বিস্ময় অ্যানসারস এ আপনাকে সুস্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং বিস্ময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...
603 জন দেখেছেন
"রূপচর্চা" বিভাগে করেছেন (1 পয়েন্ট )

5 উত্তর

+1 টি পছন্দ
করেছেন (1,172 পয়েন্ট)
ব্রণের দাগ দূর করার প্রাকৃতিক প্রতিকার
১।লেবুঃ
(ক) লেবু একটি প্রাকৃতিক ব্লিচ। লেবুর রসের সাথে সামান্য পানি মিশিয়ে একটি তুলার বলের সাহায্যে তা মুখে ৩-৪ মিনিট ঘষুন।
(খ)যদি সেনসিটিভ স্কিন হয় তাহলে এর সাথে গোলাপ জল মিশিয়ে নিবেন। সম্ভব হলে ১ চামচ লেবুর রসের সাথে ২ চামচ ই ক্যাপসুল মিশিয়ে ত্বকে লাগাতে পারেন। ভিটামিন ই ক্যাপসুল ত্বকের জন্য খুবই উপকারী। এছাড়া একটানা ৭-১০ দিন নিচের ফেস প্যাক ব্যবহার করতে পারেন।
লেবুর ফেসপ্যাকঃ
১ টেবিল চামচ লেবুর রস, ১ টেবিল চামচ মধু, ১ টেবিল চামচ আমন্ড তেল, ২ টেবিল চামচ দুধ একসাথে মিশিয়ে মুখে লাগান। শুকিয়ে গেলে ধুয়ে ফেলুন। ব্রণ থাকা অবস্থায় দুধ ব্যবহার থেকে বিরত থাকুন।
২।মধুঃ
(ক) রাতে ঘুমানোর আগে মুখ ভালো করে ধুয়ে মধু লাগান। সারারাত তা রেখে সকালে ঘুম থেকে উঠে তা ধুয়ে ফেলুন।
(খ) মধুর সাথে দারুচিনি গুঁড়া মিশিয়ে শুধুমাত্র দাগের উপর লাগিয়ে ১ ঘণ্টা পর ধুয়ে ফেলুন। চাইলে সারারাতও রাখতে পারেন।
মধুর ফেসপ্যাকঃ
২-৩ টি এস্পিরিন ট্যাবলেট এর সাথে ২ চামচ মধু ও ২-৩ ফোঁটা পানি মিশিয়ে ফেসপ্যাক তৈরি করুন। এস্পিরিন এর স্যালিসাইলিক এসিড ব্রণের দাগ দূরের জন্য খুবই সহায়ক।
৩। অ্যালোভেরা জেলঃ
দিনে দুইবার অ্যালোভেরা জেল মুখে লাগান এবং ৩০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। এটি শুধুমাত্র ব্রণের দাগই দূর করবে না, বরং আপনার ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি পাবে এবং টানটান হবে।
৪। বেকিং সোডাঃ
২ টেবিল চামচ বেকিং সোডা ও সামান্য পানি একসাথে মিশিয়ে মুখে ২-৩ মিনিট ঘষুন এবং শুকানোর জন্য কয়েক মিনিট অপেক্ষা করুন। এরপর মুখ ধুয়ে এর উপর কোনও ময়েশ্চারাইজার ক্রিম বা অলিভ অয়েল লাগান।
৫।টমেটোঃ
একটি লাল টমেটোর কিছু অংশ নিয়ে তার রস নিন। এরপর তা শশার রসের সাথে মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণটি মুখে লাগান। ১০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে ৩ বার এই প্যাকটি লাগান। ব্রণের দাগ দূর তো হবেই সেই সাথে রোদে পোড়া দাগ দূর হয়ে ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি পাবে।
উপরের সবগুলো উপাদান ত্বকের দাগ দূরের জন্য বেশ উপকারী। আপনার ত্বকের ধরন অনুযায়ী যে উপাদান বেশি ভালো তা ব্যবহার করুন এবং আপনার মূল্যবান ত্বকের যত্ন নিন, বেশি করে পানি পান করুন, সুস্থ থাকুন।
0 টি পছন্দ
করেছেন (5,826 পয়েন্ট)
ব্রনের কালো দাগ দূর
করতে লেবুর রস গুরুত্বপূর্ন
ভূমিকা পালন করে । লেবু একটি
প্রাকৃতিক ব্লিচ।
লেবুর রসের সাথে সামান্য পানি
মিশিয়ে একটি তুলার বলের সাহায্যে তা মুখে
৩-৪ মিনিট ঘষুন। যদি সেনসিটিভ স্কিন হয় তাহলে
এর সাথে গোলাপ জল মিশিয়ে নিবেন।
সম্ভব হলে ১ চামচ লেবুর রসের সাথে ২
চামচ ই ক্যাপসুল মিশিয়ে ত্বকে লাগাতে
পারেন। ভিটামিন ই ক্যাপসুল
ত্বকের জন্য খুবই উপকারী।
সংগৃহীত : মোশারফ হোসেন

