বিস্ময় অ্যানসারস এ আপনাকে সুস্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং বিস্ময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...
44 জন দেখেছেন
"ইসলাম" বিভাগে করেছেন (1 পয়েন্ট )
স্ত্রী অবাধ্য হলে আল্লাহ স্বামীকে দিয়ে তাকে পিটানোর আদেশ দিয়েছেন কিন্তু স্বামী যদি অবাধ্য হয়, চরিত্রহীন হয়, নারী নির্যাতক হয় এইজন্য তাকে কি করা উচিত এই ব্যাপারে পবিত্র কুরআন এবং সহীহ হাদিসে কোথাও কি কিছু বলা আছে??

1 উত্তর

0 টি পছন্দ
করেছেন (6,792 পয়েন্ট)
যে সকল নারী স্বামীর অবাধ্য হবে তার সংশোধনের জন্য আল্লাহ তাআলা সুরা নিসার ৩৪ এবং ৩৫ নাম্বার আয়াতে তিনটি ব্যবস্থার কথা বলেছেন।

১। তাদেরকে সদুপদেশ ও নসীহত করে বুঝাতে হবে।

২। সাময়িকভাবে বিছানা আলাদা করে দেবে। বুদ্ধিমতী মহিলার জন্য এটাই যথেষ্ট। এতেও কাজ না হলেঃ

৩. হালকা মৃদু প্রহার করবে।

তবে প্রহার যেন জুলুমের পর্যায়ে চলে না যায়। তবে অনেক পুরুষ কঠোরভাবে প্রহার করে শরীয়তে সম্পূর্ণ হারাম।

উল্লিখিত তিনটি ব্যবস্থা গ্রহণ করার পরও যদি কোন ফল না হয়, তাহলে চতুর্থ ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। এ ব্যাপারে বলা হয়েছে যে, স্বামী-স্ত্রী উভয়পক্ষকে দুইজন বিচারক নিয়োগ করতে হবে। তারা উভয়ে নিষ্ঠাবান ও আন্তরিকতাপূর্ণ হলে তাদের সংশোধনের প্রচেষ্টা অবশ্যই ফলপ্রসূ হবে। আর যদি তাদের প্রচেষ্টা ফলপ্রসূ না হয়, তাহলে তালাকের মাধ্যমে স্বামী-স্ত্রীর বিচ্ছেদ ঘটিয়ে দেয়ার অধিকার তাদের আছে।

মুল কথা হচ্ছেঃ স্বামী যদি অবাধ্য বা চরিত্রহীন হয় বা নারী নির্যাতক হয় এই জন্য তাকে আগে সদুপদেশ ও নসীহত করে বুঝাতে হবে। এতে সে সঠিক পথে না আসলে খোলা করতে পারবেন। এব্যাপারে পবিত্র কুরআন এবং সহীহ হাদিসে বর্নিত হয়েছেঃ

খোলা তালাক হল স্ত্রী স্বামী থেকে পৃথক হতে চাইলে স্ত্রী তার স্বামী কর্তৃক প্রদত্ত মোহরানা ফিরিয়ে দেবে। তবে তা অবশ্যই শরীয়তসম্মত কোন কারণ থাকতে হবে। যেমন স্বামী চরিত্রহীন, সে সালাত আদায় করে না, স্ত্রীকে বেপর্দা হয়ে চলতে বাধ্য করে ইত্যাদি।

এমতাবস্থায় স্বামী যদি স্ত্রীকে পৃথক করে দিতে না চায়, তাহলে আদালত স্বামীকে তালাক দিতে বাধ্য করবে। যদি তালাক না দেয় তাহলে বিবাহ বিচ্ছেদ করে দেবে। অর্থাৎ খোলা তালাকের মাধ্যমে হতে পারে বা বিবাহ বিচ্ছেদ করার মাধ্যমেও হতে পারে। উভয় অবস্থায় ইদ্দত হল এক মাস।

মহিলাকে এ অধিকার দেয়ার সাথে সাথে এ কথার ওপর শক্ত তাকীদ দেয়া হয়েছে যে, কোন উপযুক্ত কারণ ছাড়া সে যেন তার স্বামীর কাছে তালাক কামনা না করে। যদি সে রকম হয় তাহলে রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেনঃ

যে মহিলা তার স্বামীর কাছে কোন সমস্যা ছাড়া তালাক চাইবে তার জন্য জান্নাতের সুগন্ধি পর্যন্ত হারাম।

(তিরমিযীঃ ১১৮৫, ১১৮৭ আবূ দাঊদঃ ২২৩৯, ২২২৬ সহীহ)
টি উত্তর

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

1 উত্তর
29 অগাস্ট 2015 "প্রেম-ভালোবাসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন amiamar (8 পয়েন্ট)
1 উত্তর
20 নভেম্বর 2018 "পবিত্র কুরআন" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন শরিফ আহমদ (285 পয়েন্ট)

300,328 টি প্রশ্ন

388,181 টি উত্তর

117,321 টি মন্তব্য

165,727 জন নিবন্ধিত সদস্য

বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
...