বিস্ময় অ্যানসারস এ আপনাকে সুস্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং বিস্ময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...
13,172 জন দেখেছেন
"শিক্ষা+শিক্ষা প্রতিষ্ঠান" বিভাগে করেছেন (5,687 পয়েন্ট)
বাংলা ও ইংরেজি দুটোতেই শুরু কিভাবে করব আর শেষ কিভাবে করব? ভেতরের সব আমি বলতে পারব। স্টার্টিং, এন্ডিং এ সমস্যা।

2 উত্তর

0 টি পছন্দ
করেছেন (1,840 পয়েন্ট)
নির্বাচিত করেছেন
 
সর্বোত্তম উত্তর

কাদের কে উদ্দেশ্য করে বক্তব্য রাখবেন সেটা তো বলেন নি। আমি ধরে নিলাম স্কুলের অনুষ্ঠানে বক্তৃতা দিবেন। 

বাংলায়- 
আসসালামু আলাইকুম। সংক্ষেপে আপনার পরিচয়।   আজকের এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত আমার শ্রদ্ধেয় শিক্ষক/শিক্ষিকা এবং আমার প্রিয় সহপাঠী বৃন্দ সবাইকে জানাই আন্তরিক অভিনন্দন। শুরুতেই আমি আজকের এই অনুষ্ঠানে আমাকে বক্তৃতা দেবার সুযোগ করে দেবার জন্য সবার কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। আমার বক্তৃতার বিষয় -------

সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে এবং সবার সুস্বাস্থ্য কামনা করে আজকের মত এখানেই আমার বক্তব্য শেষ করছি। 

ইংরেজীতে 
Assalamu Alaikum. I'm Mehjabin ......
It's a great a honour to say something at this program. First I would like to show respect to my teachers and love to my classmates for attending this ceremony. I'm also grateful for getting a chance to give speech in front of you. Today my topic is blah blah blah blah

Wish you all the best of luck. 

আমি আমার মত বললাম। বাকিটা আপনি আপনার মত সাজাবেন। ধন্যবাদ।
0 টি পছন্দ
করেছেন (3,003 পয়েন্ট)
বক্তব্যের শেষের মন্তব্যের মতো সমভাবেই গুরুত্বপূর্ণ হলো সূচনা অংশ। কারণ বক্তার সাথে শ্রোতার যে সম্পর্ক গড়ে উঠবে তা নির্ধারিত হয় এর দ্বারা। তারা আপনার সম্পর্কে একটা ইমপ্রেশন গড়ে নেয়। এটি অনেকমাত্রায় প্রভাবিত করবে বক্তার প্রতি শ্রোতার মিথস্ক্রিয়তার ধরন। এ ক্ষেত্রে কয়েক দিক নজর রাখতে পারেন। মঞ্চে উঠে অবশ্যই দর্শকদের দিকে তাকিয়ে মৃদু হাসবেন। মনে রাখবেন হাসিমুখে তাকালে আশপাশের লোকজন এমন অভিব্যক্তিই উপহার দেবে। যদি আপনি মুখ গোমড়া, ভারি করে রাখেন সে ক্ষেত্রে শ্রোতারা আপনার বক্তব্য শুরু হওয়ার আগ হতেই একটা নেতিবাচক ধারণা গড়ে নেবে মনের মাঝে। আর প্রোপাইল পিকচারেরর মত ওই জিহবাটা বাহির করলেতো আরো বিপদ :p ---- উপস্থাপকের পরিচিতিকালে মাথা হেলিয়ে তাকে সম্বোধন করবেন। ধন্যবাদ দিতে যেন ভুল না হয়। হতে পারে এগুলো একদম মামুলি ব্যাপার কিন্তু শ্রোতারা সূচনাপর্বের এসব সূক্ষ্ম দিক গভীরভাবে দেখে থাকে। অতঃপর বক্তৃতা দেয়ার পালা। যতই তাড়া থাকুক একটু বিলম্ব দিন। অন্তত ত্রিশ সেকেন্ডের নীরবতা, এর লক্ষ্য একটাই শ্রোতারা যেন আপনার ওপর পূর্ণ মনোনিবেশ করতে পারে। সামান্যক্ষণ বিরতি দেয়া হলে ক্ষণিককালের জন্য শ্রোতার মনে অনুভূতি খেলে যায়- ‘বক্তা কিছু বলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন যা কিছুক্ষণের মধ্যেই আমাদের কানে এসে পৌঁছবে।’ বক্তার মনের কথাও এটিই। ক্ষণিকের নীরবতাকালীন আপনার জন্য করণীয়তা হলো শ্রোতাদের সাথে চোখে চোখ রাখা। এক্ষেত্রে সামনের শ্রোতাদের মধ্য হতে গুটিকতক ঠিক করে নিন-একজন ডান দিকে, একজন বাম দিকে, একজন ঠিক মাঝখানের। এ চোখ মেলানো হবে ক্ষণিকের। অতঃপর আপনার দৃষ্টি হাজার শ্রোতার চোখের মাঝে হারিয়ে যাবে। (( আচ্ছা আশা করি একটু হলেও উপকার করতে পেরেছি। ইংরেজিতে অন্য কেউ বলুক আমি চাই... আনার মোবাইল এ চার্জ নাই....)

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

322,104 টি প্রশ্ন

412,505 টি উত্তর

127,737 টি মন্তব্য

177,473 জন নিবন্ধিত সদস্য

বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
...