বিস্ময় অ্যানসারস এ আপনাকে সুস্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং বিস্ময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...
709 জন দেখেছেন
"প্রেম-ভালোবাসা" বিভাগে করেছেন (16 পয়েন্ট)
আমি বন্ধুত্ব খুব পছন্দ করি। একটা জিনিস আমার সাথে অনিবার্য ভাবে হয়ে থাকে তা হলো বন্ধুদের থেকে পরবর্তীতে অবহেলা।
আপনাদের সুবিধার জন্য আমার কিছু তথ্য দেওয়া  প্রয়োজন। আমার পরিবার সচ্ছল। ৪ সদ্যসের পরিবারে আমি বড় ছেলে। ফ্যামিলি তে আমাকে খুব আদর করে। সাধ্য মতো চেস্টা করে আমার সব আশা পূরণ করতে। কোনো  কারনে আমার বাবা মা আমাকে চোখের আড়াল হতে দেয়না। আমি অনার্স প্রথম বর্ষের ছাত্র হওয়ার পড়েও। যেমন দরুন, কোনো খানে বেড়াতে যাওয়া, একা কোনোখানে থাকা, মার্কেট যাওয়া। কাছে  কোথাও গেলেও মোবাইলে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রাখে। বলতে গেলে আমি আবদ্ধ। সব আছে কিন্তু স্বাধীনতা নেই। এতো কিছুর পড়েও তাদের আমার প্রতি মমতা দেখে কিছু বলতে পারি না।
এই বিষয় গুলি প্রায় সবাই জানে। আমার সাথে যাদের বন্ধুত্ব হয় তারা সবাই আমাকে বিশ্বাস করে। এমন কি গোপন কথা  পর্যন্ত শেয়ার করে। যা  আমার কাছেই গোপন থাকে।  আমার পারিবারিক কারনে বন্ধুদের আউট ডোর কর্মকান্ড গুলিতে উপস্থিত হতে পারি না। যার ফলে দেখা যায় আমার কাছের ফ্রেন্ডরা কোনো দাওয়াত পেলেও আমি পায় না। যা আমাকে খুব কষ্ঠ দেয়। এক সময় কাছের বন্ধরাই আমাকে আর গুরুত্ব দেয় না। আমি খুব বড় করে ফেললাম লেখা। যার জন্য দু:খিত। কিন্ত আমি কি করতে পারি  এখন?

5 উত্তর

+1 টি পছন্দ
করেছেন (-18 পয়েন্ট)
আপনি কিছুটা ভূল করছেন, তাই বন্ধুরা আপনাকে পাত্তা দিচ্ছে না, আপনি বন্ধুদের যেকোন পার্টিতে সবসময় না থাকলেও নিয়ম করে থাকতে পারতেন। আর বন্ধুদের সব তো সমান হয় না, ভালো বন্ধু নির্বচন করা উচিত, যারা আপনার সুখ দুঃখের সময় পাশে থাকে। মা বাবার কথা ও মানতে হবে এটা ঠিক।
0 টি পছন্দ
করেছেন (5,844 পয়েন্ট)
খাওয়া দাওয়া, দাওয়াত পাওয়া না পাওয়া এগুলোর সাথে বন্ধুত্বের সম্পর্কের সাথে তুলনা করলে বন্ধুত্বের সম্পর্ককে ছোট করে দেখা হয় না কি? আসলে এটা এমন একটা সম্পর্ক যা তুলনার অযোগ্য এগুলোর সাথে এর কোনো সম্পর্ক নেই।মন খারাপ করে লাই নেই।দাওয়াত পাওয়া না পাওয়া এটা বড় ব্যাপার না। বন্ধুত্বের এই সম্পর্কটাই বড়।
0 টি পছন্দ
করেছেন (1,794 পয়েন্ট)
জীবন হচ্ছে একটি সংগ্রামী পথ।এখানে কত কিছু যে পর্যায়ক্রমে আপনার কাছে আসবে তার জন্য আপনাকে প্রস্তুত থাকতে হবে।জীবনে চলার পথে আপনাকে সঠিক বন্ধু নির্বাচন করতে হবে।নাহলে আপনি পদে পদে বাধাগ্রস্ত হবেন।যেসব বন্ধু আপনাকে অবহেলা করতেছে তাদের থেকে দূরে থাকুন এটা আপনার জীবনের জন্য ভালো হবে।আপনি ভালো বন্ধু খুঁজুন।যে আপনার বিপদে আপদে আপনাকে বিভিন্নভাবে সাহায্য করবে।জীবনে চলার পথে আপনার কত বন্ধু হবে।তাই যেসব বন্ধু আপনাকে অবহেলা করবে তাদের থেকে চিরকালের জন্য দূরে থাকুন।এটাই আপনার জন্য খুব ভালো হবে।
0 টি পছন্দ
করেছেন (2,079 পয়েন্ট)
দেখুন, মানুষ জীবনে বন্ধুই শেষ কথা নয়। পিতা-মাতা যারা আপনাকে অনেক কষ্ট করে মানুষ করেছে তারাও আপনার কম বন্ধু কিসে? তারা সর্বক্ষণ আপনার ভালর চিন্তা করে। তাদেরকে প্রাধান্য দিতে গিয়ে আপনার বন্ধুত্বে যদি কিঞ্চিত ভাটা পরে পরুক না! আর বন্ধুদের সাথে সামান্য পার্টি বা অন্যকোন প্রোগ্রামে অংশগ্রহন না করতে পারাতেই যদি তারা পাত্তা না দেয়, অবমূল্যায়ন করে তাহলে তো সহজেই বুঝা যায় তারা আপনার কেমন বন্ধু!!
0 টি পছন্দ
করেছেন (20 পয়েন্ট)
কথাগুলো এখানে না বলে তোমার বাবা মা কে সুন্দর ভাবে, ঠান্ডা মাথায় বুঝিয়ে বল, দেখবে সব সমাধান হয়েগেল। ভয় কাজ করলে তা আস্তে আস্তে কমিয়ে ফেলার চেষ্ঠা করবেন, দেখবেন সব ঠিক।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

1 উত্তর
31 অগাস্ট 2015 "প্রেম-ভালোবাসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Shadhin Joy (16 পয়েন্ট)

321,054 টি প্রশ্ন

411,178 টি উত্তর

127,272 টি মন্তব্য

177,008 জন নিবন্ধিত সদস্য

বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
...