বিস্ময় অ্যানসারস এ আপনাকে সুস্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং বিস্ময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...
349 জন দেখেছেন
"যৌন" বিভাগে করেছেন (34 পয়েন্ট)

কিছুদিন পর আমার বিয়ে। তাই একটি বিষয় জানতে চাইছি। মাসিক এবং জন্মনিয়ন্ত্রণের বিষয়টা আমার কাছে ক্লিয়ার না। কীভাবে কখন মিলনের ফলে গর্ভধারণের সম্ভাবনা আছে বা নেই সেই বিষয়ে একটু উদাহরণ দিয়ে বলবেন কেউ? এই সাইটে অনেক প্রশ্ন পাইছি। অনেক উত্তর পাইছি। আমার সবটাই গুলিয়ে গেছে। কেউ দয়া করে মাসিক আর সেক্স বিষয়টা ক্লিয়ার করে বলেন।

1 উত্তর

0 টি পছন্দ
করেছেন (13,954 পয়েন্ট)

মাসিক শুরুর ১ম দিন থেকে  দিনটিই হলো

 প্রথম নিরাপদ দিন।

.

মাসিক শুরুর পর ১ম দিন থেকে ৭ম দিন পর্যন্ত বা মাসিক

শুরু হওয়ার পর প্রথম ৭ দিন আর পরবর্তী মাসিক

 শুরুর আগের ৭ দিন বা মাসিক এর পূর্ববর্তী ৭ দিন

 অবাধ সঙ্গম/মিলন নিরাপদ। মানে, এই সময় মিলন

 করলে সন্তান গর্ভে আসার সম্ভাবনা নাই। গর্ভবতী হবে না।

মাঝের দিন গুলোতে মিলনের জন্য গর্ভধারণ হওয়ার

 সম্ভাবনা আছে।

জেনে রাখা ভালো অনিয়মিতভাবে মাসিক হবার ক্ষেত্রে

 এ পদ্ধতি কার্যকর নয়। 

মাসিক চলাকালীন সময়ে মিলন করা হারাম/স্বাস্থ্যর জন্য

ক্ষতিকর।

ধরুন,  ১ ডিসেম্বর তারিখে মাসিক শুরু হলো তাহলে 

৭ ডিসেম্বর পর্যন্ত মিলন করলে/সহবাস করলে বাচ্চা

হবে না/গর্ভবতী হবে না। ৮ ডিসেম্বর  থেকে পরবর্তী মাসিক

 হওয়ার পূর্ববর্তী ৭ দিনের আগ পর্যন্ত মিলন করলে

বা সহবাস করলে তাহলে গর্ভবতী

হওয়ার সম্ভবনা প্রচুর। আবার পরবর্তী  মাসিক হওয়ার 

পূর্ববর্তী ৭ দিন থেকে 

মাসিক হওয়া শুরু হওয়ার আগ পর্যন্ত মিলন

 করলে/সহবাস করলে বাচ্চা

হবে না/গর্ভবতী হবে না।

পুরো বিষয়টি শুধুমাত্র যাদের নিয়মিত মাসিক

হয় তাদের ক্ষেত্রে প্রয়োজ্য। 

# মাসিক হওয়া মানে সে গর্ভবর্তী নন

# মাসিক না হলেই গর্ভবতী এ রকমটা ও নয়।

# নারীরের সব সময়েই নির্দিষ্ট সময়ে মাসিক হয় না,

হরমোনের কারনে,  বিভিন্ন ধরনের পিল/ওষুধ

সেবন করার ফলে মাসিকের তারিখ ৫/৭ দিন

পিছিয়ে যেতে পারে।

জুনায়েত ইসলাম: দেশ ও মানুষের সেবায় নিজেকে আত্মনিয়োগ করতে সদা প্রস্তুত। শৃঙ্খলা ও ফিটনেস সম্পর্কে খুব সচেতন এবং প্রচন্ড দেশ প্রেমী এজন্যই দেশ রক্ষার মতো পবিত্র দায়িত্ব বেছে নিয়েছেন পেশাগত জীবনে। জ্ঞানার্জনের লক্ষ্যে ও পরোপকারের স্বার্থে দীর্ঘদিন থেকেই বিস্ময় অ্যানসারের সাথে অঙ্গাঅঙ্গি ভাবে জড়িত।
করেছেন (34 পয়েন্ট)

মেয়েদের মাসিক কত দিন থাকে? মানে মাসিকের শুরু মানে কি?

করেছেন (13,954 পয়েন্ট)
প্রতি চন্দ্রমাস পরপর হরমোনের প্রভাবে পরিণত মেয়েদের জরায়ু চক্রাকারে যে পরিবর্তনের মধ্যে দিয়ে যায় এবং রক্ত ও জরায়ু নিঃসৃত অংশ যোনিপথে বের হয়ে আসে তাকেই মেয়েদের মাসিক বা ঋতুচক্র বলে।
 
মেয়েদের মাসিক এর তিনটি অংশ, ১মটি চারদিন স্থায়ী হয় (৪-৭ দিন) এবং একে মিনস্ট্রাল ফেজ, ২য়টি ১০দিন (৮-১০ দিন) একে প্রলিফারেটিভ ফেজ এবং ৩য়টি ১৪ দিন (১০-১৪ দিন) স্থায়ী হয় একে সেক্রেটরি ফেজ বলা হয়।
 
মিনস্ট্রাল ফেজ এই যোনি পথে রক্ত বের হয়। ৪-৭ দিন স্থায়ী এই রক্তপাতে ভেঙ্গে যাওয়া রক্তকনিকা ছাড়াও এর সাথে শ্বেত কনিকা, জরায়ুমুখের মিউকাস, জরায়ুর নিঃসৃত আবরনি, ব্যাকটেরিয়া, প্লাজমিন, প্রস্টাগ্লানডিন এবং অনিষিক্ত ডিম্বানু থেকে থাকে। ইস্ট্রোজেন এবং প্রজেস্টেরন হরমোনের যৌথ ক্রিয়ার মেয়েদের মাসিক এর এই পর্বটি ঘটে।
 
প্রলিফারেটিভ ফেজ ৮-১০ দিন স্থায়ী হতে পারে। শুধু ইস্ট্রোজেন হরমোনের প্রভাবে এটি হয়। এই সময় জরায়ু নিষিক্ত ডিম্বানুকে গ্রহন করার জন্য প্রস্ততি নেয়।
 
মেয়েদের মাসিক এর সেক্রেটরি ফেজ টা সবচেয়ে দীর্ঘ, প্রায় ১০ থেকে ১৪ দিন। একে প্রজেস্টেরন বা লুটিয়াল ফেজ ও বলা হয়। এটিও ইস্ট্রোজেন ও প্রজেস্টেরন উভয় হরমোনের যৌথ কারনে হয়। এই সময় নিষিক্ত ডিম্বানুর বৃদ্ধির জন্য জরায়ু সর্বোচ্চ প্রস্ততি নিয়ে থাকে।
টি উত্তর

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

294,067 টি প্রশ্ন

380,680 টি উত্তর

115,095 টি মন্তব্য

161,492 জন নিবন্ধিত সদস্য

বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
...