আমি একটা মেয়েকে খুব পছন্দ করতাম, মেয়েটা ছিল হিন্দু। আমরা একই ক্লাশে পড়ি। আমাদের রোল ও পাশাপাশি। আমাদের ক্লাশে আরেকটা ছেলে ছিল যাকে আমি একদম ই পছন্দ করতাম না, একদিন দেখি মেয়েটা ওই ছেলের সাথে রিকশায় ঘুরছে, এতে আমার খুব খারাপ লাগল। তারপর থেকেই মেয়েটার ওপর আমার একটা চাপা ক্ষোভ তৈরি হয়। মেয়েটাকে যখন ই দেখি তখন ই আমার নারভাস লাগে। এজন্য পড়াশুনায় ও মনোযোগ দিতে পারছি না। সব কাজের প্রতি আগ্রহ হারিয়ে ফেলেছি, আগের মতো উদ্যম আমার আর নেই। সব কাজেই শুধু তার কথা মনে হয়। সামনে আমার অনেক বড় পরীক্ষা, কি করবো বুঝতে পারছি ন।আমি বুঝতে পারছি আমাকে পড়াশুনা করতে হবে, ভালো থাকতে হবে, কিন্তু ভালো থাকার চেষ্টা করলেই ক্লাশে তাকে আবার দেখব, তার পাশে বশে পরীক্ষা দেব এসব ভেবেই আবার খারাপ লাগছে, এজন্য পড়াশুনায় পিছিয়ে পরছি,দুশ্চিন্তা হচ্ছে।কিছুই ভালো লাগছে না?

2,809 জন দেখেছেন
"প্রেম-ভালোবাসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন (1 পয়েন্ট )

2 উত্তর

0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
উত্তর প্রদান করেছেন (95 পয়েন্ট)

কবির ভাই,আমি আপনার এই অবস্থার জন্য দুঃখ প্রকাশ করছি।

কিন্তু আমি আপনাকে একটা কথা বলতে পারি।আচ্ছা আপনি ই আমাকে বলুন যে,আপনি যে ফুল থেকে ঘ্রান নিতে চাচ্ছেন সেই ফুলটা  যদি পচা হয় তাহলে কি সে আপনাকে ঘ্রান দিতে পারবে?অবশ্যই বলবেন,না। তাহলে এবার আপনি ই ভাবুন যে মেয়েকে আপনি ভালবাসেন সে যদি আপনাকে ভালবাসতো তবে অন্যের সাথে রিক্সায় না ঘুরে আপনার হাতটা টেনে নিয়ে আকাশে উড়ে বেড়াত।আপনার দিকে বাকা চোখে তাকাবে! নাকি আপনাকে যদি কেউ কিছু বলে তাহলে তাকে খেয়ে ফেলতে চাইবে।

আপনি যতই তাকে ভালবাসেন আর যতই মন খারাব করেন তাতে কোন লাভ হবেনা।কারন,মেয়েরা যদি কাউকে একবার ভুল বুঝতে পারে তাহলে কোন দিন ও তাকে ভাল চোখে দেখেনা।এটা মেয়েদের একটা স্বভাব।

জীবন টা অনেক মুল্যবান।তাই কোন মেয়ের দুর্ব্যাবহারের কারনে তাকে নষ্টের দিকে ফেলতে পারেন না। আপনি প্রতিজ্ঞা করুন। নিজের জীবন কে এভাবে প্রতিষ্টা করব যাতে আমি নয় বরং আমার পিছনে মেয়ে এসে ঘুরবে।

আপনাকে পরিক্ষায় মনযোগী হতে হবে।নিজের ক্যারিয়ার নিজেকেই গড়তে হবে।মা-বাবার লালিত স্বপ্ন কোন ধোকা বাজ মেয়ে পুর্ণ করবেনা।

ধন্যবাদ।

মন্তব্য করা হয়েছে করেছেন (1 পয়েন্ট )

জুবায়ের ভাই, আমি তাকে ভুলে যেতে চাচ্ছি, কিন্তু প্রতিদিন যখন ক্লাশে যাই,যখন ই তাকে দেখি,যখনি হঠাত সে আমার সামনে এসে যায় তখনি বুক ধরফর করে, নারভাস হয়ে যাই। যেহেতু তার রোল আর আমার রোল পাশাপাশি তাই এখন আমার ভয় হচ্ছে মেইন পরীক্ষায় তাকে দেখে আমি হয়তো নারভাস হয়ে পরবো। পরীক্ষা খারাপ হবে। আর পরীক্ষা খারাপ হলে তো আমার সব শেষ। আর এটা ভেবে আরো খারাপ লাগছে যে তার সাথে আমার আগামী চার বছর একসাথে থাকতে হবে,তাকে দেখতে হবে। এই তুচ্ছ বিষয় নিয়ে ভেবে আমি আনন্দ করতে পারছি না, প্রানখুলে হাসতে পারছি ন। সবসময় আতংকের মধ্যে থাকি। আবার ভয় হয় আগামী চার বছর যদি আমার এরকম চলতে থাকে তাহলে শরীরের কোনো সমস্যা হয় কি না

শুধুমাত্র একটা চিন্তা মাথার ভেতর আসার জন্য আমি এই দুশ্চিন্তায় ভুগছি। নিজেকে কিছুতেই বুঝাতে পারছি না যে এটি শুধুমাত্র একটি চিন্তা,একটা বাজে ধারনা। এখন যেহেতু চিন্তাটা মাথার ভেতর গেথে গেছে তাই এটি ভুলতে পারছি না। মনকে শক্ত করতে পারছি না কিছুতেই, 

0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
উত্তর প্রদান করেছেন (6,026 পয়েন্ট)
আমি যদি খুব সংক্ষিপ্ত করে বলি , আল্লাহ যা করেন তা সবসময়ই ভালোর জন্য করেন । আপনি তো ভাগ্যবান সম্পর্কটা আরো গভীর হওয়ার আগেই এ থেকে মুক্তি পেয়েছেন । তাই আপনার আনন্দ হওয়া উচিত যে একজন প্রতারক থেকে আপনি মুক্তি পেয়েছেন । আল্লাহর উপর ভরসা রেখে সবকিছু নতুন করে শুরু করোন ।
মন্তব্য করা হয়েছে করেছেন (1 পয়েন্ট )

কিন্তু আমার নারভাসনেস কিভাবে কাটাবো? সকালে ঘুম থেকে উঠলেই প্রচন্ড খারাপ লাগে যে এইতো এখন তাকে আমার  দেখতে হবে।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

1 উত্তর
2 টি উত্তর
20 জুন 2015 "সাধারণ" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন কাইয়ুম (437 পয়েন্ট)

234,775 টি প্রশ্ন

302,539 টি উত্তর

85,216 টি মন্তব্য

118,529 জন নিবন্ধিত সদস্য



বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
* বিস্ময়ে প্রকাশিত সকল প্রশ্ন বা উত্তরের দায়ভার একান্তই ব্যবহারকারীর নিজের, এক্ষেত্রে কোন প্রশ্নোত্তর কোনভাবেই বিস্ময় এর মতামত নয়।
...