বিস্ময় অ্যানসারস এ আপনাকে সুস্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং বিস্ময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...
37 জন দেখেছেন
"স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা" বিভাগে করেছেন অজ্ঞাতকুলশীল
আমার বয়স ২১। উচ্চতা ৫" ৩। আমার পরিবারের সবার তুলনায় অনেক খাটো আমি।  আমি কি আরো ১-২ ইঞ্চি লম্বা হতে পারবো। 

আমার এক বন্ধু কয়েকদিন আগে আমার সমান ছিল এখন সে আমার থেকে ১ ইঞ্চি লম্বা হয়ে গেছে। এতে আমি অনেক হতাশায় ভুগছি                

1 উত্তর

0 টি পছন্দ
করেছেন (116 পয়েন্ট)

লম্বা হওয়ার কিছু উপায়ঃ


এগুলো রাতারাতি কাজ করবে না। আপনাকে ধৈর্য ধরে অনেক দিন মেনে চলতে হবে এগুলো। তবেই মিলবে সন্তোষজনক ফল-

৮টি সহজ স্বাভাবিক উপায়ে উচ্চতা বৃদ্ধি:


১. এই বৃদ্ধি পদ্ধতিটি সবচেয়ে কার্যকর উপায়। এই পদ্ধতিতে ইনজেকশন দ্বারা মানবদেহে হরমোন বৃদ্ধি করা হয়, কিন্তু এটি সম্পূর্ণ বেআইনি যার কারণে একজন ডাক্তার কখনই আপনাকে এরকম কিছু প্রেস্ক্রাইব করবে না, এবং এটি খুবই ব্যয়বহুল যার কারণে আমিও আপনাকে সাজেস্ট করব না।
২. দুধ পান আপনাকে লম্বা হওয়ায় অনেক সাহায্য করবে কারণ ক্যালসিয়াম আপনার শরীরের হাঁড় এর বৃদ্ধি ঘটায়, আরেকটা বেপার যা আমাদের দেশে নেই সেটা হল আমেরিকায় তাদের গরু মধ্যে বিভিন্ন হরমোন ইনজেকশন দেওয়া হয় যার মাধ্যমে - হরমোনের মাত্রা বৃদ্ধি হয়, এবং সেই প্রকিয়াজাতকরণ দুধ হয় সাধারণ দুধ এর বিকল্প।
৩. নিয়মিত কিছু নির্দিষ্ট ব্যায়াম (ওজন উদ্ধরণ) হরমোন (HGH) বৃদ্ধি করে। এটি বৃদ্ধি সংক্রান্ত হরমোনের মাত্রা আরও উন্নত করার জন্য বহুল পরিচিত এবং পদ্ধতি খুবই কার্যকর. আর অতিরিক্ত পেশী আপনাকে আরও সাহায্য করবে আকর্ষণীয় চেহারার অধিকারী হতে।
৪. তীব্র sprinting ব্যায়াম মানব বৃদ্ধির হরমোনে একটি বিস্ফোরণ ঘটায় এছাড়াও আপনার হরমোনকে আরও উন্নত করে। আসলে, যে কোনও কঠিন শারীরিক ব্যায়াম আপনাকে লম্বা হতে সাহায্য করবে। তবে অবশ্যই সেটা ২১বছর বয়স হওয়ার পর।
৫. Niacin supplementation : Niacin একটি প্রাকৃতিক ভিটামিন নামক ভিটামিন B3. একটি গবেষণা থেকে জানা যায়, ৫০০গ্রাম নিয়াসিন নেওয়া মানুষের থেকে সাধারণ মানুষের বৃদ্ধি কম ঘটে।.
৬.মানসিক চাপ কমান: স্ট্রেস বা মানসিক চাপ যা হচ্ছে আপনার লম্বা বৃদ্ধি হওয়ার ক্ষেত্রে একটি বাঁধা। যাতে আপনার হরমোনের মাত্রা কমে যায় এবং করটিসল উৎপাদিত হয়। ভিটামিন C সম্পূরকসমূহ যা করটিসল কমাতে জোর সহায়তা করে।
৮. ঘুম: কমপক্ষে ৮ ঘণ্টা ঘুমানো । এটি সবচেয়ে সহজ এবং অনেক কার্যকরী উপায়। সঠিক এবং সুন্দর ভাবে ঘুমানো আপনার দেহের স্বাভাবিক বৃদ্ধি মাত্রা আরও বাড়িয়ে তোলে।

তবে আপনাকে বৃদ্ধির ক্ষেত্রে কিছু জিনিস এড়িয়ে চলতে হবে:

