বিস্ময় অ্যানসারস এ আপনাকে সুস্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং বিস্ময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...
76 জন দেখেছেন
"ধর্ম ও আধ্যাত্মিক বিশ্বাস" বিভাগে করেছেন (246 পয়েন্ট)
আমার এক স্যার আজকে বললেন , মাংস কথাটা ভালো না তোমরা "গোস্ত" বলবে । ইতোপূর্বে এক ক্লাসমেট আমায় বলেছিল যে , 'মাংস' বললে নাকি পাপ হবে , 'গোস্ত' বলতে হবে... আসলে বিষয়টা কি?? একটু বুঝিয়ে বলবেন কি?

2 উত্তর

+2 টি পছন্দ
করেছেন (2,062 পয়েন্ট)
নির্বাচিত করেছেন
 
সর্বোত্তম উত্তর

ইসলামে কোনো কিছু জায়েয/না-জায়েয হতে হলে প্রমাণ লাগে। আর গোশতকে ‘মাংস’ বলা না-জায়েয আখ্যায়িত দেয়ার ক্ষেত্রে কোনো দলিল নেই। সুতরাং বিষয়টিকে না-জায়েযের পর্যায়ে নিয়ে যাওয়া ঠিক হবে না। তবে যারা ‘মাংস’ না বলে ‘গোশত’ বলতে চান তাদের উদ্দেশ্য ভালো বলেই মনে হয়। মূলতঃ তারা ইসলামী স্বকীয়তাকে বজায় রাখতে ও সম্ভাব্য শাব্দিক অপসংস্কৃতির ছোবল থেকে বাঁচতে চান। তাদের উদ্দেশ্য যেহেতু সৎ , সেহেতু তাদের সমালোচনা করা বা তাদেরকে কটাক্ষ করাও উচিৎ হবে না।


আসলে অভিধানগুলো মন্থন করে আমি দেখেছি, শব্দটা ‘মাংস’। ‘মাংশ’ নয়। শব্দটি সংস্কৃত থেকে আসলেও এটি কোনো কালেই ‘মাংশ’ বানানে ছিলো না। সকল বাংলা অভিধানেই শব্দটির বানান ‘মাংস’ই লেখা হয়েছে। (দেখুনঃ ব্যবহারিক বাংলা অভিধান পৃ. ৯৬৮; সংসদ বাংলা অভিধান পৃ. ৬৯৩; আধুনিক বঙ্গভাষার অভিধান চলন্তিকা পৃ.  ৫৮২)


‘মাংস’ শব্দটির উৎস হচ্ছে সংস্কৃত (মন + স) থেকে। বাংলা একাডেমি ‘মাংস’ শব্দের অর্থ লিখেছে, ‘প্রাণীর দেহের হাড় ও চামড়ার মধ্যবর্তী শরীরের অংশবিশেষ’। (ব্যবহারিক বাংলা অভিধান পৃ. ৯৬৮ ) অন্যান্য অভিধানেও এ জাতীয় অর্থ ছাড়া অন্য কোনো অর্থ লেখা হয় নি।


সুতরাং ‘মাংস’কে ‘মাংশ’ মনে করে ‘মায়ের (গরুর) অংশ’ ব্যাসবাক্যে সন্ধিবিচ্ছেদ (!) করা বাংলা ব্যকরণের কোনো নিয়মে পড়ে না বিধায় এ ব্যাখ্যা গ্রহণযোগ্য হবে না। তাছাড়া বাংলা ভাষার কোনো বিশেষজ্ঞ ( মুসলিম কিংবা হিন্দু) ‘মাংস’কে ‘মাংশ’ শব্দের পরিবর্তিত রূপ বলে আখ্যায়িত করে তাকে হিন্দুদের বিশ্বাসজাত কোনো শব্দ বলে উল্লেখ করেন নি, যেমনটা করেছেন কীর্তন বেদী, স্নাতক, আচার্য, উপাচার্য, বিশ্বভ্রম্মাণ্ড ইত্যাদি শব্দের ক্ষেত্রে।


অতএব ‘মাংস’কে ‘মাংশ’ ভেবে একে হিন্দুদের বিশ্বাসজাত শব্দ মনে করা এবং মুসলিমদের জন্য শব্দটির ব্যবহার না-জায়েয বলে দেয়া কোনোক্রমেই ঠিক হবে না। তবে হ্যাঁ, ‘মাংস’ ও ‘মাংশ’ উচ্চারণে এককরম বিধায় এর ব্যবহার বড়জোর অনুচিত বলা যেতে পারে। কিন্তু যদিও মজার ব্যাপার হল, ‘মাংস’ শব্দ অভিধানে থাকলেও ‘মাংশ’ বলে কোনো শব্দই বাংলা ভাষার কোনো অভিধানেই নেই।

সূত্র: কুরআনের জ্যোতি

+2 টি পছন্দ
করেছেন (6,029 পয়েন্ট)
মাংস কথাটির শুরুতে মা রয়েছে। মাতা, জননী, জন্মদাত্রীকে মা বলে। গোশত কথাটির শুরুতে গো রয়েছে। ধেনু, গাভী, গরু, বৃষ, ষাঁড় ইত্যাদি গৃহপালিত প্রাণীকে গো বলে। মাংস কথাটির দ্বারা মায়ের অংশকে বুঝায়। পক্ষান্তরে, গোশত কথাটির দ্বারা গৃহপালিত প্রাণীর অংশকে বুঝায়। গৃহপালিত প্রাণীদের আল্লাহর নামে জবাই করে খাওয়া যায়, কিন্তু মায়ের ক্ষেত্রে এমনটা হতে পারে না। তাই মাংস না বলে গোশত বলাই শ্রেয়। ধন্যবাদ।
করেছেন (147 পয়েন্ট)
সুন্দর উওর দিয়েছেন

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

1 উত্তর
30 সেপ্টেম্বর "ইসলাম" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন হাবীব96 (2,062 পয়েন্ট)

343,909 টি প্রশ্ন

437,013 টি উত্তর

136,855 টি মন্তব্য

185,157 জন নিবন্ধিত সদস্য

বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
...