বিস্ময় অ্যানসারস এ আপনাকে সুস্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং বিস্ময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...
876 জন দেখেছেন
"রান্না" বিভাগে করেছেন (-8 পয়েন্ট)
করেছেন (4,079 পয়েন্ট)
বিঃদ্রঃ দইয়ের বীজ তৈরির দ্বিতীয় পদ্ধতিটি পরীক্ষিত নয়।

1 উত্তর

0 টি পছন্দ
করেছেন (4,079 পয়েন্ট)

ঢালাও ভাবে কোনো উত্তরদাতার উপর দোষ চাপাবেন না। দই তৈরির ক্ষেত্রে আপনার ও কোনো fault থাকাটা অস্বাভাবিক নয়।আর যদি মনে করেন যে উত্তরদদাতা ভুল উত্তর দিয়েছে তবে প্রশাসনের নিকট অভিযোগ করুন।

মিষ্টি দই

প্রয়োজনীয় উপকরণঃ দুধ ১ লিটার, পানি ১ কাপ, চিনি ২০০ গ্রাম, ১ টি মাটির পাত্র ও ২ টেবিল চামচ দইয়ের বীজ।

দইয়ের বীজ তৈরির পদ্ধতিঃ দইয়ের বীজ আপনি দুভাবে তৈরী করতে পারবেন –
১) আগের দই থেকে ২ টেবিল চামচ সরিয়ে রাখুন।
২) ১ কাপ দুধে ১ কাপ পরিমাণে গুঁড়ো দুধ দিয়ে ভালো করে জ্বাল দিয়ে ক্ষীর তৈরি করে নিন। এটিই দইয়ের বীজ হিসেবে কাজ করবে।

দই বানানোর পদ্ধতিঃ প্রথমে একটি পাত্র দুধ নিয়ে এতে ১ কাপ পানি মিশিয়ে মাঝারি আঁচে জ্বাল দিতে থাকুন। দুধ জ্বাল দিয়ে অর্ধেক পরিমাণে হয়ে এলে এতে চিনি দিয়ে ভালো করে নেড়ে দিন।

দুধ আরও ঘন হয়ে এলে চুলা থেকে নামিয়ে কিছুক্ষণ ঠাণ্ডা হতে দিন। এবার হাতের আঙুল ডুবিয়ে দেখুন গরম সহ্য করা যায় কিনা। এই ধরণের গরম থাকতে দুধে দইয়ের বীজ দিয়ে ভালো করে নেড়ে মিশিয়ে নিন।

এরপর মাটির পাত্রে ঢেলে ভারী মোটা কাপড় বা চটের কিছু দিয়ে ঢেকে অন্ধকার ও ঠাণ্ডা জায়গায় ৬-৭ ঘণ্টা রেখে দিন। ১৪-১৫ ঘণ্টার মধ্যে দই জমে যাবে। আর যদি ঠাণ্ডা দই খেতে চান তবে জমে যাওয়ার পর ফ্রিজে রেখে ঠাণ্ডা করুন।


এ উত্তরটা আমি দিলাম। নিজের দোষে কোনো ভুল করে আমার দোষ দেবেন না।পদ্ধতিটি আমার নিজের বাসায় সফলভাবে পরিক্ষীত।

টি উত্তর

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

2 টি উত্তর
04 ডিসেম্বর 2015 "সাধারণ" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন দিয়া (384 পয়েন্ট)
3 টি উত্তর
25 এপ্রিল 2016 "রান্না" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন নীলাদ্রী কল্পচারিনী (59 পয়েন্ট)

300,582 টি প্রশ্ন

388,484 টি উত্তর

117,418 টি মন্তব্য

165,951 জন নিবন্ধিত সদস্য

বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
...