বিস্ময় অ্যানসারস এ আপনাকে সুস্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং বিস্ময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...
454 জন দেখেছেন
"স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা" বিভাগে করেছেন (-5 পয়েন্ট)
বন্ধ
করেছেন (21,437 পয়েন্ট)
আপনার বয়স কত জানান।

3 উত্তর

0 টি পছন্দ
করেছেন (5,826 পয়েন্ট)
 
সর্বোত্তম উত্তর
সাধারণত একজন মানুষ কত টুকু
লম্বা হবে তা নির্ধারণ করে
আমাদের শরীরে থাকা জিন।
অর্থাৎ জেনেটিক ফ্যাক্টর প্রধান ভূমিকা বা
শতকরা ৮০ থেকে ৯০ শতাংশ ভুমিকা পালন করে
থাকে। আমাদের গ্রোথ এর জন্য
পিটুইটারী নামক গ্রন্থি থেকে নিঃসৃত গ্রোথ
হরমোন প্রধান ভূমিকা পালন করে। এছাড়াও
কিছু ফ্যাক্টর আছে যা হাইট কে প্রভাবিত
করে। যেমন – পরিবেশগত, খাদ্যাভাস ইত্যাদি
প্রভাব।
সাধারণত মেয়েদের ক্ষেত্রে ১৮ আর
ছেলেদের ক্ষেত্রে ২০ বয়সের পর
লম্বা হওয়ার সম্ভাবনা কম থাকে। তবে বলা
হয়ে থাকে ২৫ বছরের পর আর লম্বা হয় না ।
কারো কারো মতে ২৫ এর পর গ্রোথ
আর হয়না। বন্ধ হয়ে যায়। সত্যি বলতে কি
লম্বা হওয়াটা যেহেতু বংশগত বা জেনেটিক
ফ্যাক্টর দ্বারা নিয়ন্ত্রিত এবং বয়স যদি ২৫ এর
বেশি হয়ে থাকে তবে বিশেষ কিছু করার
থাকে না। তবে যদি বয়স ২০ এর নিচে হয় ,
বিশেষ করে যারা শিশু বা বয়ঃসন্ধিকাল চলছে
যাদের, তাদের জন্য কিছু ডায়েট বা ব্যায়াম
করলে উপকার পাওয়া সম্ভব। তাই যাদের বংশে
খাটো হওয়ার প্রবণতা আছে তাদের
বাচ্চাদের ছোটবেলা থেকে যত্ন নেয়া
উচিত্

পুষ্টিকর খাবার, ব্যায়াম, আর নিয়মমাফিক চললে তা সম্ভব হয়।
না এর জন্য কোনো ঔষুধ নেই তবে আপনি হরলিকস খেতে পারেন শরীর এর গ্রোথ বাড়ানোর জন্য
ব্যায়াম এর উপর সম্পূর্ণ নির্ভর হোন সকালবিকেল সাইকেল চালান, ঝুলে ব্যায়াম করুন, পুইশপ দিন, পায়ে হাতের কোমরের ছোট্ট ছোট্ট ব্যয়াম করুন তাহলে শরীর এর হাইড বাড়বে।
মূলত প্রকৃত ভাবে ব্যয়াম এর উপরে খাদ্য অভাসের মদ্ধমে লম্বা হতে পারবেন।

