67 জন দেখেছেন
"যৌন" বিভাগে করেছেন (963 পয়েন্ট)

1 উত্তর

0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন (963 পয়েন্ট)
এই পর্বটা শুরু হয় যখন লিউটিনাইজিং হরমোন হঠাত্‌‍ বেড়ে যায়। লিউটিনাইজিং হরমোন প্রভাবশালী বীজকোষটিকে জরায়ুর গা থেকে ফুলে উঠতে উদ্দীপনা যোগায় এবং শেষ পর্যন্ত ফেটে গিয়ে ডিম্বানু ছাড়ে। বীজকোষ উদ্দীপক হরমোন অল্প মাত্রায় বেড়ে যায়। বীজকোষ উদ্দীপক হরমোন বেড়ে যাওয়ার কারন এখনও বোঝা যায় নি।
ওভুলেটরি পর্ব সাধারনতঃ ১৬ থেকে ৩২ ঘন্টা থাকে। ডিম ছাড়ার সাথে সাথে এটা বন্ধ হয়ে যায়।

ডিম্বানু ছাড়ার ১২ থেকে ২৪ ঘন্টা পরে লিউটিনাইজিং হরমোন বেড়ে যাওয়ার মাত্রা বোঝা যায় প্রস্রাবে হরমোনের মাত্রা মেপে। এই মাত্রার পরিমাপ করে জানা যায় কখন মহিলা উর্বর। ছাড়ার ১২ ঘন্টার মধ্যে একটা ডিম্বানু উর্বর হতে পারে। উর্বরতা প্রাপ্তির সবচেয়ে সম্ভাবনা হয় যখন শুক্রানু আগে থেকেই সংজননপথে উপস্থিত থাকে।
ওভুলেশনের সময় অনেক মহিলা তলপেটের একদিকে একটা হালকা ব্যাথা অনুভব করে। এই যন্ত্রনাকে আক্ষরিকভাবে মধ্য যন্ত্রনা বলে জানা যায়। যন্ত্রনাটা কয়েক মিনিট থেকে কয়েক ঘন্টা থাকতে পারে। যন্ত্রনাটা বীজকোষ ভেঙে যাওয়ার আগে বা পরে হতে পারে এবং সব ঋতুচক্রে না-ও হতে পারে। ডিম্বানু ছাড়ার কাজ দুটো ডিম্বাশয় একের পর এক করে না, মনেহয় এলোমেলোভাবে করে। একটা ডিম্বাশয় বাদ দিয়ে দেওয়া হলে, যেটা থাকে, প্রতি মাসে একটা করে ডিম্বানু ছাড়ে।
টি উত্তর
২১ জানুয়ারি ২০১৯ "ক্যারিয়ার" বিভাগে উত্তর দিয়েছেন Ariful (৬৩৭৩ পয়েন্ট )
টি উত্তর

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

0 টি উত্তর
1 উত্তর
03 ফেব্রুয়ারি "আইকিউ" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন King of kings (121 পয়েন্ট)
1 উত্তর

288,866 টি প্রশ্ন

374,315 টি উত্তর

113,241 টি মন্তব্য

157,438 জন নিবন্ধিত সদস্য



বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
* বিস্ময়ে প্রকাশিত সকল প্রশ্ন বা উত্তরের দায়ভার একান্তই ব্যবহারকারীর নিজের, এক্ষেত্রে কোন প্রশ্নোত্তর কোনভাবেই বিস্ময় এর মতামত নয়।
...