487 জন দেখেছেন
"মনোবিজ্ঞান" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন (0 পয়েন্ট)
বিভাগ পূনঃনির্ধারিত করেছেন

3 উত্তর

0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
উত্তর প্রদান করেছেন (13,330 পয়েন্ট)

★★★★   টেনশন থেকে বাঁচার উপায় ★★★★

টেনশন সৃষ্টির কারণগুলো দূর করা গেলে এ থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব। আসলে টেনশন কোনো দীর্ঘমেয়াদি ব্যাধি নয়। এটি হলো একটি সামগ্রিক মানসিক অবস্থা। জীবনের সমস্যাসঙ্কুল চলমান পরিস্থিতির সঙ্গে খাপ খাইয়ে চলতে গিয়ে এক টেনশন থেকে আর এক টেনশনের সৃষ্টি হয়। এখন এ টেনশন উপশমের জন্য যেসব বিষয় সহায়তা করে থাকে তা নিচে আলোচনা করা হলো।

সময়ের মূল্যায়ন

আজকাল মানুষ বিভিন্ন কাজ ও পেশায় ব্যস্ত। যার ফলে তাদের সময়ের চাকার সঙ্গে তাল মেলাতে বেশ কষ্ট ও অসুবিধা হয়। তাই সময়কে নির্দিষ্ট কাজের জন্য পরিকল্পনা অনুযায়ী ভাগ করে নির্ধারিত সময়ে সম্পন্ন করলে টেনশন অনেকাংশে লাঘব হয়ে যাবে। এ কথা মনে রাখতে হবে যে, সময়কে ভাগ করে সময়ের কাজ সময়ে শেষ করার অভ্যাস গড়ে তুলতে হবে।

নিয়মিত স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা

স্বাস্থ্যসম্পর্কিত উৎকণ্ঠা অনেক সময়ে মানুষের মধ্যে টেনশনের উদ্রেক করতে পারে। কাজেই নিয়মিত স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে ব্যক্তি তার স্বাস্থ্য সম্পর্কে নিশ্চিন্ত হতে পারে এবং স্বাস্থ্যগত নিশ্চয়তা টেনশন কমানোর ব্যাপারে সহায়ক হবে।

বাস্তববাদী হওয়া

যে কোনো ঘটনা বা ভবিষ্যতে কী হতে পারে এ আশঙ্কায় অনেকে অযথা উৎকণ্ঠিত ও চিন্তিত হয়ে পড়েন। এ ক্ষেত্রে এ কথা মনে রাখতে হবে জীবন মানে কিছু সমস্যা থাকবে এবং এমন কিছু ঘটনা ঘটতে পারে যা জীবনে কাম্য নয়। তবে এও ঠিক, সবকিছুর সমাধান রয়েছে ও সময়ে সব ঠিক হয়ে যায়। কাজেই বাস্তব পরিস্থিতি মেনে নিয়ে তার সঙ্গে খাপ খাইয়ে চলার মানসিকতা গ্রহণ করতে হবে। ফলে কিছুটা টেনশন কমে যাবে।

মনের কথা খুলে বলা

মানুষ ব্যক্তিগত কিছু কথা তার বিশ্বাসভাজন ব্যক্তির কাছে প্রকাশ করে হালকা হতে বা প্রয়োজনবোধে তার সৎ পরামর্শ নিয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করলে তার কাজের জন্য উৎসাহ-উদ্দীপনা ও যৌক্তিকতা খুঁজে পাবে। ফলে তার দুশ্চিন্তার নিরসন হতে পারে।নিয়মানুবর্তিতা পালন করা

নিয়মমতো কাজ সম্পাদন করার অভ্যাস গড়ে তুলতে হবে। কেননা অনিয়ম, ত্রুটিপূর্ণ ও অগোছালো কাজ কখনো সুন্দর ও সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করা সম্ভব হয়ে ওঠে না এবং এর থেকেই উৎপত্তি হয় এ টেনশনের। কাজেই নার্ভাস না হয়ে নিয়ম-নিষ্ঠার সঙ্গে কাজ করলে আর টেনশন থাকে না।না বলতে শিখুন

