বিস্ময় অ্যানসারস এ আপনাকে সুস্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং বিস্ময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...
110 জন দেখেছেন
"কম্পিউটার" বিভাগে করেছেন (24 পয়েন্ট)
৩০ হাজার টাকার মধ্যে ল্যাপটপ কেনার ইচ্ছে ছিলো কিন্তু অনেকেই বলছিলো ডেক্সটপ বেটার হবে । বড় সাইজের গেমস্, নেট ব্রাউজিং, ফটো ভিডিও এডিটিং, গ্রাফিক্স ইত্যাদি কাজ করতে গেলে বেগ পেতে হবে না এমন ডেক্সটপ কিনতে হলে কোন কোন দিকটা খেয়াল রাখতে হবে ? আর ৩০ হাজার টাকার মধ্যে ভালো ডেক্সটপের ডিটেইস সহ সাজেট করুন প্লিজ ।

1 উত্তর

0 টি পছন্দ
করেছেন (14,836 পয়েন্ট)
নির্বাচিত করেছেন
 
সর্বোত্তম উত্তর

ডেক্সটপ কিনতে হলে যে যে দিকটা খেয়াল রাখতে

 হবে, তা হল-

বাজেট :- সর্বপ্রথম আপনাকে বাজেট নির্ধারণ করতে হবে। প্রত্যেকেরই কমবেশি বাজেট থাকে। সুতরাং আপনিও এর ব্যতিক্রম নন। এমনও হতে পারে আপনার বাজেট ৩০ হাজার টাকা কিন্তু পিসি কেনার সময় দেখা যাচ্ছে আপনাকে আরও অতিরিক্ত ৪/৫ হাজার টাকা যোগ করতে হচ্ছে। ব্র্যান্ড পিসি কিনলে বাজেট অবশ্যই একটু বেশি থাকতে হবে।


পিসির গুরুত্বপূর্ণ ডিভাইসগুলো এবং গাইডলাইন :- পিসি ব্র্যান্ড বা ক্লোন, লো-কোয়ালিটি বা হাই-কোয়ালিটি যাই কিনুন না কেন, আপনার পিসির যন্ত্রাংশ/ডিভাইসগুলো সম্পর্কে অভিজ্ঞতা থাকলে খুব উপকারে আসবে।

প্রসেসর :- প্রসেসর হচ্ছে কম্পিউটারের ব্রেইন বা মস্তিষ্ক। প্রসেসর কেনার আগে আপনাকে সর্বাধিক সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে, যেন ভবিষ্যতে আপনাকে প্রসেসর পরিবর্তন নিয়ে সমস্যার সম্মুখীন হতে না হয়। কেনার সময় দেখে নিন প্রসেসরটি কোন দেশের তৈরি, কুলিং ফ্যান সুবিধা ইত্যাদি। বাজারে সাধারণত ইন্টেল, এএমডি প্রভৃতি প্রসেসর পাওয়া যায়।


মাদারবোর্ড :- মাদারবোর্ড কেনার সময় সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিতে হবে চিপসেট এবং ব্র্যান্ডের ওপর। তাছাড়া বাস স্পিড, র্যাম স্লট, বিভিন্ন পোর্ট যেমন—ইউএসবি, পিএসটু ইত্যাদি। কম্পিউটার বাজারগুলোয় প্রসেসর এবং মাদারবোর্ডের সমন্বিত প্যাকেজ পাওয়া যাচ্ছে।


হার্ডডিস্ক :- হার্ডডিস্কে সব ডেটা এবং প্রোগ্রাম সংরক্ষিত থাকে। হার্ডডিস্কের পারফরমেন্স নির্ভর করে এর স্পিডের ওপর। হার্ডডিস্কের স্পিড পরিমাপ করা হয় জচগ (Rotation Per Minute) দ্বারা।


র্যাম :- -কম্পিউটারের প্রধান মেমোরি ডিভাইস। ডেটা হার্ডডিস্কে স্থায়ীভাবে রাখার আগ পর্যন্ত র্যামেই অবস্থান করে। আপনি যত বড় এবং গুরুত্বপূর্ণ কাজ করবেন আপনাকে তত বেশি র্যাম ব্যবহার করতে হবে। র্যামের অন্যতম প্রধান বিষয় হচ্ছে এর বাস স্পিড, যা মাদারবোর্ডের সঙ্গে মিল রেখে কিনতে হয়।


সিডিরমড্রাইভ :- সফটওয়্যার, গান প্রভৃতি এখন সিডিতে পাওয়া যায়। তাই সিডিরম ড্রাইভ খুব অত্যাবশ্যকীয় একটি ডিভাইস, যা ছাড়া পিসির পূর্ণতা আসবে না।


সিডিরাইটার :- আপনি যদি সিডিতে প্রচুর ব্যাকআপ রাখার কথা ভেবে থাকেন তাহলে আপনার উচিত হবে সিডি রাইটার ব্যবহার করা। সিডি রাইটার থাকলে আপনি অনেক সুবিধা ভোগ করতে পারবেন। তবে যাদের একান্তই প্রয়োজন শুধু তারাই এটা ব্যবহার করবেন, অযথা সিডি রাইটার না কেনাই ভালো।


ডিভিডিরমড্রাইভ :-আপনার পিসিতে যদি ডিভিডি দেখতে চান তাহলে ডিভিডি রম ড্রাইভ প্রয়োজন। আজকাল ডিভিডি রমের চাহিদাই বেশি। আবার প্রয়োজন হলে ডিভিডি রাইটারও ব্যবহার করতে পারেন।


