5,886 জন দেখেছেন
"যৌন" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন (346 পয়েন্ট)

1 উত্তর

0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
উত্তর প্রদান করেছেন (346 পয়েন্ট)
আজ আমরা কিছু বিষয় আলোচনা করবো যা একজন পুরুষ তার নারী সঙ্গীর কাছে আশা করে। সবার সব কিছু ভাল লাগবে এমন নয়, আপনার স্বামীর মন বুঝতে চেষ্টা করুন। তার ভাল লাগা খারাপ লাগা বিষয় সম্পর্কে আপনিই সবছে ভাল বলতে পারবেন। নিম্মক্ত পদ্ধতিগুলো প্রতিদিনই চেষ্টা করবেন তা নয়। একেক সময় একেকটির ব্যবহার করে দেখুন। বৈবাহিক জীবনে একগুয়েমি দূর করা গেলে ভালবাসার ঘনত্ব বাড়বে। [এখানে আলোচ্য বিষয়গুলো মুলত পুরুষদের মাঝে পরিচালিত একটি জরিপের অংশ বিশেষ।]

 

 

    সিঙার কালে তার কানের নিচের অংশ জিহ্বাদিয়ে লেহন করুন। তার কানের ললী চুষতে পারেন। এটি পুরুষের মাঝে অন্যরকম শিহরন জাগায়
    চকলেট খেয়ে জিহ্বা দিয়ে আপনার ঠোটকে ভিজিয়ে নিন এবং তার কানের কাছে ফিসফিসিয়ে বলুন "কমলার স্বাদ নিতে চাও? আমার ঠোট আজ তোমার মিষ্টি কমলা"
    টেবিলের উপর উপুড় হয়ে শুয়ে পা নিচের দিকে ঝুলিয়ে ডগি ষ্টাইল ট্রাই করতে পারেন। স্থানের ভিন্নতা মিলনে একগুয়েমী থেকে রক্ষা করবে।
    ঘরে স্বামী-স্ত্রী একা আছেন? ইচ্ছে করে পাতলা কাপড় পরে নিন এবং রান্নাঘরে হাড়ি-পাতিল ধোঁয়ার সময় নিজের বুকে কিছুটা পানি ছিটিয়ে দিন যেন স্তনের বোঁটা কাপড়ের উপর দিয়ে দৃশ্যমান হয়। এ অবস্থায় আপনার স্বামীর কাছে যান (হাতে কিছু কালি-ঝুলি মাখানো থাকতে পারে) এবং তাকে বলুন আপনার গলার নিচে চুলকাচ্ছে - একটু চুলকিয়ে দিতে। আপনার উদ্দেশ্য সফল হবে নিশ্চিত :)
    একটি দিন আপনার নিজের আনন্দের কথা না ভেবে শুধু তাকে খুশি করার জন্য আপনি কর্মঠ হন। অর্থাৎ আপনার যাবতীয় চেষা দিয়ে তার যৌন ইচ্ছা মিটানোর চেষ্টা করুন।
    মুখে কিচ্ছু বলার দরকার নেই। যৌনচিন্তার কারনে আপনার যৌনাঙ্গ ভিজে আছে। আপনার স্বামীর হাতটি টেনে আপনার যোনী স্পর্শ করিয়ে দিন। পুরুষের মস্তিষ্ক প্রি-প্রোগ্রামড :ডি। আপনার ইচ্ছা মুহুর্তের মধ্যে সে ধরে ফেলবে।

 

 

সিঙার - মিলন পুর্ব প্রস্তুতিঃ-

 

যদি ঘরে সিল্কের হাতমোঝা থাকে অথবা আপনার সিল্কের স্কার্প হাতে পেচিয়েঁ  নিন এবং আপনার সঙ্গীর শরীর এবং গোপনাঙ্গে আলতো হাত বোলান...

