41,138 জন দেখেছেন
"বিদেশ যাত্রা" বিভাগে করেছেন (6,503 পয়েন্ট)

1 উত্তর

0 টি পছন্দ
করেছেন (22 পয়েন্ট)

প্রথমে অনলাইন পত্রিকার সম্পাদকদের (যারা এই ধরনের গাঁজাখুরি হেডলাইন দিয়ে সহজ সরল মানুষদের বিভ্রান্তি করে) তাদের প্রতি আমাদের অনুরোধ, আপনারা নিজেদের সামান্য স্বার্থের জন্য এরকম ভিত্তিহীন নিউজ প্রকাশ করবেন না এবং এই সকল গাঁজাখুরি নিউজ বা সংবাদকে বিকৃতভাবে উপস্থাপন না করে মানুষের মঙ্গলার্থে ভাল কিছু পেশ করুন। যেখানে ব্রিটেন ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের মেম্বার হওয়া সত্ত্বেও নিজ দেশে ৩য় দেশের ব্যক্তিরা প্রবেশের ক্ষেত্রে ভিসা সিস্টেম চালু রেখেছে সেখানে খবরের হেডিং দিয়ে এধরনের খবর প্রকাশ করার কোন মানে হয়না।

আসুন জেনে নেই কেন তারা এরকম করে? আসলে ইন্টারনেট এর মাধ্যমে এখন নানাভাবে অর্থ উপার্জন করা যায়। আর তাই কিছু সংখ্যক নাম মাত্র হলুদ সাংবাদিক তাদের অনলাইন পত্রিকার ভিজিটর বাড়ানোর জন্য আপনাদের মাঝে সাজিয়ে গুছিয়ে, এবং অনেক ভেবে চিন্তে এধরনের হেড লাইন দিয়ে নানা সময় নানা ধরনের উদ্ভট ধরনের নিউজ প্রকাশ করে থাকে। তবে এরা অনেক চালাক চতুর প্রকৃতির হয়ে থাকে, এদের আসল টার্গেট থাকে সাধারণ মানুষজন, কেননা যারা উচ্চ শিক্ষিত, তারা খুব সহজেই এদের এধরনের চালাকি বুঝে ফেলতে পারে, কিন্তু সমস্যায় পরে অল্প শিক্ষায় শিক্ষিত সেই সকল সহজ সরল মানুষ গুলো। আপনারা একটু ভালো করে লক্ষ্য করলেই বিষয় গুলো বুঝতে পাড়বেন।

আরও ভালো করে যদি বুঝাতে চাই তাহলে আপনাদের একটি কথা না বললেই নয়, যেমন গত কয়েকদিন ধরেই উপরের হেড লাইন দিয়ে বেশ কিছু অনলাইন পত্রিকায় “ভিসা ছাড়াই ব্রিটেনে বৈধভাবে প্রবেশ ও বসবাসের সুযোগ!” এই নিউজটি দেখা যাচ্ছে। যেখানে তারা খুব সুন্দর করে আপনাদের বুঝিয়ে দিচ্ছে যে, এখন থেকে আপনারা ইউরোপের কাগজ হলেই ব্রিটেনে বিনা ভিসায় যেতে ও কাজ করতে পাড়বেন। এবং এরকম বিভিন্ন লোভনীয় বিষয় বলে আপনাকে এতো গভীর ভাবে প্রভাবিত করবে, যে আপনি নিউজটি পড়ার সাথে সাথে তৈরি ব্রিটেনের উদ্দেশ্যে রউনা দিতে। কিন্তু দুক্ষের বিষয় এরা আপনাকে স্বপ্ন দেখিয়ে নিউজটির শেষের দিকে সেই স্বপ্ন ভেঙ্গে চুরমার করে দিচ্ছে, কেননা এরা এতই চালাক, যদি কেউ তাদের সেই গাঁজাখুরি নিউজ পড়ার পর প্রশ্ন করে? তাহলে তারা সেই প্রশ্নের উত্তর তৈরি করে রেখেছে।

যেমন তাদের নিউজ এর একদম নিচে এক লাইন লিখে দিয়েছে এরকম, এদিকে এই রায়ের পরেই কনজারভেটিভ পার্টির এমইপি টিমোতি কির্কহোপ বলেছেন, আমরা চাই ইউকে ভিসা সিস্টেম কন্ট্রোল করা হবে ইউকের দ্বারা ইউরোপীয় ইউনিয়ন দ্বারা নয়।তিনি আরো বলেন, ইউকের ইমিগ্র্যাশন সিস্টেম ফেয়ার এবং এর অপব্যবহার কোনভাবেই কাম্য নয়।ব্রিটেন অবশ্য ইউরোপীয় ইউনিয়নের কোর্টের এই রায়ের ব্যাপারে বলছে চূড়ান্ত ডাইরেকশন ব্রিটেনের হাইকোর্ট থেকে আসবে।
আশাকরি আপনাদের বুঝাতে পেড়েছি, এই সকল ভুয়া নিউজের কোন ভিত্তি নেই যতক্ষণ না আপনি অফিসিয়াল কোন তথ্য/লিঙ্ক পাচ্ছেন। সো সাবধান খবর দেখেন কিন্তু বিব্রান্ত হবেন না। আর ইউরোপের যেকোনো বিষয়ের যে কোন ধরনের সঠিক তথ্য পেতে আপনারা সরাসরি আমিওপারি টিম এর সাথে যোগাযোগ করতে পারেন।

আমাদের সাথে যোগাযোগের বিস্তারিতঃ স্ক্যাইপ- amiopari টেলঃ +৩৯ ০৬২৪৪০৫২১৭ মোবাইল +৩৯ ৩৩৮১৪০৮৯১৭ (WIND)মোবাইলঃ +৩৯ ৩২০০৪১২৫৪০ (WIND)  মোবাইলঃ +৩৯ ৩৪২৭৯৭৩২৮০ (WIND) ইমেইলঃ [email protected]    

ঠিকানাঃ Via Delle Albizzie-27, 00172 Rome (Centocelle), Italy.

কিভাবে আমাদের অফিসে আসবেন? কতো নাম্বার বাস/ট্রাম/মেট্রো ধরে? ইত্যাদি জেনে নিতে পারেন এখানে ক্লিক করে?


টি উত্তর
২১ জানুয়ারি ২০১৯ "ক্যারিয়ার" বিভাগে উত্তর দিয়েছেন Ariful (৬৩৭৩ পয়েন্ট )
টি উত্তর

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

1 উত্তর

289,192 টি প্রশ্ন

374,732 টি উত্তর

113,350 টি মন্তব্য

157,714 জন নিবন্ধিত সদস্য



বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
* বিস্ময়ে প্রকাশিত সকল প্রশ্ন বা উত্তরের দায়ভার একান্তই ব্যবহারকারীর নিজের, এক্ষেত্রে কোন প্রশ্নোত্তর কোনভাবেই বিস্ময় এর মতামত নয়।
...