103 জন দেখেছেন
"নিত্য ঝুট ঝামেলা" বিভাগে করেছেন (7,682 পয়েন্ট)

আমি ৪.৩০-৪৫ পর্যন্ত এলার্ম দিয়ে রাখি

কিন্ত তবুও ফজর এর নামায পাচ্ছি না।

খুব খারাপ লাগছে,নিজের কাছে,আমি বেশি

রাত জাগিনা,কিন্ত তবুও এই রকম

হয়,......!?

এর জন্য সকালে রুটিন অনুযায়ী পড়তে পারছি না

কী করবো.....!?????


করেছেন (860 পয়েন্ট)
আপনার ঘুম ভাঙছে না তাই আপনি ফজরের নামায পড়তে পারছেন না নাকি অন্য কোনো কারণে ফজরের নামায পড়তে পারছেন না সেটা কিন্তু আপনি প্রশ্নে উল্লেখ করেননি।

2 উত্তর

1 টি পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন (4,665 পয়েন্ট)
ফজরের আজান ৫.৩০ এর দিকে দেয় তাই আপনারো উচিত সেই সময় এলার্ম দেওয়া। 
কারণ সাধারণত ফজরের আজানের আগে রাতের শেষদিক সেই সময় তুলনামূলক গভীর ঘুম থাকে।  আমার আপনার ঘুমের প্রয়োজন যতটুকু ততটুকু ঘুমানো জরুরী।  আপনার নিয়মিত স্বভাব আপনি একদিনে পরিবর্তন করতে পারবেন না  তাই আপনার উচিত আস্থে আস্থে প্রেক্টিস করা। আর এলার্মে একটা অপশন আছে Snooze সেইটা ব্যবহার করুন এবং এলার্মের জন্য ব্যবহৃত যন্ত্রটা মাথার পাশে না রেখে একটু দূরে রাখুন যেনো আপনার খাট থেকে নেমে গিয়ে বন্ধ করতে হয়।

প্রতিনিয়ত অজানা কে জানার ইচ্ছা থেকেই অল্পতেই তথ্য প্রযুক্তি ইন্টারনেট সহ অনেক বিষয়ে জ্ঞান আহরণ করে নিয়েছেন। ইচ্ছে আছে মানুষের জন্য কিছু করার তাই ইন্টারনেটে ফ্রি সময় টুকু বিস্ময়ে কাটিয়ে মানুষের উপকার করার চেষ্টা করেন। স্বপ্ন রয়েছে একজন বড় মাপের কম্পিউটার বিজ্ঞানী হওয়ার। বিস্ময়ে আছেন সমন্বয়ক হিসেবে।
1 টি পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন (11 পয়েন্ট)

বর্তমানে ফযরের ওয়াক্ত ৫:১৫ এর পরে হয়। সুতরাং ফযরের নামায যদি উদ্দেশ‍্য হয় তাহলে এলার্মটা আরো পরে সেট করা উচিত। এমন দূরত্বে যদি রাখা হয় যে এলার্ম এর শব্দটা কানে পৌঁছবে তবে বন্ধ করার জন‍্য বিছানা থেকে উঠতে হবে তাহলে ফলদায়ক হবে। রাতে ঘুমানোর আগে আয়াতুল কুরসী, সূরা ইখলাস, ফালাক্ব ও নাস অবশ‍্য‌ই পড়া উচিত এবং সবশেষে ঘুমানোর দুআটিও অবশ‍্য‌ই পড়া উচিত। ওযুসহ ঘুমানো উচিত। সর্বোপরি সঠিক সময়ে ঘুম থেকে উঠতে পারার জন‍্য আল্লাহ্ তাআলার কাছে আন্তরিকভাবে সাহায‍্য চাওয়া উচিত।

টি উত্তর

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

1 উত্তর
30 জানুয়ারি 2018 "ইন্টারনেট" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন জয় তাহসান (0 পয়েন্ট)

276,240 টি প্রশ্ন

360,109 টি উত্তর

107,576 টি মন্তব্য

147,778 জন নিবন্ধিত সদস্য



বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
* বিস্ময়ে প্রকাশিত সকল প্রশ্ন বা উত্তরের দায়ভার একান্তই ব্যবহারকারীর নিজের, এক্ষেত্রে কোন প্রশ্নোত্তর কোনভাবেই বিস্ময় এর মতামত নয়।
...