মনিটর :- মনিটর কম্পিউটারের প্রধান আউটপুট ডিভাইস। আমরা যা কিছু ইনপুট দেই না কেন, তা আমরা মনিটরের মাধ্যমে দেখতে পাই। মনিটর কেনার সময় কালার পারফরমেন্স, ভিউ, ব্রাইটনেস বা রেজ্যুলেশন দেখে নিন। আর অবশ্যই ওয়ারেন্টির বিষয়টি মাথায় রাখবেন।


গ্রাফিক্সকার্ড :- গ্রাফিক্স কার্ডের কাজ হলো প্রসেসকৃত সব ডেটার আউটপুট ডিসপ্লেতে পাঠিয়ে দেয়া। আমরা মনিটরে যা কিছু দেখতে পাই তা গ্রাফিক্স বা এজিপি কার্ডের কল্যাণে। গ্রাফিক্স কার্ড বর্তমানে মাদারবোর্ডের সঙ্গে বিল্ট-ইন পাওয়া যায়। তবে যদি আপনি থ্রিডি, হাই-কোয়ালিটি গেমস ও গ্রাফিক্সের কাজ করতে চান তাহলে আপনাকে ভালো মানের ও ভালো চিপসেটের গ্রাফিক্স কার্ড ব্যবহার করতে হবে।


সাউন্ড কার্ড : বর্তমানে মাদারবোর্ডের সঙ্গেই সাউন্ড কার্ড বিল্ট-ইন থাকে। খুব ভালো পারফরমেন্স পেতে হলে আপনাকে সাউন্ড কার্ড কিনতে হবে। সাউন্ড কার্ড কেনার সময় চিপসেটটি ভালো কোম্পানির কিনা দেখে নিন।


স্পিকার :- যারা গান পছন্দ করেন, স্পিকার তাদের জন্য বাধ্যতামূলক। স্পিকারের মাধ্যমেই আপনি যে কোনো শব্দ শুনতে পারেন। তবে স্পিকার কেনার আগে একটু ভালোভাবে দেখেশুনে কিনবেন এবং স্পিকার ও সাউন্ড কার্ডের সঙ্গে যেন সামঞ্জস্য থাকে।


প্রিন্টার :- প্রিন্টার অন্যতম একটি আউটপুট ডিভাইস। প্রিন্টার খুবই প্রয়োজনীয় একটি যন্ত্রাংশ, যার মাধ্যমে আমরা পিসিতে করা কাজগুলোকে প্রিন্ট দিতে সক্ষম হই। জেট প্রিন্টার দামে একটু সস্তা এবং লেজার প্রিন্টার দাম একটু বেশি হয়ে থাকে। তাছাড়া প্রিন্টার ব্ল্যাক হোয়াইট এবং কালার দু’ধরনেরই সব স্থানে পাওয়া যায়।


সফটওয়্যার :- পিসির জন্য আপনাকে সর্বপ্রথম একটি অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করতে হবে। উইন্ডোজ বা লিনাক্স যে কোনোটিই আপনি ব্যবহার করতে পারেন। আপনার অতি শখের পিসি, যাতে ভাইরাসের আক্রমণ থেকে বাঁচতে পারে সেজন্য ব্যবহার করতে হবে এন্টি-ভাইরাস সফটওয়্যার। এরপর আপনি যত ইচ্ছা আপনার চাহিদা অনুযায়ী প্রোগ্রাম বা সফটওয়্যার ব্যবহার করতে পারেন।


অন্যান্য : কিবোর্ড, মাউস ছাড়াও পিসিতে ব্যবহারযোগ্য আরও বহুবিধ ডিভাইস ও আইটি পণ্য রয়েছে, যা আপনি ইচ্ছা করলেই ব্যবহার করতে পারেন। যেমন—পেনড্রাইভ, ওয়েবক্যাম, ইউপিএস, স্ক্যানার, স্ট্যাবিলাইজার, ফ্যাক্স মডেম, টিভি কার্ড প্রভৃতি।


**** ৩০ হাজার টাকার মধ্য উপযুক্ত একটি পিসি হলো

পুরো কনফিগারেশন দেখে নিন


মূল্য - ২৯,৫০০  টাকা


Processor Type Intel Core i5 2450M

Processor Speed 3.10 GHz

Main Board Intel 61 Chipset

Monitor HP/ Dell 19 Inch LED Wide Screen

RAM 8GB DDR-3

Hard Disk 1000GB SATA

Disk Type HDD

Graphics Card Intel Built-in HD Graphics

Optical Drive Samsung DVD R/W

Audio/Speaker Realtech Audio

Networking 10/100/1000 Mbps

Keyboard Perfect Standard USB

Mouse Havit Optical Mouse

Casing ATX Thermal Office Casing

জুনায়েত ইসলাম: দেশ ও মানুষের সেবায় নিজেকে আত্মনিয়োগ করতে সদা প্রস্তুত। শৃঙ্খলা ও ফিটনেস সম্পর্কে খুব সচেতন এবং প্রচন্ড দেশ প্রেমী এজন্যই দেশ রক্ষার মতো পবিত্র দায়িত্ব বেছে নিয়েছেন পেশাগত জীবনে। জ্ঞানার্জনের লক্ষ্যে ও পরোপকারের স্বার্থে দীর্ঘদিন থেকেই বিস্ময় অ্যানসারের সাথে অঙ্গাঅঙ্গি ভাবে জড়িত।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

341,759 টি প্রশ্ন

434,905 টি উত্তর

135,971 টি মন্তব্য

184,359 জন নিবন্ধিত সদস্য

বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
...