বিস্ময় অ্যানসারস এ আপনাকে সুস্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং বিস্ময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...
650,194 জন দেখেছেন
"স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা" বিভাগে করেছেন (6,513 পয়েন্ট)

4 উত্তর

+7 টি পছন্দ
করেছেন (147 পয়েন্ট)
নির্বাচিত করেছেন
 
সর্বোত্তম উত্তর
বিয়ের পর মেয়েরা মোটা হয়ে যায় তার কারন হল মেয়েদের শরীরে তখন চর্বি জমতে শুরু করে, এর জন্য ২ টি হরমোন দায়ী, শারীরিক সম্পর্কের কারনে মেয়েলী হরমোন ২ টি বাড়ে, এই হরমোন খাদ্য থেকে চর্বি শোষণ হওয়ার পর দেহে জমাতে থাকে যে জন্য একজন বিবাহিত মেয়ে সহজেই মোটা হয়ে জায়, নিয়মিত বেয়াম করলে চর্বি না জমে তা ক্ষয় হয়।তাই মেয়েদের উচিত বিয়ের পর ও নিজের প্রতি যত্ন নেয়া।
image
 
করেছেন (484 পয়েন্ট)
আপনার উত্তরটাই সেরা
করেছেন (169 পয়েন্ট)
অনেক মেয়ের ধারণা সংসারে এত কাজ করার পর আলাদা করে ব্যায়ামের দরকার নেই। কিন্তু এই ভুল ধারণার কারণে মোটা হয়ে যায় তারা। বাসার কাজে খুব বেশিদৌড়াদৌড়ি হয় না, আলাদা করে ব্যায়াম না করলে ফিগার সুন্দর রাখা কঠিন।
+1 টি পছন্দ
করেছেন (6,513 পয়েন্ট)
বেশির ভাগ মেয়ে ২৫ বছরের দিকে মোটা হয়ে যায় । কারন এর আগে পড়াশুনার জন্য অনেক শারীরিক পরিশ্রম করতে হয় । কিন্তু বিয়ের পর বাসায় থাকা আর খাওয়া প্লাস টিভি দেখা ছাড়া আর কোন কাজ করেন না । কিন্তু যারা চাকরিজীবী তাদের ক্ষেত্রে মোটা হবার হার অনেক কম ।
+1 টি পছন্দ
করেছেন (303 পয়েন্ট)
এটা অনেকেই কুসংস্কার বলে উড়িয়ে দেবেন। কেউ বলবেন, এটা সবার ক্ষেত্রে খাটে না। কেউ সরাসরি অস্বীকার করে বলবেন, বিয়ের পর তারা আরও শুকনো হয়ে গেছেন! তবে এখন এই কথা মেনে নিতেই হবে যে, বিয়ের পর মানুষ মোটা হয়ে যায়, বিশেষ করে মেয়েরা। আর এ ব্যাপারটা মোটেও অনুমানভিত্তিক নয় বরং গবেষণা করে পাওয়া তথ্য! অস্ট্রেলিয়ার স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞেরা ৩৫০ জন কনের ওপর গবেষণা করে বের করেন এই তথ্য। দেখা যায়, বিয়ের পর প্রথম ছয় মাসে কনেরা প্রায় পাঁচ পাউন্ডের মতো ওজন বাড়িয়ে ফেলেন। পর্যবেক্ষণ করে দেখা যায়, যারা বিয়ের সময়ে সুন্দর দেখাতে নিজের ওজন অনেক দ্রুত কমিয়ে ফেলেন, বিয়ের পর তাদের ওজন দ্রুত বেড়ে যায়।

এটা প্রায়শই দেখা যায় যে, মেয়েরা চায় বিয়ের সময়ে তাদের দেখতে ছিপছিপে এবং কমবয়সী লাগুক। এ কারণে তারা বিয়ের কয়েক মাস আগে থেকেই কঠোর ডায়েটে চলে যান। এমনকি দেখা যায়, পরিবারের মানুষ এমনকি তাদের বাগদত্ত পুরুষেরাই তাদেরকে বলেন ওজন কমাতে। তারা বেশিরভাগই মোটামুটি ২০ পাউন্ড (৯ কেজির) মতো ওজন কমানোর পরিকল্পনা করে ডায়েট শুরু করেন। অনেকের ওজন এই ডায়েটের ফলে কমে গেলেও বেশিরভাগেরই ওজনে তেমন কোনো হেরফের হয় না। বিয়ের আগে এভাবে খাওয়া দাওয়া কমিয়ে দেবার ফলে বিয়ের পর যখন তারা আবার অনিয়ন্ত্রিত খাদ্যভ্যাসে চলে যান, তখন প্রথম ছয় মাসের মাঝেই তাদের ওজন বেড়ে যায় দ্রুত।

দেখা যায়, বিয়ের ছয় মাস পর তাদের ওজন বেড়েছে গড়ে ৪.৭ পাউন্ড (২.১ কেজি)। যারা বিয়ের আগে ওজন কমিয়েছিলেন, তাদের ওজন বাড়ার পরিমাণ আরও বেশি, প্রায় ৭.১ পাউন্ড (৩.২ কেজি)। দেখা যাচ্ছে যে, বিয়ের আগে যারা অন্যদের থেকে ওজন কমানোর জন্য চাপের মুখে ছিলেন, তারাই বিয়ের পরে এভাবে মুটিয়ে যাচ্ছেন। বাগদত্ত বা আত্মীয়েরা যদি কনেকে বলেন তার ওজন কমানো দরকার, তবে তারা বিয়ের আগে ওজন কমালেও বিয়ের পরে প্রায় ৪.৫ কেজি পর্যন্ত ওজন বেড়ে যায় তাদের। আর বিয়ের আগে এমন ওজন কমানোর চাপ যেসব কনের থাকে না, বিয়ের পর তাদের ওজন বাড়ার পরিমাণ প্রায় তিনগুণ কম হয়। বিয়ের আগে ওজন কমানোর একটা তাগিদ থাকলেও বিয়ের পরে মেয়েরা মনে করে, সামনে তো আর কোনো বড় উপলক্ষ নেই আর তাই ওজন নিয়ন্ত্রণের দিকে তাদের তেমন লক্ষ্য থাকে না। তারা খাওয়াদাওয়া এবং ব্যায়ামের ব্যাপারে নিয়মকানুন অনুসরণ বন্ধ করে দেন, যার ফলে ওজন বেড়ে যেতে থাকে। অনেকে আবার মনে করেন, বিয়ের পরে তাদের আকর্ষণীয় ফিগার বজায় রাখার দরকার নেই, এ কারনেও তাদের ওজন এভাবে বাড়তে দেখা যায়।
করেছেন (22 পয়েন্ট)
বিয়ের পরে মেয়েদের অনেক চিন্তা দুর হই। আর তাছাড়া খাওয়া দাওয়া ঠিক মত করেতো এই জন্ন্য।
0 টি পছন্দ
করেছেন (27 পয়েন্ট)
জন্মবিরতি করণ  পিল গ্রহণের একটা সাইড ইফেক্ট মোটা হয়ে যাওয়া।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

1 উত্তর
22 মে 2015 "যৌন" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Rashedul islam (44 পয়েন্ট)

331,099 টি প্রশ্ন

421,854 টি উত্তর

131,005 টি মন্তব্য

180,972 জন নিবন্ধিত সদস্য

বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
...