বিস্ময় অ্যানসারস এ আপনাকে সুস্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং বিস্ময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...
103 জন দেখেছেন
"প্রেম-ভালোবাসা" বিভাগে করেছেন (3 পয়েন্ট)
আমার বোন অষ্টম শ্রেনীতে পড়ে । সে ছেলেদের প্রতি অনেক দূর্বল । আমি অনেক বুঝিয়েছি , কিন্তু কাজ হয়না । তাকে তথাকথিত প্রেম ভালোবাসা থেকে দূরে রাখতে কি কি করতে পারি ?

6 উত্তর

+1 টি পছন্দ
করেছেন (933 পয়েন্ট)
ভাই আপনার বোনের নেশা ধরে গেছে।এই নেশা আগে ছাড়াতে হবে তাহলে কাজ হবে।আপনি তাকে বলুন কি লাভ এই প্রেম ভালোবাসাতে।হয়ত কিছুদিনের একটা সাময়িক মজা।এই আরকি।তাছাড়া আপনি বলবেন অনেক মানুষ প্রেম করার ফলে করুণ পরিণতির দিকে এগিয়ে যায়।তারপর বলবেন এসব ইসলাম ধর্মে নিষিদ্ধ।এতো ছেলেদের প্রতি আকৃষ্ট হতে হবে কেন।তারা তাকে খাওয়া নাকি পড়াবে।এতো আকর্ষণ ঠিক না।আপনি তাকে নামাজ পড়ার নির্দেশ দিবেন।না পড়লেও জোর করে পড়াবেন।বড় ভাই হলে আপনার এটা করা সহজ।তাকে বলবেন বেশি বেশি বই পড়তে।বেশি ফেসবুক ব্যবহার করতে দিবেননা।তাকে বলবেন কোন ছেলের দিকে যেন না তাকায়।তাদের নিয়ে যেন না ভাবে।এই দুটো কাজ করতে পারলে সে এসব থেকে দূরে থাকতে পারবে।আপনি চেষ্টা চালিয়ে যান।আপনার সফলতা কামনা করি।
+1 টি পছন্দ
করেছেন (1,701 পয়েন্ট)

আপনার বোন ছেলেদের প্রতি অনেক দূর্বল। আর এই দূর্বলতাকে কাজে লাগানোর জন্য কিছু খারাপ ছেলে থাকে। তারা এই দূর্বলতাকে খারাপ কাজে ব্যবহার করে। আপনি তাকে খারাপ দিকগুলো সম্পর্কে বোঝান। এই খারাপ ছেলেরা যে মেয়েদের কত ক্ষতি করে সে সম্পর্কে বোঝান। তাকে পর্দাশীল থাকতে বলুন। নামাজ পড়তে বলুন। 

0 টি পছন্দ
করেছেন (5,630 পয়েন্ট)

আসলে ছোট বেলায় সবাই কিন্তু রূপকথার মতো মনে করে, তাদের চোখে থাকে কালো চশমা। এই চশমা যদি স্নেহ দিয়ে তুলে দিতে পারেন তবে বিষয়টি অনেক সহজ হয়ে যাবে।


ছোট  ছেলে-মেয়েরা জীবনটাকে রূপ কথা ভেবে ভুল করে ফেলে কোন একটা ছেলেকে/মেয়েকে  পছন্দ করে ফেলে।  তাদের এই নির্বাচন ভুলের কারণে ভবিষ্যৎতে অনেক বড় সম্পর্ক ভেঙ্গে যায় এমনকি তাদের সম্পর্ক পর্যন্ত ভেঙ্গে যায়। কিন্তু বড় বা বেশি বয়সী ছেলে-মেয়েদের সম্পর্ক অটল থাকে।কারণ তারা নিজেদের বুঝতে পারে। ছোটদের ক্ষেত্রে সেটা সম্ভব নয়। (বনকে বলুন: আপু তুমি বড় হয়ে প্রেম কর)। এটা নিয়ে একটু যুক্তি দিয়ে তার সাথে কথা বার্তা বলুন। হতে পারে সে নিজেকে শুধিয়ে নিবে। ধমক বা রাগ দেখিয়ে এগুলো বোঝালে সে আরো বিগড়ে যেতে পারে। তাই একটু বিনয়ের সাথে কথাগুলো বোঝাবেন। 


ছোট মেয়ে জোর কি কিছু করব বা জোর করে প্রেমের রাস্তা থেকে বেড় করে আনব?

সেটা উচিৎ হবে বলে মনে করি না। কারণ কারো মনের উপর জোড় চলে না। তাকে সাময়িক সময়ের জন্য প্রেম-ভালোবাসা থেকে বেড় করে আনলেও লাভের কিছুই হবে। দেখাযাবে সে আবার ৫ মাস বা ১ বছর পর আবার সেই পথে চলছে। জোর যদি করতেই হয় নিজেকে করুন না যাতে আপনার এই জোর করার ফলে মেয়েটি ভুল সিদ্ধান্ত না নিয়ে বসে। উদাহরণ - বাড়ি থেকে পালানো; এমনকি নিজের জীবন শেষ করে ফেলার মতো কাজ।


তাহলে তাকে কিভাবে আমি এগুলো থেকে বেড় করে নিয়ে আসব? 