শুধু না বলতে না পারার কারণেই বহু অপরাধ, অন্যায়-আবদার, আদেশ থাকে

ব্যস্ত থাকার অভ্যাস করা

কথায় বলে অলস মস্তিষক শয়তানের কারখানা। অর্থাৎ কাজবিহীন অলসভাবে সময় কাটানো নানা ভাবনা-চিন্তা মানুষের জীবনকে বিপর্যস্ত করে তোলে। তাই বিভিন্ন ধরনের সেবামূলক প্রতিষ্ঠানে নিযুক্ত হলে বাগান পরিচর্যা, বন্ধু-বান্ধব, আত্মীয়-স্বজনদের বাড়িতে সময় কাটানো কিংবা হালকা ও আনন্দদায়ক পত্রিকা এবং ধর্মসংক্রান্ত বই পড়ে নিজেই ব্যস্ত থাকলে মানসিক অবস্থা প্রফুল্ল ও দুশ্চিন্তামুক্ত থাকবে।

ব্যায়াম

টেনশন যাতে না হয় তার জন্য প্রয়োজন প্রতিদিন কিছু ব্যায়ামের। কিছু খেলাধুলা বা সাঁতার এ ক্ষেত্রে খুব উপকারী হতে পারে। সে সঙ্গে দিনের নির্দিষ্ট সময়ে স্থিরভাবে বসা, মনকে সংহত করে আনার জন মেডিটেশন বা ধ্যানকে যদি অভ্যাস করা হয়, তবে অকারণে টেনশন হবে না কখনোই।

কল্পনা নয় পরিকল্পনা তৈরি করুন


জুনায়েত ইসলাম শিপন: নির্মল চিন্তা চেতনা ও যৌক্তিক ব্যক্তিদের পছন্দ করেন। বাস্তবতা ও পরিস্থিতির সংগ্রামে জীবনের অধিকাংশ স্বপ্নই লক্ষ্যভ্রষ্ট। সুনাগরিকতা প্রতিষ্ঠার প্রচেষ্টায় জ্ঞানার্জন ও প্রচার করার স্বার্থে স্বার্থহীন ভাবে পরোপকার করে ও বিস্ময় ডট কমের স্বপ্নপূরণের তাগিদে বিস্ময়ের সাথে আছেন তিনি সমন্বয়ক হিসাবে।
0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
উত্তর প্রদান করেছেন (1,198 পয়েন্ট)
মানসিক অশান্তি বা, টেনশনের মূল কারণ, আপনি এমন কিছু করেছেন যা নিয়ে আপনি নিজের মাঝেই অসস্থিতে রয়েছেন। কাজটা যদি অনৈতিক কিছু হয়, তাহলে সাধারণত দুশ্চিন্তা থেকে সরে আসার উপায় খুব একটা জানা নেই। তবে, সাধারণ ঘটনাগুলো নিয়ে দুশ্চিন্তা থাকলে - উত্তরণের খুবই কার্যকর একটি উপায় হলো "Mind Divert" বা, মনকে অন্য কিছুতে ব্যস্ত রাখা। হতে পারে সেটা গেমস্ খেলা, গান শোনা, সিনেমা দেখা, আড্ডা দেওয়া বা, দূরে কোথাও থেকে ঘুরে আসা। তবে, বেশি কাজ হয় প্রিয়জনদের সাথে সময় কাটালে ও নিজের জীবন সম্পর্কে তাদের সাথে শেয়ার করলে। আশা করবো, আপনি আপনার দুশ্চিন্তা থেকে জলদিই মুক্তি পাবেন। ভালো থাকবেন!
0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
উত্তর প্রদান করেছেন (21,464 পয়েন্ট)

টেনশন নেই এমন মানুষ মনে হয় খুঁজে পাওয়া যাবে না। আর তাই এই টেনশন থেকে আপনি কিভাবে মুক্তি পাবেন সে বিষয়ে জানা আপনার জন্য অনেক বেশি জরুরি।