সংগৃহীত : বিস্ময়
0 টি পছন্দ
করেছেন (186 পয়েন্ট)
আপনার বয়স  কত  তা  জানান নি .  এমনিতে  মানুষ  25 বছর বয়স পর্যন্ত লম্বা হয় .  এজন্য  পুষ্টিকর  খাবার খেতে  হবে .  তবে কোনও টেলি শপের ওষুধ খেয়ে মোটা হওয়ার  চেষ্টা না করাই  ভাল .
0 টি পছন্দ
করেছেন (2,477 পয়েন্ট)
লম্বা হওয়ার জন্য
আপনি কিছু ব্যায়াম
করতে পারেন।
ব্যায়ামের নিয়মগুলো আলোচনা
করা হলো-১। মেঝেতে উপুর হয়ে
শুয়ে পড়ুন। এবার হাতের তালুর উপর
ভর দিয়ে শরীরের উপরের অংশটি
আস্তে আস্তে তুলুন। মেরুদন্ড বাঁকা
করে মাথাটা
পেছনের দিকে যতটা পারা যায়
বাঁকান।
২। হাঁটু ভাঁজ করে, হাতের তালু ও
হাঁটুতে ভর দিয়ে বিড়ালের মত
হোন। মাথা উপরের দিকে
বাঁকিয়ে পিঠ নিচের দিকে
বাঁকিয়ে নিন। এরপর মাথা নিচু
করে মেরুদন্ড বা পিঠ উপরের
দিকে বাঁকা করুন। ৮ সেকেন্ড পর
এভাবে
কয়েক বার করুন।
৩। মেঝেতে বসুন। দু পা দুদিকে
ছড়িয়ে দিন। এরপর ডান হাঁটু তে
নাক লাগানোর চেষ্টা করুন, হাঁটু
ভাঁজ না করে যতটা পারা যায়। ৮
সেকেন্ড থাকুন এভাবে।
এরপর বা পায়ে একই ভাবে করুন।
৪। উপুর হয়ে শুয়ে পড়ুন। এরপর
হাতের তালু ও পায়ের পাতার
উপর ভর দিয়ে শরীরটি উপর দিকে
বাঁকিয়ে উঁচু করে তুলে ধরুন মাথা
নিচে রেখে। এভাবে
৮ সেকেন্ড থাকুন।
৫। মেঝেতে সোজা হয়ে শুয়ে
পড়ুন। হাটু ভাঁজ করে পায়ের
গোড়ালী নিতম্বের কাছে
নিয়ে আসুন। এরপর গোড়ালী হাত
দিয়ে ধরুন। এরপর কোমড় সহ নিতম্ব
উপরের দিকে উঠান। মাথা
নিচে থাকবে। এভাবে ১০
সেকেন্ড থাকুন।
সূত্র- ইন্টারনেট।
টি উত্তর

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

4 টি উত্তর
সকালে ঘুম থেকে উঠার পর আমার উভয় পায়ের গোড়ালিতে সামান্য ব্যাথা করে, তাছাড়া অন্য সময় ব্যাথা করে না তবে হাত দিয়ে পায়ের গোড়ালিতে টিপ দিলে ব্যাথা করে, আপনাদের মনে হয়ত প্রশ্ন জাগতে পারে যে টিপ দিলে যখন ব্যাথা করে তখন টিপ দাও কেন? আরে ভাই টিপ আমি কখনই দিই না । এখন আমার প্রশ্ন হল স্বাভাবিক ভাবে টিপ দিলে অন্য কারো ব্যাথা করছে না কিন্ত আমার গোড়ালি ব্যাথা করছে কেন? তাছাড়া সকালে ঘুম থেকে উঠার পর একটু একটু ব্যাথা করে। এটা কি কোন রোগ?( যদিও চলাফেরায় আমি তেমন কোন problem fell করি না ) তার পরও এটার কি তাড়াতাড়ি চিকিৎসা করা উচিত বা এখন চিকিৎসা না করলে এই রোগ টা বড় আকার ধারন করতে পারে? উল্লেখ্য, আমার বয়স ২৩ (পুরুষ) , লম্বা ৫ ফুট ৮ ইঞ্চি, ওজন মাত্র ৪৯ কেজি এবং ৬ থেকে ৭ বছর ধরে আমার এই সমস্যা এবং আমার পায়ের গোড়ালিতে আমি কোন দিন কোন আঘাতও পাই নি।?
06 ডিসেম্বর 2015 "স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন kuasha (-12 পয়েন্ট)

294,415 টি প্রশ্ন

381,064 টি উত্তর

115,205 টি মন্তব্য

161,734 জন নিবন্ধিত সদস্য

বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
...