    নারীর মত পুরুষের স্তন বোঁটাও অনুভুতি প্রবন। যখন আপনার হাত দিয়ে আপনার স্বামীর লিঙ্গ নাড়াচাড়া করছেন - সেই সময় দাঁত দিয়ে তার স্তনবোঁটা হালকা কামড়ে/চুষে দিন।
    স্বামীর জিহ্বা আপনার মুখের ভিতর নিয়ে দাঁত দিয়ে হালকা করে কামড়ে ধরুন। এবার আপনার জিহ্বা দিয়ে তার জিহ্বা লেহন করুন।
    যখন আপনার স্বামী তার একটি আঙুল আপনার যোনীতে প্রবেশ করাচ্ছে, একই সাথে আপনিও আপনার একটি আঙুল প্রবেশ করাতে পারেন এবং তার আঙুলের তালে তালে আপনার আঙুল সঞ্চালন করতে পারেন।
    পুর্ন যৌনতৃপ্তি কালে আপনার স্বামীর নাম তার কানে কানে গোঙ্গানীর মত করে উচ্চারন করতে থাকুন।

 

 

মিলনকালীন কিছু বিশেষ বিষয়ঃ-

 

সিঙার শেষে দুই হাত এবং দুই পা পাশা-পাশি রেখে শুয়ে যান। পুরুষ আপনাকে তার উপযোগী আসনে তৈরি করে নিতে পছন্দ করে।

    মিশনারী আসনে মিলনকালে পুরুষ যখন ধাক্কা দেবে - আপনিও নিচের দিক থেকে ধাক্কা দিন। এর ফলে আপানার স্বামীর মনোবল বাড়বে, সে ধরে নেবে আপনি মিলন উপভোগ করছেন।
    মিলনকালে মাঝে মাঝে আপনার হাটুকে বুকের(স্তনের) সাথে যথাসম্ভব জোরে চাপ দিয়ে ধরুন। আপনার স্বামী তার লিঙ্গ সঞ্চালনে সাচ্ছন্দ পাবে এবং একই সাথে আপনার স্তনযুগলে তার মোহ জাগবে।
    আপনার স্বামীর চরমানন্দ অবস্থার লক্ষন দেখলে আপনার পা দুটি যথাসম্ভব মেলে/ছড়িয়ে দিন। এতে করে সে গভীরে লিঙ্গ স্থাপন করতে পারেবে এবং তার আনন্দের মাত্রা অনেক বেশি হবে।
    মিলনের মাঝামাঝি সময় আপনার পিসি পেশী (কিছুদিন আগে আমরা পিসি পেশী সম্পর্কে আলোচনা করেছি - যদি আগে তা না পড়েন, পেইজ নোট সেকশান থেকে পড়ে নিতে পারেন।)
    মিশনারী আসনে থাকাকালীন আপনার স্বামীর দুই কাধেঁ দুই হাত রেখে সে যখন সামনের দিকে ধাক্কা দিচ্ছে তখন সজোরে পিছনের দিকে ঠেলে দিতে চেষ্টা করুন। তার মনে হবে সে নিজের ভাললাগার জন্য কঠোর পরিশ্রম করছে - যা তাকে আরো কর্মঠ করেছে।
    মিলনের শেষ দিকে চরম মুহুর্তে (পুর্ন-তৃপ্তির সময়) আপনার স্বামীর চোখের দিকে কৃতজ্ঞ চোখে তাকান। সে আপনার সাথে আনন্দের লেনদেন করেছে তার প্রতিদান স্বরুপ মিলন শেষে তার কপালে ছোট্ট একটি চুমা খান।
    যখন স্বামীর চরমনান্দ হচ্ছে - আপনার দুই পায়ের টাকনু গিরা তার নিতম্বের উপর চাপ রাখুন।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

1 উত্তর
21 জানুয়ারি 2015 "যৌন" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন courtlySalman (10 পয়েন্ট)

235,206 টি প্রশ্ন

303,184 টি উত্তর

85,538 টি মন্তব্য

118,793 জন নিবন্ধিত সদস্য



বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
* বিস্ময়ে প্রকাশিত সকল প্রশ্ন বা উত্তরের দায়ভার একান্তই ব্যবহারকারীর নিজের, এক্ষেত্রে কোন প্রশ্নোত্তর কোনভাবেই বিস্ময় এর মতামত নয়।
...