বিস্ময় অ্যানসারস এ আপনাকে সুস্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং বিস্ময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...
3,891 জন দেখেছেন
"ধর্ম ও আধ্যাত্মিক বিশ্বাস" বিভাগে করেছেন (307 পয়েন্ট)
মাগরিবের ৩ রাকাত ফরজ নামাজ ও এশার ৩ রাকাত বিতর নামাজের সুন্দর ভাবে বিবরন দেন।মানে কিভাবে পড়বো?

2 উত্তর

0 টি পছন্দ
করেছেন (478 পয়েন্ট)
মাগরিব এর ফরজ নামাজ:প্রথমে দাড়িয়ে তাকবির দিয়ে হাত বাধঁবে।তারপর সূরা ফাতিহা পড়ে অন্য সূরা মিলাতে হবে।তারপর রুকু সিজদা করে আবার দাড়াবে।আবার এই একই ভাবে আরেক রাকাত শেষ করবে।এবং সিজদাহ করে বসতে হবে।বসে বসে তাশাহুদ পড়তে হবে । এবং উঠে দাড়াতে হবে।তারপর শুধু সূরা ফাতিহা পরবে।এবং রুকু সিজদাহ করে আবার বসতে হবে।তারপর তাশাহুদ,দরূদ ও দোয়া মাছুরা পরে সালাম ফিড়িয়ে নামাজ শেষ করতে হবে। বিতর নামাজেও একই ভাবে নামাজ শেষ করবে।কিন্তু তৃতীয় রাকাতে ফাতিহার পর সুরা মিলাতে হবে এবং তারপর হাত ছেড়ে আবার তাকবীর বলে দোয়া কুনূত পড়ে যথারীতি নামাজ শেষ করতে হবে।
0 টি পছন্দ
করেছেন (19 পয়েন্ট)

মাগরিবের  ফরযের নিয় : ৩ রাকাত মাগরিবের  ফরয নামাযের প্রথম ২ রাকাত ২ রাকাত ফরয নামাযের মতই শুরু করবেন। ২য় রাকাতে ২ সিজদাহ দেওয়ার পরে বসে শুধু তাশাহহুদ পড়বেন। তারপরে "আল্লহু- আকবার" বলে দাঁড়িয়ে যাবেন। এরপর শুধু সূরা ফাতিহা পড়ে রুকুতে চলে যাবেন। রুকু থেকে উঠে যথারীতি সিজদায় যাবেন। দুই সিজদাহ দেওয়ার পরে বসে তাশাহহুদ, দুরুদ শরীফ, ও দুয়া মাসুরা পড়ে যথারীতি সালাম ফিরাবেন।


৩ রাকাত মাগরিবের  ফরযের নিয়তঃ
নাওাইতুয়ান উসাল্লিয়া লিল্লাহি তা’ লা সালাসা রাক’আতাই সালাতিল মাগরিবে ফারদুল্লাহি তা’ লা মুতাওয়াজ্জিহান ইলাজিহাতিল কা’ বাতিশ শারিফাতি আল্লাহু আকবার।



বেতের নামাজের নিয়ম: ৩ রাকাত ওয়াজিব নামাযের প্রথম ২ রাকাত ২ রাকাত ফরয নামাযের মতই শুরু করবেন। ২য় রাকাতে ২ সিজদাহ দেওয়ার পরে বসে শুধু তাশাহহুদ পড়বেন। তারপরে "আল্লহু- আকবার" বলে দাঁড়িয়ে যাবেন। এরপর তৃতীয় রাকআত পড়ার জন্য উঠে সুরা ফাতিহার সঙ্গে অন্য কোনো সুরা বা আয়াত মিলানো। কিরাআত (সুরা বা অন্য আয়াত মিলানোর পর) শেষ করার পর তাকবির বলে দু’হাত কান পর্যন্ত উঠিয়ে তাকবিরে তাহরিমার মতো হাত বাঁধতে হয়। তারপর নিঃশব্দে দোয়া কুনুত পড়ে রুকুতে চলে যাবেন। রুকু থেকে উঠে যথারীতি সিজদায় যাবেন। দুই সিজদাহ দেওয়ার পরে বসে তাশাহহুদ, দুরুদ শরীফ, ও দুয়া মাসুরা পড়ে যথারীতি সালাম ফিরাবেন।