মানুষের প্রাত্যহিক জীবনে নানা ধরনের টেনশনের উৎপত্তি ঘটে। বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই কারো সঙ্গে শেয়ার না করায় বা মানসিক অসুস্থতার কারণে এটি বড় আকার ধারণ করে।


মানুষতো আর ইচ্ছে করে টেনশন করে না। তার ব্যক্তিত্ব ও পরিস্থিতির কারণে সে টেনশন করে। ব্যক্তিগত বিকাশ ঘটিয়ে সবল ঢেড় ব্যক্তি গড়ে তোলে জটিল পরিস্থিতিতে হা হুতাশ করে ভেঙ্গে না পড়ে বুদ্ধি খাটিয়ে ধাপে ধাপে বাস্তবসম্মতভাবে সমস্যা মোকাবেলা করেই টেনশনমুক্ত হতে হয়।




ছোট ছোট টেনশন চেপে রাখলে তা ভবিষ্যতে বড় টেনশনের কারণ হতে পারে। জীবন ধারণ ও জীবন যাপন পদ্ধতির মধ্যে টেনশনমুক্ত পদ্ধতি অবলম্বন জরুরি। কোন বিষয়ে আমরা যদি উদ্বিগ্নবোধ করি তাহলে প্রথমে নিজেকে বোঝাতে হবে। খুব বেশি উদ্বিগ্ন হলে সমস্যার সমাধান হবে না। বরং সমস্যাটি কি, কিভাবে সমাধান করা যায়, সমাধান করতে হলে কাকে বলতে হবে, কে এই বিষয়ে বেশি জ্ঞান রাখে এবং সমাধানের সহযোগী হবেন ইত্যাদি নিয়ে ভাবলে সমস্যার সমাধান হতে পারেন।


অনেক সময় দেখা যায়, অনেক চেষ্টা করেও টেনশন থেকে মুক্তি পাওয়া যায় না। স্বাভাবিক জীবন-যাত্রায় টেনশন প্রতিক্রিয়াগুলো সমস্যা সৃষ্টি করে। এসব ক্ষেত্রে মানসিক স্বাস্থ্য সেবাদানকারীদের সহযোগিতা নিলে তারা কিভাবে টেনশন কম করা যায় সেব্যাপারে সহযোগিতা করতে পারেন। সম্পূর্ণভাবে টেনশনমুক্ত থাকতে হলে জীবন ও জগত সম্পর্কে নেতিবাচক চিন্তা পরিহার করতে হবে। বাস্তবতার মুখোমুখি হয়ে কঠিন সমস্যা সমাধানের চেষ্টা ও দায়িত্ব গ্রহণের মাধ্যমে সবল ব্যক্তিত্ব গড়ে উঠবে। যে সমস্যা একা সমাধান করা সম্ভব নয় তার সমাধানে অনেককে সঙ্গে নিতে হবে।


এভাবে বাস্তবকে জয় করে টেনশন থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব। টেনশন থেকে মুক্তি পেতে চাইলে আর যাই করুন, টেনশনকে কোন ভাবেই প্রশ্রয় দেওয়া চলবে না।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

1 উত্তর
08 জুন 2017 "মনোবিজ্ঞান" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন অজ্ঞাতকুলশীল
2 টি উত্তর
22 অগাস্ট 2014 "স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন ফারদিল হাসান (9 পয়েন্ট)
1 উত্তর
29 অক্টোবর 2017 "যৌন" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন অজ্ঞাতকুলশীল

234,855 টি প্রশ্ন

302,677 টি উত্তর

85,301 টি মন্তব্য

118,596 জন নিবন্ধিত সদস্য



বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
* বিস্ময়ে প্রকাশিত সকল প্রশ্ন বা উত্তরের দায়ভার একান্তই ব্যবহারকারীর নিজের, এক্ষেত্রে কোন প্রশ্নোত্তর কোনভাবেই বিস্ময় এর মতামত নয়।
...