বিস্ময় অ্যানসারস এ আপনাকে সুস্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং বিস্ময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...
97 জন দেখেছেন
"ধর্ম ও আধ্যাত্মিক বিশ্বাস" বিভাগে করেছেন (535 পয়েন্ট)
অকালে মারা যাবো ।  আর বাকি সবাই বেচে থাকবে ।  এজন্য

সবাই যখন মজাা করে তখন আমি তাদের সাথে গিয়ে জয়েন

করতে পারি না ।  এই খারাপ চিন্তা টা মাথায় আসে ।  

6 উত্তর

+2 টি পছন্দ
করেছেন (444 পয়েন্ট)
এটা আসলে মনের ভুল, আপনি আপনার গুরুজনদের কাছ থেকে পরামর্শ নিতে পারেন।

ধন্যবাদ।
+1 টি পছন্দ
করেছেন (4,463 পয়েন্ট)
পূনঃপ্রদর্শিত করেছেন

এটা খারাপ চিন্তা না। এটা আপনার উপর আল্লাহর বিশেষ রহমত, যদি বুঝতে পারেন। আল্লাহ্ তাঁর বান্দাদেরকে অনেক বেশি ভালোবাসেন। তাই বান্দা যখন গুনাহ্ করতে থাকে, আল্লাহ্ করুণা করে তার মধ‍্যে মৃত‍্যুভয় ঢুকিয়ে দেয়, যাতে করে সে মৃত‍্যুর পরের জীবনের গুনাহের শাস্তির কথা চিন্তা করে অন্তত সঠিক পথে ফিরে আসে। মজা করার জন‍্য এই পৃথিবীতে আমাদেরকে পাঠানো হয়নি, মজা করবো মৃত‍্যুর পরের চিরস্থায়ী জীবনে। তাই বন্ধুদের মজায় না জয়েন করে আল্লাহর পথে ফিরে আসুন। নামাজ পড়ুন, রোজা রাখুন, পরকালের শাস্তির ভয়ে আল্লাহর কাছে ক্রন্দন করুন। মনে রাখবেন, কেউই অকালে মরে না, আবার কেউই চিরকাল বেঁচে থাকতে পারে না। মৃত‍্যুর নির্দিষ্ট কোনো সময় সীমা নেই। যে কেউ যেকোনো সময় মৃত‍্যুবরণ করতে পারে। তাই আল্লাহর শুকরিয়া আদায় করে তাঁর পথে ধাবিত হোন। ধন‍্যবাদ আপনাকে।

0 টি পছন্দ
করেছেন (334 পয়েন্ট)
আপনি পাঁচ ওয়াক্ত নামায জামাতে আদায় কৱাৱ চেস্টা কৱুন । বেশি বেশি তওবা এবং যিকিৱ কৱুন । অবসৱ সময়ে হাদিসেৱ বই পড়েন ।
0 টি পছন্দ
করেছেন (307 পয়েন্ট)
এজন্য আপনি নামাজের পাশা-পাশি অভিজ্ঞ হোমিওপাথি ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে ঔষধ সেবন করতে পারেন,কারন এটা আপনার মানসিক সমস্যা। আর এমন সমস্যার জন্য হোমিওপাথিতে ভাল চিকিৎসা আছে।আল্লাহ্‌র রহমতে সমাধান হয়ে যাবে।
0 টি পছন্দ
করেছেন (816 পয়েন্ট)
আমার মনে হয় আপনি মৃত্যুকে খুব বেশি ভয় পান। আর মাঝে মাঝেই এগুলা বিষয় ভাবেন আর মনে মনে কষ্ট পান একারণে আপনার মস্তিষ্কে একপ্রকার বিরুপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে... *আপনি সময় মতো নামাজ পড়েন *সবার সাথে মিশুন *হাসিখুশি থাকার চেষ্টা করুন
0 টি পছন্দ
করেছেন (5,615 পয়েন্ট)
মৃত্যুভয় মনে থাকা ভালো। তবে মৃত্যুভয় যদি অন্যায় থেকে দূরে রাখার পাশাপাশি অন্যান্য কাজ থেকেও দূরে রাখতে থাকে তবে সেটা একটু বেশিই হয়ে যাবে। 

আপনাকে একদিন মৃত্যুকে গ্রহণ করতে হবে একথা চিরসত্য। কবে মারা যাবেন সেকথা আল্লাহ ছাড়া আর কেউ জানেন না। তাই অকালে না বিকালে মারা যাবেন তা নিয়ে চিন্তা করে লাভ নেই। 

মরে যাব এই ভয় না পেয়ে মৃত্যুর পর যেন ভয় পেতে না হয় সেই ব্যবস্থা করেন। মৃত্যুর পরের জীবন যেন সুন্দর হয় সেজন্য আল্লাহর বাধ্য হন, ইবাদত করুন। পাপকাজ থেকে নিজেকে দূরে রাখুন। 

সবশেষে মৃত্যুকে বেশি ভয় না পেয়ে বিষয়টা যেহেতু চিরসত্য সেভাবেই গ্রহণ করে নিতে বলব। কোনো কিছুই অতিরিক্ত ভাল না সেকথা জানেন। তেমনি মৃত্যুভয়ও অত্যাধিক হলে হবে না। ততটাই হতে হবে যাতে স্বাভাবিক কাজও ঠিক থাকে আবার মৃত্যুপরবর্তী জীবনের জন্য ব্যবস্থাও থাকে।

এ সম্পর্কিত কোন প্রশ্ন খুঁজে পাওয়া গেল না

313,278 টি প্রশ্ন

402,849 টি উত্তর

123,798 টি মন্তব্য

173,494 জন নিবন্ধিত সদস্য

বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
...