304 জন দেখেছেন
"স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা" বিভাগে করেছেন (17,584 পয়েন্ট)

3 উত্তর

0 টি পছন্দ
করেছেন (30 পয়েন্ট)
ব্রাশ করার সময় পেস্টের উপর খানিকটা খাবার লবণ ছিটিয়ে ব্রাশ করুন।
0 টি পছন্দ
করেছেন (-136 পয়েন্ট)
দাঁত সাদা করার ঘরোয়া পদ্ধতি>
বেকিং পাউডার:
এটি দাঁত সাদা করতে সবচেয়ে
কার্যকরী। একটি ব্রাশ ভিজিয়ে নিয়ে পেস্টের সঙ্গে কিছুটা বেকিং পাউড়ার নিয়ে দাঁত মাজলে দাঁত হয় ঝকঝকে
সাদা। সকালে ঘুম থেকে উঠে কিংবা রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে দাঁত ব্রাশের সময় এটাকরা যেতে পারে।
স্ট্রবেরির বিচি:
স্ট্রবেরি খেতে যেমন মজাদার, ফলটির বিচিও দাঁতের জন্য বেশ উপকারী। স্ট্রবেরি ফলের ছোট ছোট বিচি আপনার দাঁতের বাইরের অংশে ঘষুন। সপ্তাহে কমপক্ষে ২ বার এই কাজ
করলে দাঁতে জমে থাকা ময়লা সহজেই দূর হয়। একই সঙ্গে দাঁতের রংও হবে উজ্জ্বল।
লেবুর রস:
এক চিমটি লবণ ও কয়েক ফোঁটা লেবুর রস দিয়ে মাজলে দাঁত সাদা হয়। এছাড়া লেবুর খোসা দিয়ে আপনার দাঁত স্ক্রাবিং করতে পারেন। দাঁত সাদা করতে এটাও বেশ ভাল উপায়। পাইপ ব্যবহার
অনেকের চা ও কফির প্রতি দারুণ
আসক্তি আছে। অবস্থা এমন যে সারা দিন কত কাপ চা বা কফি খাওয়া হয়েছে, তার হিসাব মেলানো দায়। একইকথা
প্রযোজ্য সোডাজাতীয় পানীয়ের
ক্ষেত্রে। সত্য কথা হলো—চা, কফি
ওসোডাজাতীয় পানীয় দাঁতের শত্রু। এগুলো দাঁতের রং নষ্ট করে দেয়। দাঁত রক্ষায় এগুলো পান পুরোপুরি ত্যাগ বা নিয়ন্ত্রণ করা যেতে পারে। আর তা সম্ভব না হলে বিকল্প ব্যবস্থা হিসেবে
পাইপ বা স্ট্র ব্যবহার করা যায়।
কমলার খোঁসা:
সকালে ঘুম থেকে উঠে পানি দিয়ে আপনার দাঁত ধুয়ে ফেলুন। তারপর কমলালেবুর খোসা দিয়ে আপনার দাঁতঘষুন। কমলালেবুর খোসায় ক্যালসিয়াম ও ভিটামিন সি এর উপস্থিতি থাকায় দাঁতের অণুজীবের
সঙ্গে লড়াই করে। এতে দাঁত আরও
সাদা এবং শক্তিশালী হয়।
মাশরুম:
দাঁত সাদা করতে মাশরুম খেতে পারেন। এতে প্রচুর পরিমাণে পলিস্যাকারাইড থাকে। যা ব্যাকটেরিয়া ধ্বংস করে ও
ডেন্টাল প্লাক হতে দেয়না।সবুজ চত্রাকে প্রচুর ফ্লুরাইড থাকে। এছাড়া এটি এন্টি এসিডিক হওয়ার কারণে দাঁতে
হলুদ রং পড়তে বাঁধাদেয়।
কাঠকয়লা:
এর আগে মানুষের দাঁত পরিষ্কারে
ব্যবহৃত হতো কাঠকয়লা। কাঠকয়লা আপনার দাঁত সাদা করতে সাহায্য করে।
তাই মাঝে মাঝে কাঠ কয়লা মিক্স
ব্যবহার করতে পারেন।ফ্লস
ব্যবহারদাঁতের পরিচ্ছন্নতা ও রং
সুরক্ষায় ফ্লসও বেশ উপকার দেয়।
দাঁতের ফাঁক থেকে খাদ্যের কণা দূর করতে নিয়মিত ফ্লস ব্যবহার করুন।
বিশেষত সারা দিন খাবারদাবার খাওয়ার পর প্রতি রাতেঘুমাতে যাওয়ার আগে ফ্লস ব্যবহার করে দাঁত পরিষ্কার ও উজ্জ্বল রাখা যায়।
0 টি পছন্দ
করেছেন (-999,494 পয়েন্ট)
আপনি আধাঁ-পাকা কলার খোসা কিংবা পাকা কলার খোসা অর্থাৎ আপনি কলার খোসাটি আস্তে আস্তে ছাড়াবেন দেখবেন কলার খোসায় লম্বা লম্বা কিছু শির আছে আপনি সেগুলো সহ ছাড়াবেন এখন আপনি কলার খোসাটি তিন থেকে চার ভাগ করে নিন। এখন আপনি যখন ব্রাশ করেন তার ১৫ মিনিট আগে ওই খোসা গুলোর একটি দিয়ে ভাল করে দাত ঘষুন তারপর আপনি যেভাবে নিয়মিত ব্রাশ করেন তা করুন। এভাবে ৭ দিন করুন দেখবেন আপনার দাত ঝকঝকে হয়ে গেছে।
টি উত্তর
২১ জানুয়ারি ২০১৯ "ক্যারিয়ার" বিভাগে উত্তর দিয়েছেন Ariful (৬৩৭৩ পয়েন্ট )
টি উত্তর

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

2 টি উত্তর
07 অগাস্ট 2015 "স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Md sharid (9 পয়েন্ট)
3 টি উত্তর
06 জানুয়ারি "সাধারণ" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন AR Rakib (6 পয়েন্ট)
4 টি উত্তর

289,194 টি প্রশ্ন

374,745 টি উত্তর

113,352 টি মন্তব্য

157,729 জন নিবন্ধিত সদস্য



বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
* বিস্ময়ে প্রকাশিত সকল প্রশ্ন বা উত্তরের দায়ভার একান্তই ব্যবহারকারীর নিজের, এক্ষেত্রে কোন প্রশ্নোত্তর কোনভাবেই বিস্ময় এর মতামত নয়।
...