বিস্ময় অ্যানসারস এ আপনাকে সুস্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং বিস্ময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...
441 জন দেখেছেন
"স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা" বিভাগে করেছেন (4 পয়েন্ট)
আমার স্ত্রীর অনিয়মিত মাসিক।ওর মেজাজ সবসময় খিটখিটে থাকে কোন ওষুধ খাওয়ালে সবসময় ও শান্ত থাকবে

3 উত্তর

0 টি পছন্দ
করেছেন (2,176 পয়েন্ট)

ভাই, মেজাজ বা রাগ নিয়ন্ত্রন করার সবচেয়ে 

ভালো উপায় মেডিটেশন করা। ট্যাবলেটে তেমন

 কাজ হবে না। কারন, এটা সম্পুর্ন মানসিক

 ব্যাপার।  ভাই, মানসিক সমস্যার ৮০%

ই প্রধান কাজ হলো মনকে নিয়ন্ত্রন।আর 

মেডিটেশন করলে তো নিয়ন্ত্রন হবেই।তারপরও

একজন অভিজ্ঞ সাইকোলজিস্ট দেখান।

0 টি পছন্দ
করেছেন (2,594 পয়েন্ট)

না।এই ধরনের ঔষধ এখন ও তৈরি হয় নাই।

0 টি পছন্দ
করেছেন (73 পয়েন্ট)
এমন কিছু নেই তবে সাধারন টিপস ফলো করতে পারেন.... ১. আপনি শান্ত থাকুন সবচেয়ে প্রথম ও বাস্তবসম্মত উপায়টি হচ্ছে এক পক্ষকে শান্ত থাকতে হবে। উলটো দিকের মানুষটি খিটমিট করলে আপনিও যদি উত্তেজিত হয়ে পড়েন, তাহলে সম্পর্ক নষ্ট হতে সময় লাগবে না। মাথা ঠাণ্ডা রাখুন, বোঝার চেষ্টা করুন যে কেন তিনি এমন করছেন। আপনি শান্ত থাকলে অপর পক্ষ একা একা বেশিক্ষণ খিটিমিটি চালিয়ে যেতে পারবেন না। ২. সবকিছুকে মনের গভীরে নেবেন না রাগের মাথায় মানুষ অনেক কিছুই বলে, সবকিছুকে সিরিয়াসলি মনে নিয়ে নেবেন না। ছোটখাটো অনেক কিছুই সম্পর্কে ঘটতে পারে, সেসব দেখেও না দেখার ভান করুন। পাত্তা দিলেই ঝামেলা বাড়বে। ৩. সুযোগ বুঝে আলোচনা করুন যখন তাঁর মন ভালো থাকবে বা আপনারা অন্তরঙ্গ অবস্থায় থাকবেন, তখন তাঁর সঙ্গে আলোচনা করুন। জানতে চান তাঁর এমন আচরণের কারণ, আপনি যে কষ্ট পান সেটাও জানান। পাশাপাশি এও জানিয়ে দিন যে আপনি সর্বদা তাঁর পাশে আছে এবং যেকোনো সাহায্য করতে আপনি রাজি। ৪. তাঁকে খুশি করার চেষ্টা করুন একটা মানুষ অকারণে খিটখিটে স্বভাবের হয়ে যায় না, বরং প্রচণ্ড মানসিক অশান্তি থেকে এটা হয়। কারণটা যদি জানতে নাও পারেন, চেষ্টা করুন প্রিয় মানুষটিকে খুশি করার, সারপ্রাইজ দেওয়ার। তিনি আপনার হবু বর বা বউ, আপনি নিশ্চয়ই জানেন তাঁকে কীভাবে খুশি করতে হয়? ৫. সম্ভব হলে তাঁর চাপ কমান যে কারণে মানুষটি এমন খিটখিটে স্বভাবের হয়ে উঠেছেন, সম্ভব হলে তাঁর সেই চাপটি কমানোর ব্যবস্থা করুন। পারিবারিক হোক বা আর্থিক, অফিসের কাজ হোক বা বাড়ির কিংবা কোনো মানসিক কষ্ট- পাশে একজন মানুষ পেলে সকলেরই ভালো লাগে। ৬. তাঁর প্রশংসা করুন, ভালোবাসা দেখান প্রশংসা ও ভালোবাসা এমন দুটি জিনিস, যা যেকোনো মানুষের মন নরম করতে বাধ্য। সঙ্গী খিটখিটে স্বভাবের হয়ে গেলে আপনি বাড়তি ভালোবাসা দিয়ে অভাবটা পূরণ করে দিন। ৭. আপনি পাল্টা খিটমিট করবেন না মোটেও বয়ফ্রেন্ড খিটমিট করছেন বলে আপনি যেন পাল্টা কথা শোনাতে যাবেন না। এই কথাটি অবশ্যই মনে রাখুন। এতে সম্পর্ক চরম খারাপ হয়ে যায়।
টি উত্তর

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

1 উত্তর
14 জুলাই 2015 "সাধারণ" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Md Manik Mia (1,686 পয়েন্ট)

294,509 টি প্রশ্ন

381,186 টি উত্তর

115,241 টি মন্তব্য

161,794 জন নিবন্ধিত সদস্য

বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
...