বিস্ময় অ্যানসারস এ আপনাকে সুস্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং বিস্ময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...
23 জন দেখেছেন
"ইসলাম" বিভাগে করেছেন অজ্ঞাতকুলশীল
রাগের মাথায় বলে ফেলছি কোরআানের কসম আমি কাজটি করব।এখন কোনো ভাবে এর কোনো এর সমাধান আছে? বা আমি যদি শপথটা ভঙ্গ করি তার কোনো ক্ষমা আছে? কোরআান ছুয়ে বলি নাই বা ধারে কাছে ছিল না তবে কোরআনের নামে শপথ নিছি। 

1 উত্তর

0 টি পছন্দ
করেছেন (6,125 পয়েন্ট)
কুরআনের কসম হওয়ার জন্য কুরআন ছোঁয়া আবশ্যক নয়। বরং শুধু 'কুরআনের কসম' বা 'আল্লাহর কালামের কসম' বললেই কসম হয়ে যাবে। কসম করলে শরয়ি কোনো প্রতিবন্ধকতা ছাড়া কসম ভঙ্গ করা জায়েজ নেই। ইচ্ছাকৃতভাবে কসম ভঙ্গ করা মারাত্মক গুনাহ। কেউ কসম ভঙ্গ করলে তাকে এর কাফফারা আদায় করতে হবে। কাফফারা আদায় করার পদ্ধতি: ব্যক্তি তার পরিবারকে নিয়ে মধ্যম ধরণের যে খাবার গ্রহণ করে এমন খাবার দশজন মিসকিনকে দুই বেলা খাইয়ে দিবে। অথবা দুই জোড়া কাপড় দিয়ে দিবে। সদকায়ে ফিতির পরিমাণ টাকাকে একদিনের খরচ ধরা হবে। সেই হিসেবে সদকায়ে ফিতর পরিমাণকে দশ দিয়ে গুণ দিলে যত টাকা হয়,তাই হবে কসমের কাফফারা। যেমন গত রমজানে সদকায়ে ফিতির ছিল সর্বনিম্ন ৭০ টাকা। তো সেই হিসেবে ৭০০[ সাতশ টাকা] হবে কসমের কাফফারা। এটি বর্তমান মূল্য হিসেবে ধরা হয়েছে। আগে-পরে পরিবর্তিত হতে পারে। যদি টাকা দিয়ে কাফফারা আদায় করতে সক্ষম না হন। তাহলেই কেবল তিনটি রোযা রাখার মাধ্যমে কাফফারা আদায় করতে হবে। لَا يُؤَاخِذُكُمُ اللَّهُ بِاللَّغْوِ فِي أَيْمَانِكُمْ وَلَٰكِن يُؤَاخِذُكُم بِمَا عَقَّدتُّمُ الْأَيْمَانَ ۖ فَكَفَّارَتُهُ إِطْعَامُ عَشَرَةِ مَسَاكِينَ مِنْ أَوْسَطِ مَا تُطْعِمُونَ أَهْلِيكُمْ أَوْ كِسْوَتُهُمْ أَوْ تَحْرِيرُ رَقَبَةٍ ۖ فَمَن لَّمْ يَجِدْ فَصِيَامُ ثَلَاثَةِ أَيَّامٍ ۚ ذَٰلِكَ كَفَّارَةُ أَيْمَانِكُمْ إِذَا حَلَفْتُمْ ۚ وَاحْفَظُوا أَيْمَانَكُمْ ۚ كَذَٰلِكَ يُبَيِّنُ اللَّهُ لَكُمْ آيَاتِهِ لَعَلَّكُمْ تَشْكُرُونَ [٥:٨٩ আল্লাহ তোমাদেরকে পাকড়াও করেন না তোমাদের অনর্থক শপথের জন্যে; কিন্তু পাকড়াও করেন ঐ শপথের জন্যে যা তোমরা মজবুত করে বাধ। অতএব, এর কাফফরা এই যে, দশজন দরিদ্রকে খাদ্য প্রদান করবে; মধ্যম শ্রেনীর খাদ্য যা তোমরা স্বীয় পরিবারকে দিয়ে থাক। অথবা,তাদেরকে বস্তু প্রদান করবে অথবা,একজন ক্রীতদাস কিংবা দাসী মুক্ত করে দিবে। যে ব্যক্তি সামর্থ্য রাখে না,সে তিন দিন রোযা রাখবে। এটা কাফফরা তোমাদের শপথের,যখন শপথ করবে। তোমরা স্বীয় শপথসমূহ রক্ষা কর এমনিভাবে আল্লাহ তোমাদের জন্য স্বীয় নির্দেশ বর্ণনা করেন, যাতে তোমরা কৃতজ্ঞতা স্বীকার কর। {সূরা মায়িদা-৮৯} الأيمان مبنية على العرف فما تعورف الحلف به فيمين وملا فلا…….. قال الكمال: ولا يخفى أن الحلف بالقرآن الآن متعارف فيكون يمينا، (الدر المختار مع رد المحتار-5/484-485) عن ابراهيم قال: قال بعد الله: من حلف بالقرآن فعليه بكل آية يمين، (المصنف لابن أبى شيبة، الأيمان والنذور فى الرجل يحلف بالقرآن، ما عليه فى ذلك،-7/537، رقم-12362) وعند الثلاثة المصحف والقرآن وكلام الله يمين (الدر المختار مع رد المحتار-5/484-485) وكفراته تحرير رقبة أو إطعام عشرة مساكين أو كسوتهم بما يستر عامة البدن وإن عجز عنها وقت الأداء صام ثلاثة أيام ولاء (تنوير الأبصار مع رد المحتار-5/502-505

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

1 উত্তর
22 ডিসেম্বর 2018 "ধর্ম ও আধ্যাত্মিক বিশ্বাস" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন atif sheikh (16 পয়েন্ট)
3 টি উত্তর

313,056 টি প্রশ্ন

402,688 টি উত্তর

123,718 টি মন্তব্য

173,412 জন নিবন্ধিত সদস্য

বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
...