113 জন দেখেছেন
"কম্পিউটার" বিভাগে করেছেন (4,261 পয়েন্ট)

1 উত্তর

0 টি পছন্দ
করেছেন (4,261 পয়েন্ট)

১. কালার স্যাচুরেশন, কন্ট্রাস্ট ও ব্রাইটনেস কিছুটা পরিবর্তিত হয়ে যায়।

২. ব্যাকলাইটিং সমানভাবে পর্দার সব জায়গায় না পড়ার কারণে মনিটরের ধারের দিকে ব্রাইটনেসের সমস্যা দেখা দেয়।

 ৩. বেশি রেসপন্স টাইমের কারণে গেমারদের বেশ সমস্যায় পড়তে হয়। কম রেসপন্স টাইমের মনিটরগুলোর দাম কিছুটা বেশি।

৪. বিট ডেপথ নির্দিষ্ট করা থাকে, তাই কম মূল্যের এলসিডি মনিটরগুলোতে বাস্তবসম্মত রঙ ফুটে ওঠে না।

৫. সিআরটির তুলনায় কম রেজ্যুলেশন ও রিফ্রেশ রেট সাপোর্ট করে।

৬. ইনপুট ল্যাগ সমস্যা দেখা দেয়।

৭. ডেড পিক্সেল দেখা দেয়। যদি একটি লিকুইড ক্রিস্টাল নষ্ট হয়ে যায় তবে তা ইমেজ বা পিক্সেল জেনারেট করার সময় সাহায্য করে না, তখন মনিটরে বিন্দুর মতো দাগ দেখা দেয়।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

1 উত্তর
10 মে 2013 "কম্পিউটার" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন shohan (4,261 পয়েন্ট)
1 উত্তর
10 মে 2013 "কম্পিউটার" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন shohan (4,261 পয়েন্ট)
1 উত্তর
27 ডিসেম্বর 2013 "কম্পিউটার" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন nahid (104 পয়েন্ট)

289,343 টি প্রশ্ন

374,926 টি উত্তর

113,387 টি মন্তব্য

157,916 জন নিবন্ধিত সদস্য

Bissoy Answers এ সুস্বাগতম, যেখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং গোষ্ঠীর অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন।
...