয়ালা কুয়াতা ইল্লাবিল্লাহিল আলিয়্যিল আযীম" এই দোয়া পড়ুন।কিন্তু পেত বলতে এই পৃথিবীতে কিছু হয়না।
টি উত্তর
২১ জানুয়ারি ২০১৯ "ক্যারিয়ার" বিভাগে উত্তর দিয়েছেন Ariful (৬৩৭৩ পয়েন্ট )
টি উত্তর

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

2 টি উত্তর
01 নভেম্বর 2016 "সাধারণ" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন মোঃ এরশাদুল হক (297 পয়েন্ট)
5 টি উত্তর
04 জুলাই 2016 "যৌন" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Robin Bose (0 পয়েন্ট)
5 টি উত্তর
18 মার্চ 2016 "প্রেম-ভালোবাসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন ROBEL HASAN (6 পয়েন্ট)

277,536 টি প্রশ্ন

361,104 টি উত্তর

107,984 টি মন্তব্য

148,737 জন নিবন্ধিত সদস্য



বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
* বিস্ময়ে প্রকাশিত সকল প্রশ্ন বা উত্তরের দায়ভার একান্তই ব্যবহারকারীর নিজের, এক্ষেত্রে কোন প্রশ্নোত্তর কোনভাবেই বিস্ময় এর মতামত নয়।
...