এ ছাড়া কালো দাগে আলু কিনবা শসার রস মেসেজ করে ২০, ২৫ মিনিট লাগিয়ে ধুয়ে পেলুন
আর এইভাবে কালোভাব দূর করতে পারবেন।
আর কালো দাগের জন্য বেটনোভেট এন ক্রীম টি মুখের জন্য ব্যবহার করতে পারেন।
0 টি পছন্দ
করেছেন (1,854 পয়েন্ট)
ব্রণ দাগ দূর করুন ঘরোয়া পদ্ধতিতেঃ
সমপরিমাণ লেবুর রস ও পানি মিশিয়ে ফ্রিজে আইস কিউব ট্রেতে রেখে বরফ তৈরি করে নিন।
ব্রণ বা ব্রণের দাগের ওপর কিউবটি টিস্যু
বা পাতলা কাপড়ে মুড়িয়ে হালকা করে ঘষুন।
তারপর ভেজা তুলা দিয়ে মুছে ফেলুন।
এতে ত্বকের দাগ অনেকটাই কমে আসবে।
0 টি পছন্দ
করেছেন (2,067 পয়েন্ট)
পেঁয়াজ :
পেঁয়াজের কথা শুনে
অবাক হচ্ছেন? এখনি
জেনে নিন, বয়স জনিত
কালো ছোপ বা ব্রনের দাগ দূর করতে
পেঁয়াজ দারুণ কার্যকরী।
একটা স্লাইস নিয়ে
আক্রান্ত স্থানে ঘষুন ৫
মিনিট। তারপর ধুয়ে
ফেলুন। ভালো ফল পেতে
রোজ ব্যবহার করুন।
লেবু :
লেবু ত্বকের কালো দাগ
ছোপ দূর করতে অত্যন্ত
কার্যকরী একটি উপাদান।
তুলোর সাথে লেবুর রস
নিন, তারপর কালো
দাগে ৫ মিনিট ঘষে
ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে
ফেলুন। এটি সপ্তাহে ৩/৪
বার ব্যবহারে উপকার
পাবেন। তবে মুখে বা
শরীরের কোথাও লেবু
লাগাবার পর সরাসরি
সূর্যের আলোতে যাবেন
না
পেঁপে :
পাকা পেঁপে কালো দাগ দূর
করার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ
আরেকটি উপাদান।পাকা এক
টুকরো পেঁপে নিয়ে আক্রান্ত
স্থানে ভালো করে ঘষুন।
আধা ঘণ্টা রাখুন, তারপর
পানি দিয়ে ধুয়ে নিন।
সপ্তাহে ৩/৪ বার করুন।
পেঁপেতে থাকা প্যাপিন
মরা কোষ দূর করে ত্বকের রঙ
উজ্জ্বল করে তোলে।
0 টি পছন্দ
করেছেন (7,327 পয়েন্ট)
ব্রণের দাগ দূর করার
ঘরোয়া উপায়:
কাঁচা হলুদ এবং চন্দনকাঠের গুঁড়ো
ব্রণের জন্য খুবই কার্যকর দুটো
উপাদান। সমপরিমাণ বাটা কাঁচা হলুদ
এবং চন্দন কাঠের গুঁড়ো একত্রে
নিয়ে এতে পরিমাণমতো পানি মিশিয়ে
পেস্ট তৈরি করতে হবে। মিশ্রণটি
ব্রণ আক্রান্ত জায়গায় লাগিয়ে
রেখে কিছুক্ষণ পর শুকিয়ে গেলে মুখ
ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে।
এই মিশ্রণটি শুধুমাত্র ব্রণ দূর করার
কাজ করে না বরং ব্রণের দাগ দূর
করতেও সাহায্য করে।
আপেল এবং মধুর মিশ্রণ হচ্ছে
ব্রণের দাগ দূর করার সবচেয়ে
জনপ্রিয় ঘরোয়া পদ্ধতি। প্রথমে
আপেলের পেস্ট তৈরি করে তাতে ৪-৬
ফোঁটা মধু মেশাতে হবে। মিশ্রণটি
মুখে লাগিয়ে কিছুক্ষণ অপেক্ষা করে
তারপর মুখ ঠাণ্ডা পানি দিয়ে মুখ
ধুয়ে ফেলতে হবে। এটি ত্বকের
টানটান ভাব বজায় রাখে এবং গায়ের
রঙ হালকা করে। সপ্তাহে ৫-৬ বার
এটি ব্যবহার করা যেতে পারে। আপনি
কয়েকদিনের মধ্যে পরিবর্তনটা
অনুভব করতে পারবেন।
মানিক রাজ জ্ঞানের জন্যই জ্ঞানকে ভালোবাসেন, জ্ঞানের প্রতি রয়েছে অতৃপ্ত তৃষ্ণা আর তাই দীর্ঘদিন যাবত ইন্টারনেটের এর সাহায্য অজানাকে জানার চেষ্টা করেন। নিজে জ্ঞান অর্জনের পাশাপাশি অন্যকে জানানো ও নিঃস্বার্থভাবে অপরকে সাহায্য করার জন্য বিস্ময় অ্যানসারসকে বেছে নিয়েছেন। বিস্ময় অ্যানসারস এর সাথে আছেন সমন্বয়ক হিসেবে।
টি উত্তর

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

294,303 টি প্রশ্ন

380,932 টি উত্তর

115,170 টি মন্তব্য

161,645 জন নিবন্ধিত সদস্য

বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
...