110 জন দেখেছেন
"প্রেম-ভালোবাসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন (2,489 পয়েন্ট)

1 উত্তর

0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
উত্তর প্রদান করেছেন (2,489 পয়েন্ট)

আপনি কি এমন পরিস্থিতিতে পড়েছেন বা লক্ষণ বুঝতেছেন, যে মেয়ে হিসেবে অন্য এক মেয়ে এসে আপনার প্রেমিককে ভুলিয়ে নিয়ে যাচ্ছে? তা আপনার মনের মানুষের সহকর্মি, সহপাঠি, প্রতিবেশি,অপরিচিত কিংবা আপনারই বান্ধবী। এজন্য কি আপনার ভালোবাসার মানুষটিকে সন্দেহ করছেন? ভাবছেন কীভাবে সে মেয়েকে আপনার প্রেমিক থেকে দূরে রাখা যায়?অধিকাংশ মানুষই বিশ্বাস করেন, কারো ইচ্ছার বিরুদ্ধে তাকে কখনোই চুরি করা সম্ভব নয়। বিশেষ করে আপনারা যদি একে অন্যকে ভালোবাসেন আর ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা থাকে, তাহলে নিজের সম্পর্ককে সঠিকভাবে পাহারা দিয়ে রাখলে সব ঝামেলা এড়ানো সম্ভব বলেই জানিয়েছে টাইমস অফ ইন্ডিয়া। এ লেখায় দেয়া কয়েকটি পরামর্শ এক্ষেত্রে কাজে আসবে।

নিজের পরিচয় গোপন রাখবেন নাঃ

যখন আপনার প্রেমিকের সঙ্গে তার কোনো সহপাঠি, সহকর্মী বা প্রতিবেশির পরিচয় বা কথাবার্তা হয়েছে বলে শুনবেন, তখন আপনিও তাদের সঙ্গে পরিচিত হোন। যখন কোনো সহকর্মী আপনার প্রেমিকের সঙ্গে চা খাওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করে তখন আপনিও তাকে চায়ের আমন্ত্রণ জানান, তাদের সঙ্গী হোন। তাদের সঙ্গে পরিচিত হয়ে আপনার পুরুষের সঙ্গে নিজের সম্পর্কের কথা জানান দিন অপর পক্ষকে। এটাই অন্যকে দূরে রাখার সবচেয়ে ভালো উপায়।

প্রেমিকের প্রতি লক্ষ্যে রাখুনঃ

আপনার যদি এমনটা মনে হয়,অন্য কোনো মেয়ে সত্যিই আপনার প্রেমিককে চুরি করে নিয়ে যাচ্ছে, তাহলে ছোট কিছু বিষয় লক্ষ্য করুন। সে মেয়েটা কি আপনার প্রেমিককে তোষামোদ করছে? কথা বলার সময় সেই মেয়ে কি আপনার প্রেমিকের শরীর স্পর্শ করছে? যদি আপনার কোনো বান্ধবীকেও আপনার বিচরণের স্থানে তার সঙ্গে দেখা যায়, তাহলেও তা লক্ষ্য করুন। বিষয়টিতে তার সঙ্গে খোলাখুলি কথা বলুন এবং তার প্রতিক্রিয়া লক্ষ্য করুন। এতে অনেক সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে।

বন্ধুত্বসুলভ আচরন করুনঃ

আপনার প্রেমিককে বাগিয়ে নিতে চাচ্ছে এমন কোনো নারীর সঙ্গে ঝগড়াঝাটি বা চুলোচুলির কোনো দরকার আছে কি? যদি সত্যিই কাউকে আপনার সন্দেহ হয়, তাহলেও তার সঙ্গে বিবাদের প্রয়োজন নেই। পরিস্থিতি খুব খারাপ না হলে তার সঙ্গে বন্ধুবৎসল হোন। এতে তার দোষ-গুণ সম্পর্কে জানতে পারবেন এবং সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নিতে পারবেন।

ধর্য্য ধরুনঃ

পরিস্থিতি সম্পর্কে সম্পূর্ণভাবে না জেনে কাউকে দোষারোপ করবেন না। সে যদি আপনার বান্ধবী হয়, তাহলে খুবই সাবধানে কোনো সিদ্ধান্ত নিতে হবে। প্রেমিকের সঙ্গে আপনার সম্পর্ক রক্ষার পাশাপাশি আপনার বান্ধবীর সঙ্গেও সম্পর্ক রক্ষা করতে হবে। অন্যথায় মিথ্যা সন্দেহ করে পস্তাতে হতে পারে ।তাই ধর্য্যের পরিচঅয় দিতে হবে।

প্রেমিকের সাথে সরাসরি কথা বলুনঃ

আপনি যদি প্রেমিকের সঙ্গে সম্পর্কের ব্যাপারে খুবই ভীত থাকেন, তাহলে সে বিষয়ে তার সঙ্গে খোলাখুলি কথা বলুন। এতে শুধু আপনার ভয়ই কমবে না, আপনার প্রেমিকও বুঝতে পারবে, তাকে আপনি কতোটা দাম দেন। তবে এক্ষেত্রে কটাক্ষ করা যাবে না।

পরিস্থিতির মুখোমুখি হোন

এমন কোনো পরিস্থিতি যদি হয়, যেখানে অন্যকোনো নারী আপনার পুরুষটিকে আচ্ছন্ন করে ফেলেছে, তাহলে সে নারীর মুখোমুখি হওয়াই ভালো। তার মানে এই নয় যে, সে মেয়ের সঙ্গে লড়াই করতে হবে। তবে এতে আপনার কাছে সে বিষয়ে পরিষ্কার ধারণা পেতে সুবিধা হবে।

নিজের প্রতি বিশ্বাস রাখুন

যতোক্ষণ পর্যন্ত কোনো পরিষ্কার অবিশ্বাসের প্রমাণ না পান, ততোক্ষণ আপনার সঙ্গীর উপর পূর্ণ বিশ্বাস রাখুন। কখনো তার ব্যক্তিগত মেইল, ম্যাসেজ বা কথাবার্তা থেকে কোনোকিছু ধারণা করে নেবেন না। এতে ভুল বোঝাবুঝির সৃষ্টি হবে এবং সমস্যা বাড়বে।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

1 উত্তর
30 অগাস্ট 2013 "জীবনানন্দ দাশ" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন আরিফুল (6,490 পয়েন্ট)

269,424 টি প্রশ্ন

352,084 টি উত্তর

104,251 টি মন্তব্য

142,517 জন নিবন্ধিত সদস্য



বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
* বিস্ময়ে প্রকাশিত সকল প্রশ্ন বা উত্তরের দায়ভার একান্তই ব্যবহারকারীর নিজের, এক্ষেত্রে কোন প্রশ্নোত্তর কোনভাবেই বিস্ময় এর মতামত নয়।
...