1,523 জন দেখেছেন
"যৌন" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন (346 পয়েন্ট)

1 উত্তর

0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
উত্তর প্রদান করেছেন (346 পয়েন্ট)

"সর্বোত্তম শাররীক যৌনমিলনের সময়-ব্যপ্তি ৭ (সাত) থেকে ১৩ (তের) মিনিট" - সম্প্রতি ইন্টারন্যাশনাল জার্নাল অব সেক্সুয়াল মেডিসিনে প্রকাশিত এক গবেষণার ফলাফলে এ তথ্য পাওয়া গেছে। ডঃ ইরিক কোট্রি, বিহ্‌রেন্ড কলেজ ইন ইরিক, পেনসিলভিনিয়া তার গবেষনায় প্রমান করেছেন  - ৩ (তিন) মিনেটের ভালবাসাপুর্ন শাররীক মিলন "পর্যাপ্ত"

 

গবেষনায় যৌন অভিজ্ঞদের কাছে তাদের "পেনিট্রেটিভ সেক্স অর্থাৎ লিঙ্গ যৌনাঙ্গে স্থাপন করে অন্তরঙ্গ মিলন" এর সময় ব্যপ্তির বিশ্বাস সম্পর্কে প্রশ্ন করা হয়। এজন্য আমেরিকান এবং কানাডিয়ান যুগলকে র‌্যান্ডম সিলেকশানের মাধ্যমে প্রশ্ন করা হয়। তাদের সবার উত্তর-ই ছিল - সাত থেকে তের মিনিটের শাররীক মিলন "কাম্য/বাঞ্চনীয়"

 

গবেষনার প্ররিসমাপ্তিতে বলা হয় ৩ (তিন) থেকে ৭ (সাত) মিনেটের যৌনমিলন মোটের উপর "পর্যাপ্ত" কিন্তু তিন মিনেটের কম সময় "খুব কম সময়" এবং তের মিনিটের বেশি সময় মিলন "খুব লম্বা সময়"

 

এই গবেষনা মুলত নারীপুরুষের স্বাস্থ্যকর শাররীক মিলনে সময়কাল নিয়ে "অবাস্তব কল্পনা" দূর করার উদ্দেশ্যে পরিচালিত হয়। 

যৌন বিষয়ে নারীর অবাস্তব কল্পনাগুলো হচ্ছে - পুরুষের লিঙ্গ হবে মোটা এবং লম্বা, উত্তেজিত অবস্থায় রডের মত দৃঢ়, এবং সারারাত ধরে মিলনে সামর্থ্যবান। - নিউজ.কম.এইউ ডঃ ইরিক কোট্রি এর উদ্বৃতি দিয়ে এ তথ্য প্রকাশ করেছে।

অন্যদিকে পুরুষের ভাবনায় - নারী হবে বিছানায় যৌনকর্মঠ, নিটোল এবং সুন্দর শরীরের অধিকারী, সকল অবস্থায় সহযোগী।

অংশগ্রহনকারী যুগলকে তাদের উত্তর প্রদানের পর যৌনমিলনের আদর্শ/মানদন্ড সম্পর্কে নির্দেশনা দেয়া হয়। তাদেরকে শাররীক মিলনে তৃপ্তির সুচক হিসেবে অলীক কল্পনা থেকে বেরিয়ে এসে বাস্তববাদী হবার পরামর্শ দেয়া হয়।

 

অন্য একটি গবেষনায় পাওয়া তথ্য মতে - যৌনবিষয়ে সঠিক শিক্ষা, অঞ্চল, চামড়ার রঙ এবং শাররীক আকারের পার্থক্যের উপর ভিত্তি করে যৌনমিলনে সময়-ব্যপ্তির তারতম্য দেখা যায়। বাংলাদেশ, ভারত, মায়ানমার সহ (বাদামী চামড়ার - মধ্যম আকারের মানুষ) এতদ অঞ্চলের দম্পতীদের মিলনকালের (পেনিট্রেটিভ সেক্স) গড় সময় ৪ (চার) মিনিট কে "পর্যাপ্ত" বলা হয়েছে। এর সাথে উল্লেখ্য - এ অঞ্চলের নারীরা অজ্ঞতা এবং সঙ্গী খারাপ মনে করবে এই ধারনা থেকে মিলনকালে সক্রিয় না থাকার কারনে পশ্চিমা বিশ্বের তুলনায় অনেক কম হারে পুর্ন-কাম-তৃপ্তি অর্জন করে থাকেন। ইন্টানেটে "সেক্স ক্যালকুলেটার" চার্চ করে তাতে আপনার বয়স, বৈবাহিক অবস্থা, গায়ের রঙ, মিলনকালে সময়-ব্যপ্তি ইত্যাদি তথ্য দিয়ে আপনার অবস্থা (মিলনের ক্ষমতা) নির্নয় করতে পারেন।

 

পরিশেষঃ

আমাদের দেশের নারী এবং পুরুষ বিশেষ করে যুবক-যুবতীরা বর্তমান সময়ে প্রযুক্তির উৎকর্ষে খুব সহজে নীল ছবি (পর্নো ফিল্ম) দেখতে পারছেন। আর তা দেখে নিজের মত করে যৌন বিষয়ে প্রচুর ভুল ধারনা হৃদয়ে ধারন করে থাকেন। অনেকে তা মনে মনে রাখেন। তবে আমাদের কাছে অনেক ফ্যান ম্যাসেজ করে প্রায়শঃ বলেন "ফিল্মে দেখি পুরুষের লিঙ্গ অনেক লম্বা এবং তারা অনেক সময় ধরে মিলন করেন" আমি সেই তুলনায় অনেক হীন। 

 

টিপসঃ

পুরুষঃ মিলনকালে মাত্র শতকরা ১৭ ভাগ নারী পুর্ন তৃপ্তি (উন্নত বিশ্বে একযুগ আগে তা ছিল ২৫%, যা বর্তমানে ৪৫% এ এসে দাড়িয়েঁছে) প্রাপ্ত হন। তাই মিলন-পুর্ব-সিঙার (ফোর-প্লে) এর জন্য বেশি সময় ব্যয় করুন।

 

নারীঃ এলোমেলো চিন্তা বাদ দিয়ে বাস্তবতা মানুন। নারীদের বলছি - আপনার একটি কথা আপনার পুরুষ সঙ্গীকে "বাঘ" বানিয়ে দিতে পারে। তার শরীরে জোয়ার জাগাতে পারে। তার সুনাম করুন - তাকে মনোবল দিন; নিজেই বিছানায় (এবং পারিবারিক জীবনে) লাভবান হবেন। তাকে হারাতে চেষ্টা করবেন তো নিজেই শুন্যতায় ভুগবেন।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

1 উত্তর
14 জানুয়ারি 2014 "যৌন" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Samuel Dillon (346 পয়েন্ট)

223,317 টি প্রশ্ন

284,835 টি উত্তর

76,865 টি মন্তব্য

110,751 জন নিবন্ধিত সদস্য



বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
* বিস্ময়ে প্রকাশিত সকল প্রশ্ন বা উত্তরের দায়ভার একান্তই ব্যবহারকারীর নিজের, এক্ষেত্রে কোন প্রশ্নোত্তর কোনভাবেই বিস্ময় এর মতামত নয়।
...