বিস্ময় অ্যানসারস এ আপনাকে সুস্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং বিস্ময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...
30 জন দেখেছেন
"ভূগোল" বিভাগে করেছেন (415 পয়েন্ট)

1 উত্তর

0 টি পছন্দ
করেছেন (7,714 পয়েন্ট)
আর্দ্র ও উত্তপ্ত আবহাওয়ায় বায়ু যখন দ্রুতগতিতে ঠান্ডা হয় তখন বাতাসের জলীয় বাষ্পে বজ্রমেঘের সৃষ্টি হয়। বজ্রমেঘের মধ্যে বাতাসের দ্রুতগতির আলোড়নের ফলে জলীয়বাষ্পে একই সময়ে একই সাথে শিশির বিন্দু, বৃষ্টিকণা ও তুষারকণার সৃষ্টি হয়। এই বৃষ্টিকণা ও তুষারকণার দ্রুত সংঘর্ষে স্থির বিদ্যুতের সৃষ্টি হয়। তবে ঘটনাটি যেহেতু বিশাল মেঘমালার মধ্যে ঘটে, তাই এর ফ্রিকোয়েন্সি, পরিমাণ এবং সংঘর্ষে সৃষ্ট শব্দের পরিমাণও অনেক বেশি হয়। এই বিদ্যুৎ প্রায় ৩০ হাজার ডিগ্রী সেন্টিগ্রেড তাপ উৎপন্ন করে। তাই এর ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণও এত বেশি হয়।

জলবায়ু এবং আবহাওয়া পরিবর্তনের কারণে বজ্রপাতের শক্তি পূর্বের যেকো্নো সময়ের তুলনায় এখন অনেক বেড়েছে। আগে যেখানে বজ্র সংঘর্ষে ২ হাজার ডিগ্রী সেন্টিগ্রেড তাপ উৎপন্ন হতো, এখন সেখানে উৎপন্ন হয় ৩০ হাজার ডিগ্রী! স্থির বিদ্যুতের পরিমাণ আগে যা ছিল ৫০ কিলো ভোল্ট, তা এখন ৩৫০ কিলো ভোল্ট শক্তি নিয়ে পৃথিবীতে আছড়ে পড়ছে।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

1 উত্তর
17 ডিসেম্বর 2018 "জলবায়ু ও পরিবেশ" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Sapon Molla (1,240 পয়েন্ট)
1 উত্তর
1 উত্তর
23 সেপ্টেম্বর "ভূগোল" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন MD Nabab Ali (415 পয়েন্ট)
1 উত্তর
31 মার্চ 2014 "ভূগোল" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Injamamul Islam (9,496 পয়েন্ট)

342,083 টি প্রশ্ন

435,200 টি উত্তর

136,087 টি মন্তব্য

184,483 জন নিবন্ধিত সদস্য

বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
...