বিস্ময় অ্যানসারস এ আপনাকে সুস্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং বিস্ময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...
45 জন দেখেছেন
"অ্যান্ড্রয়েড" বিভাগে করেছেন (45 পয়েন্ট)

2 উত্তর

0 টি পছন্দ
করেছেন (588 পয়েন্ট)
আপনার ফোনের ব্যাটারি ক্যাপাসিটি যত বেশি চার্জ তত বেশি থাকবে।তবে বেশিক্ষন চার্জ ধরে রাখার উপায়:..... 1.ফোনের ব্রাইটনেস কমিয়ে রাখা।.।।।।। 2.ফোনের WALLPAPER কালো বা বেশি উজ্জল নয় এরকম ব্যাবহার করা।।।।।। 3. KYPAD সাউন্ড না রাখা।কারন এর কোন কাজ নেই।।।।। 4.HEAVY/বেশি র্যাম খোর গেম খেলতে হলে কোন GAME LAUNCHER ইউজ করা।এতে চার্জ কম কাটে। ।। ।।। 5.অকারনে নেট কানেকশন বন্ধ রাখা।এতে চার্জ ও মেগাবাইট কাটে।।।।
0 টি পছন্দ
করেছেন (666 পয়েন্ট)

মোবাইলের চার্জ বেশি সময় ধরে থাকবে..  এটা সবাই চায়। কিন্তু চাইলেই তা পারা যায়না। মোবাইলে এমন কিছু এ্যপ্স আমরা ব্যবহার করি যা ব্যবহারের কারনে আমরা প্রত্যাশিত ফল পাইনা। যেমনঃ Facebook, Messenger, Imo,Whatsapp, Google etc. আবার আমরা অনেকেই মোবাইলে বিভিন্ন  ক্যাটাগরির গেমস্ ও খেলে থাকি। যা মোবাইলের ব্যটারির উপর খুব বেশি চাপ প্রয়োগ করে...।  যার ফলে মোবাইল অল্প সময়ে অনেক গরম সহ ব্যটারি অনেকসময় ফুলেও যায়। এতে ব্যটারির স্থায়িত্ব সময় অনেক কমে যায়। বেশি সময় চার্জ ধরে রাখতে পারেনা ১০০% চার্জ দেয়া সত্তেও। 

ব্যটারির চার্জ বেশি সময় সার্ভিস পেতে যা করা উচিতঃ

  • মোবাইলে বেশি পরিমানে এ্যপ্স ব্যবহার না করা।
  • Data ব্যবহার না করে wifi ব্যবহারে চার্জ বেশি সময় ধরে থাকে।
  • যেসব মোবাইলে ফুল চার্জ হতে ২-২.৫ ঘন্টা সময় নেয় তার বেশি সময় চার্জ ঝুলিয়ে না রাখা।
  • ১০০% চার্জ না দিয়ে ৯০-৯৫% চার্জ করাই ভালো। 
  • মোবাইলে চার্জ  ৪০-৫০% এর নিচে নামলে চার্জ বসানো। যদি সেই সময় চার্জ বসানো না যায় তাহলে power saving mode এ রেখে একটু কম ব্যবহার করা। তবে মোবাইলের চার্জ একেবারে শেষ না করে চার্জ দেওয়াই উত্তম।
  • মোবাইল চার্জে বসিয়ে ব্যবহার না করা।

আর বর্তমানে বিভিন্ন ধরেনের মোবাইল বাজারে পাওয়া যায়.. যা বেশি পরিমানে চার্জ ধরে রাখতে সক্ষম আর তুলনামূলক ভাবে দামও কম ও মানসম্মত। 

করেছেন (10 পয়েন্ট)
ফোনের চার্জ ধরে রাখার কিছু টিপসঃ
(১) এটা হয়তো অনেকেই জানেন এবং প্রয়োগ করে থাকেন। যাঁরা এখনো এই কাজটা করেন না, তাঁরা ডিসপ্লের ঔজ্জ্বল্য বা ব্রাইটনেস কমিয়ে রাখা শুরু করুন। এ পদ্ধতি ল্যাপটপ, ট্যাবের ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য।এতে করে চার্জ থাকবে দীর্ঘক্ষণ ।
(২) অ্যামোলেড স্ক্রিনের ফোনে কালো বা এ ধরনের রঙের ওয়ালপেপার ব্যবহার করলে চার্জ কম খরচ হয়। কারণ, অ্যামোলেড স্ক্রিনের আলো খরচ হয় বিভিন্ন রঙের পেছনে। তাই যত রঙিন ওয়ালপেপার দেওয়া হবে, আলোর খরচ বাড়বে, সে সঙ্গে চার্জও খরচ হবে।
(৩) স্মার্টফোনের চার্জ বাঁচানোর আরেকটি ভালো বুদ্ধি হচ্ছে লক স্ক্রিন নোটিফিকেশন চালু করে রাখা। এতে বারবার আপনাকে লক খুলে নোটিফিকিশেন দেখতে হবে না। ফলে চার্জ কম খরচ হবে।
(৪) ঠিকমতো বন্ধ না করার কারণে অনেক সময় বিভিন্ন অ্যাপস চালু থাকে, যেটা অনেকে খেয়াল করেন না। বিশেষ করে জিপিএস ও ওয়াই- ফাইয়ের ক্ষেত্রে এ ব্যাপারটা বেশি ঘটে। আর এ দুটি অ্যাপস চালু থাকলে দ্রুত চার্জ ফুরিয়ে যায়। তাই কাজ শেষ হওয়ার পর অ্যাপস বন্ধ করুন।
(৫) আপনার ফোনে যদি অ্যানড্রয়েড ৫ দশমিক শূন্য বা এর পরের ভার্সনের অপারেটিং সিস্টেম থাকে, তাহলে আপনার কপাল ভালো। কারণ, ফোনের চার্জ ১৫ শতাংশের কম হলেই এসব অপারেটিং সিস্টেমে স্বয়ংক্রিয়ভাবে লো-পাওয়ার মোড চালু হয়ে যায়। অ্যানড্রয়েড অপারেটিংয়ের মার্শম্যালো ভার্সনে রয়েছে ‘ডোজ’ নামে একটি নতুন ফিচার। স্মার্টফোনের চার্জ কমে গেলে এই ফিচার ফোনটিকে স্বয়ংক্রিয়ভাবে হাইবারনেশন মোডে নিয়ে যায় আর অনেকক্ষণ ধরে অব্যবহৃত অবস্থায় থাকা অ্যাপগুলো বন্ধ করে দেয়।
(৬) অ্যাপস ডাউনলোড ও আপডেটের ক্ষেত্রে ওয়াই- ফাই সংযোগ ব্যবহার করুন। মোবাইলের ডাটা ব্যবহার করলে চার্জ বেশি খরচ হবে, এ ছাড়া সময়ও যাবে বেশি। সে ক্ষেত্রে দ্রুতগতির ওয়াই-ফাই সংযোগ ব্যবহার করলে তাড়াতাড়ি অ্যাপসগুলো ডাউনলোড ও আপডেট হয়ে যাবে। মোবাইলের চার্জও কম খরচ হবে।
(৭) স্মার্টফোনটি এয়ারপ্লেন মোডে থাকলে সব ধরনের ওয়ারলেস ফিচার বন্ধ হয়ে যায়। এতে ফোনের চার্জ কম খরচ হয়।
ধন্যবাদ।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

7 টি উত্তর

312,211 টি প্রশ্ন

401,796 টি উত্তর

123,439 টি মন্তব্য

173,032 জন নিবন্ধিত সদস্য

বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
...