বিস্ময় অ্যানসারস এ আপনাকে সুস্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং বিস্ময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...
86 জন দেখেছেন
"স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা" বিভাগে করেছেন (40 পয়েন্ট)
সম্পাদিত করেছেন

4 উত্তর

0 টি পছন্দ
করেছেন (492 পয়েন্ট)
আপনি ব্যায়াম করেন তাহলে আলসেমি দূর হয়ে যাবে বা আপনি জিমে যান তাতেও আপনার আলসেমি দূর হবে।আপনি রোজ yoga করতে পারেন।
0 টি পছন্দ
করেছেন (4,623 পয়েন্ট)
আপনি নিয়মিত পুষ্টিকর খাবার দুধ, ডিম, কলা খান। পর্যাপ্ত পরিমানে পানি পান করুন এবং রাতে আন্তত ৮ ঘন্টা ঘুমান। হামদর্দ কম্পানির সিনকারা সিরাপটি সেবন করতে পারেন।
0 টি পছন্দ
করেছেন (196 পয়েন্ট)

অনেক ক্ষেত্রে দেখা যায় আলসেমি একটি বংশগত রোগ। পরিবারের লোকজনের মধ্যে আলসেমির লক্ষণ থাকলে আপনার মধ্যেও তা আসতে পারে। আবার অনেক সময় শারীরিক দূর্বলতার কারণেও আলসেমি দেখা দিতে পারে। অন্যদিকে যারা একটু তুলনামূলক ফ্যাট তারাও আলসেমিতে ভুগে থাকেন। মনস্তত্ত্ববিদদের মতে, আলসেমি ব্যাপারটা মূলত একটা বিদঘুটে মনের ভাব। অলস হওয়ার প্রশ্রয় একবার পেয়ে বসলে আলসেমি জিনিসটা স্বভাবে দাঁড়িয়ে যায়। তাই এটা কাটিয়ে উঠতে প্রথমেই যেটা দরকার তা হলো মনের জোর এবং নিজের কর্মক্ষমতার ওপর বিশ্বাস। ‘আমার কিচ্ছু করতে ইচ্ছা করছে না। এখন না, থাকুক। ওটা পরে করব। এখন একটু ঘুমিয়ে নিই।’ এ ধরনের মনোভাবকে ইচ্ছা করলেই দূর দূর করে তাড়িয়ে দেয়া যায়। পুরো ব্যাপারটা আসলে নির্ভর করছে আপনার ওপর। আলসেমি আর না- অনেকক্ষণ পরিশ্রম করার পর খুব বেশি ক্লান্তিবোধ করলে হাতের কাজ রেখে একটু বিশ্রাম নিতে পারেন, শরীরটাকে এলিয়ে দিতে পারেন বিছানায়। তবে প্রতিদিন এটা করলে ধরে নিতে হবে আপনি ভারি অলস, এতে আপনার পড়াশোনার যথেষ্ট ক্ষতি হবে। এর প্রভাব পড়বে আপনার ভবিষ্যৎ জীবনে। আমাদের এই ছোট্ট জীবনে করার মতো কাজ অনেক কিন্তু সময় খুব কম। তাই আলসেমি করে সময় নষ্ট করলে এক সময় পস্তাতে হবে। শরীরকে তো একটু-আধটু প্রশ্রয় দেবেন। তবে সেটা খুব বুঝেশুনে। কথায় বলে, শরীরের নাম মহাশয়, যা সওয়াবে তাই সয়। সময় নষ্ট করাকে প্রশ্রয় দিলে আলসেমি আপনার অভ্যাসে পরিণত হয়ে যাবে। আবার মনের জোরে যদি কাজে নেমে পড়তে পারেন, তাহলে দেখবেন আলসেমি কোথায় পালাবে। আলসেমি শুধু পড়াশোনা বা ক্যারিয়ারের ক্ষতি করে না, ক্ষতি করে সম্পর্কেরও। আলসেমির কারণে নষ্ট হয়ে যেতে পারে কোনো মধুর সম্পর্ক। কারও সঙ্গে দেখা করার সময় যদি আলসেমি করে নির্দিষ্ট সময়ের পর স্পটে যান, তাহলে প্রিয়জনের গোমড়া মুখ দেখা অনেকটাই নিশ্চিত। আর এভাবে একাধিকবার হলে তো কথাই নেই। একেবারে সম্পর্কের সাড়ে সর্বনাশ! তাই সাবধান। কেউ কিছু করছে না। আমি কী করব? এসব ভেবে হাত গুটিয়ে বসে থাকলে চলবে না। আপনাকে এগিয়ে যেতে হবে নিজের জন্য। এগিয়ে যেতে হবে নিজের শক্তিতে। যদি অসুস্থতা আপনার আলসেমির কারণ হয়, তাহলেও ঘাবড়ে যাবেন না। কোনো কাজ করতে চাইলে নিজেকে নিজে উৎসাহ দিন। মনে করবেন, একবার একটা সুযোগ হাতছাড়া হলে দ্বিতীয় সুযোগ কবে পাবেন তার ঠিক নেই। তাই অলসতা কাটিয়ে নতুন উদ্যম ও উৎসাহে জেগে ওঠেন এখনি। দেখবেন, আপনার সামনে দাঁড়িয়ে আছে নতুন এক পৃথিবী।

0 টি পছন্দ
করেছেন (247 পয়েন্ট)
সকালে তাড়াতাড়ি ঘুম থেকে উঠতে হবে । ব্যায়াম করতে হবে । স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়ার অভ্যাস বজায় রাখবেন । 

 

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

1 উত্তর
25 ফেব্রুয়ারি 2015 "নিত্য ঝুট ঝামেলা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Feroza (249 পয়েন্ট)

322,490 টি প্রশ্ন

412,996 টি উত্তর

127,941 টি মন্তব্য

177,633 জন নিবন্ধিত সদস্য

বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
...