ড্রাগ এবং এলকোহল এই ২টিই আপনার বৃদ্ধির ক্ষেত্রে অনেক বড় বাঁধা। ধূমপান যেমনি স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর তেমনি দেহের হরমোন গঠনও কমিয়ে ফেলে। এছাড়া পানি আমাদের শরীরের জন্য বেশ অপরিহার্য একটি উপাদান। গবেষকেরা জানান, আমাদের শরীর যথোপযুক্ত ভাবে কাজ করবে তখনই যখন আপনি পরিমিত পরিমাণে পানি পান করবেন। আভ্যন্তরীণ ভাবে তো বটেই, বাহ্যিক ভাবেও শরীরের জন্য পানি খুব প্রয়োজনীয়। সাঁতার কাটলে আপনার শরীর ফ্লেক্সিবল তো হবেই, সেই সঙ্গে পেশীগুলো প্রসারিত হবে। এভাবেই ধীরে ধীরে আপনার উচ্চতা বৃদ্ধি পাবে। তাই সাঁতার কিন্তু প্রাকৃতিক ভাবে লম্বা হওয়ার অন্যতম উপায়।

লম্বা হওয়ার কিছু ব্যায়াম:

. ১. উচ্চতা বাড়ানোর জন্য এটি বেশ উপকারী একটি ব্যায়াম। এই ব্যায়ামগুলো আপনার হাতের শক্তিও বৃদ্ধি করে। শরীরের ঊর্ধ্বাঙ্গের পেশী প্রসারিত করতে এটি বেশ কাজের। অনেকভাবে আপনি এ ব্যায়ামটি করতে পারেন। একটি পোলে দু'পা জড়িয়ে হাত নিচের দিকে দিয়ে এই এক্সারসাইজটি করতে পারেন। এতে করে আপনার পায়ের শক্তিও বাড়বে। আপনি এ ব্যায়াম প্রতিদিন করলে শরীরের অতিরিক্ত ফ্যাট ও দূর হয়ে যাবে। আপনার শরীর ছিপছিপে গড়নের হলে, উচ্চতাও ধীরে ধীরে বৃদ্ধি পাবে।
২. একদম সোজা হয়ে দাঁড়িয়ে হাঁটু না ভেঙেই পা স্পর্শ করার চেষ্টা করুন। এতে করে আপনার পিঠ এবং উরুর পেশীগুলো সম্প্রসারিত হবে এবং রক্ত সঞ্চালন বৃদ্ধি পাবে। এই ব্যায়ামের মাধ্যমে হাঁটুর পেশিগুলো ম্যাসাজ করাও হয়। একদম সোজা হয়ে পায়ের আঙ্গুল ধরার চেষ্টা করুন কিন্তু খুব বেশি প্রেশার দেওয়ার দরকার নেই। ধীরে ধীরে শরীরের ফ্লেক্সিবিলিটি বৃদ্ধি পাবে।
৩. এটি মূলত ইয়োগার একটি পর্যায়। অনেকটা. সাপের মতন মাথা উঁচু করা হয় বলে এটি 'কোবরা পোজ' বলে অভিহিত। পেটের উপর চাপ দিয়ে শুয়ে পড়ুন। অতঃপর হাতের তালুতে ভর দিয়ে ধীরে ধীরে শরীরের ঊর্ধ্বাংশ উঁচু করুন। গতি কিন্তু খুব শিথিল করে নেবেন। এ ব্যায়ামের মাধ্যমে আপনার পেশীগুলোর কর্মক্ষমতা বৃদ্ধি পাবে। যা আপনাকে সাহায্য করবে প্রাকৃতিকভাবে লম্বা হতে।
৪. এটা অনেকটা সেতুর মতন। চিত হয়ে শুয়ে পড়ুন। হাঁটু ভাঁজ করুন। এরপর কাঁধ বরাবর দূরত্বে পা দুটো আলাদা করুন। এবার পায়ের উপর চাপ দিয়ে নিতম্ব ও কোমর উত্তোলন করার চেষ্টা করুন। পিঠ সোজা রাখবেন। ধীরে ধীরে নিঃশ্বাস নিন। এ পোজ কয়েকবার পুনরাবৃত্তি করুন। পেলভিক শিফটের সাহায্যে আপনার পিঠের বেশ ভালো এক্সারসাইজ হবে। পেশিগুলো সুগঠিত হবে।
৫. দড়ি লাফ দারুণ মজার একটি খেলা এটি কিন্তু উচ্চতা বাড়াতেও বেশ সাহায্যকারী এটি। লাফ দিতে হয় দড়ি লাফ খেলার জন্য। এতে পা থেকে মাথা পর্যন্ত পুরো শরীরের ব্যায়াম হয়। শরীরের প্রতিটি পেশী সক্রিয় হয়ে যায়। শরীরের অতিরিক্ত মেদ ঝেড়ে ফেলার জন্য এটি বেশ কার্যকরী একটি ব্যায়াম।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

1 উত্তর
2 টি উত্তর
11 এপ্রিল "স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Anob chowdhury (62 পয়েন্ট)

323,182 টি প্রশ্ন

413,770 টি উত্তর

128,227 টি মন্তব্য

177,964 জন নিবন্ধিত সদস্য

বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
...