তিন রাকায়াত বেতের নামাজের নিয়ত
বাংলায় : (নাওয়াইতু আন্ উসাল্লিয়া লিল্লা-হি তাআলা সালাসা রাকায়াতি সালাতিল বিতরি ওয়াজিবুল্লা-হি তাআলা মুতাওয়াজজিহান ইলা জিহাতিল কাবাতিশ শারীফাতি আল্লাহু আকবার।)


দোয়ায়ে কুনুতঃ 

উচ্চারণ-

“আল্লাহুম্মা ইন্না নাসতা’ঈনুকা ওয়া নাসতাগ ফিরুকা, ওয়া নু’মিনু বিকা ওয়া না তা ওয়াক্কালু আলাইকা ওয়া নুছনি আলাইকাল খাইর। ওয়া নাশকুরুকা, ওয়ালা নাকফুরুকা, ওয়া নাখ লা, ওয়া নাত রুকু মাইয়্যাফ জুরুকা। আল্লাহুম্মা ইয়্যাকা না’বুদু ওয়ালাকা নুছাল্লি ওয়া নাসজুদু ওয়া ইলাইকা নাস’আ, ওয়া নাহফিদু ওয়া নারজু রাহমাতাকা ওয়া নাখ’শা আযাবাকা ইন্না আযা-বাকা বিল কুফফা-রি মুল হিক ।”

করেছেন (655 পয়েন্ট)
খুব ভালো, প্রশ্নকারী বুজতে পারলেই আপনার উত্তর সার্থক।
করেছেন (1,954 পয়েন্ট)
নাওাইতুয়ান উসাল্লিয়া লিল্লাহি তা’ লা সালাসা রাক’আতাই সালাতিল মাগরিবে ফারদুল্লাহি তা’ লা মুতাওয়াজ্জিহান ইলাজিহাতিল কা’ বাতিশ শারিফাতি আল্লাহু আকবার। @ এগুলা হচ্ছে আরবী ভাষা,এগুলা কোরআন হাদীসে নাই,@@ নিয়ত বাংলায় বলে দেন, বুযতে সহজ হবে,,
করেছেন (307 পয়েন্ট)
আমার তো দুয়া কুনুত মুখস্ত নেই।
করেছেন (1,954 পয়েন্ট)
যদি মুখস্ত না থাকে,তাহলে আপনি যে কোন দূরুদ পরতে পারেন,, @ @@ বি:দ্র: মুসলমানদের জন্য সব দোয়া মুখস্ত কর উওম,অতএব আপনার ইচ্ছা থাকলে মুখস্ত করতে ব্যাপার না। @@@ আর একটা কথা মনে রাখবেন,আপনি যদি ইচ্ছা করে মুখস্ত না করেন,,,,আর "দোয়ায়ে কুনূত" বদলে অন্য দরুদ পড়লেন এই নামাজ আদায় হবে ,,, কিন্তু এই নামাজের তেমন কোন মূল্য রইলো না।।
করেছেন (307 পয়েন্ট)
ইউসুফ ভাইয়া আপনার উত্তর টা আমাকে খুবি ভাল লেগেছে।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

1 উত্তর
2 টি উত্তর
26 অক্টোবর 2018 "সালাত" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Md Abu Saleh Mallick (19 পয়েন্ট)

341,622 টি প্রশ্ন

434,784 টি উত্তর

135,936 টি মন্তব্য

184,298 জন নিবন্ধিত সদস্য

বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
...