ভাই মনে রাখবেন - জোরজুলুম করে যা করা যায় না তা কিন্তু ভালোবাসা দিয়ে অতিসহজেই করা যায়। কোথাও শুনেছি - " অতি আদরে যেমন সন্তান নষ্ট। তেমন বেশি শ্বাসানে সন্তান নষ্ট।"  আদর করুন যদিও এটা ভালো। তবে বেশি আদরে কিন্তু সে মানবে না। তার জন্য মাঝে মধ্যে একটু ধমক হতে পারে। তবে সেটা আবার বেশি পরিমাণে হলেই মুশকিল। আপনি তাকে বেশিরভাগ সময় একা থাকতে দিন। মাঝে মধ্যে একটু আদর /ধমক দিতে পারেন। অযথা ধমক দিবেন না। একটু ভুল করলে দিতে পারেন। প্রেমের বিষয়ে ধমক দেওয়া গেলেও না দেবার চেষ্টা করবেন।


এখন কেবল মাত্র তাকে তার ভবিষ্যৎ নিয়ে বোঝালে সে বুঝতে শিখবে আসলেই তো তাই। আপনার প্রয়োজন তাকে একটু সাজেশন দেওয়া এবং তাকে নিজের মতো চলতে দেওয়া। আপনার সাজেশন  তার জীবনের চলার পথে বুঝতে পারবে। এবং সেই সাথে সে ঠিক হয়ে যাবে। ছেলেদের প্রতি তার এই দুর্বলতা তার প্রতি কিরকম সমস্যা তৈরি করতে পারে সেটা বুঝান। তার বয়স যেহেতু কম তাই এটা হতে পারে। বড় হলে ঠিক হয়ে যাবে।  


সে যদি পরিবারের ভালোবাসা বুঝতে শিখে তবেই সে বুঝবে পরিবারকে কিভাবে ভালোবাসা যায় এবং কিভাবে পরিবারকে ভালোবেসে সূখে থাকা যায়। উপরের কাজ করে তাকে সেই সুযোগ করে দিবেন। 

0 টি পছন্দ
করেছেন (16 পয়েন্ট)
১.ভাই তার বন্ধু হওয়ার চেষ্টা  করুন,সব কথা শুননে বুঝার চেষ্টা করুন,নিজেকে তার জায়গায় রেখে ভাবুন।

২.ছোটো বোনকে সময় দিন ঘুরতে যান,পছন্দের জিনিস gift করুন।আপনি ও আপনার বাবা মা তার কাছে হিরো হয়ে উঠুন,familyr ভালবাসা কতটা সুন্দর,সেটা feel করান ভালোবাসা দিয়ে

২.অাল্লাহর সাথে নিজেরা ভালোবাসার সম্পর্ক গড়ে তুলুন,তাকে সাথে নিয়ে চলুন।

৪.কখনো কথা শোনাবেন না,খোটা দিবেন না।

৫.intresting/successful দের বই gift করুন,পড়ার অভ্যাস করান এক দুই  পৃষ্ঠা করে

  then,ইসলামিক বই দিন।প্রথমে ইমানী বই দিন,সুখবরের বই,ধীরে ধীরে হুকুম  অাহকামের ব্ই। 

আল্লাহর  কাছে চান,বোনকে pressure দিবেন না,ভেংে যেতে পারে।

"মানুষ ভালোবাসার কাংগাল", "যার ভালো চান তাকে বই পড়ান"
0 টি পছন্দ
করেছেন (74 পয়েন্ট)
প্রথমে পর্দা করতে বলুন,,,,সৌন্দর্য যেন কোনো ভাবে প্রকাশ না হয় এভাবে পর্দা করতে বলুন,,আর কবরের কথা মনে করিয়ে দিন বেশি বেশি,,,নামাজ পড়তে বলুন,কুরআন পড়তে বলুন,,আস্তে আস্তে ঠিক হয়ে যাবে ইনশা'আল্লাহ
0 টি পছন্দ
করেছেন (4,426 পয়েন্ট)
অনেক নারী পুরুষের প্রতি দূর্বলতা বোধ করেন। আপনি তাকে ভালোভাবে বুঝিয়ে বলুন। তাকে তার পড়ালেখা সম্পর্কে বুঝিয়ে বলুন। সে পুরুষের প্রতি আসক্ত। আপনি তাকে উদাহরণ দিয়ে বুঝিয়ে বলুন। এসময় অনেকে ভুলসঙ্গী নির্বাচন করেন। তাদের এই নির্বাচন ভুলের কারণে ভবিষ্যৎতে অনেক বড় সমস্যা হয় এমনকি তাদের সম্পর্ক পর্যন্ত ভেঙ্গে যায়। কিন্তু বড় ছেলে বা মেয়েদের সম্পর্ক অটল থাকে।
কারণ, তারা নিজেদের বুঝতে পারে এবং পুণরায় স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসতে পারে। আপনি জোড় করে তাকে এধরনের কাজ থেকে বিরত রাখতে পারবেন না। স্বাভাবিকভাবেই সে আবার ছেলেদের প্রতি দূর্বলতা বোধ করবে। আপনি যদি বেশি জোড় করেন, তাহলে সে আত্মহত্যা করতে পারে, আপনি ভালোভাবে বোঝানোর চেষ্টা করুন।
  • আপনি তাকে ভালোভাবে দেখাশোনা করুন এবং পরিবারের সাথে থাকতে বলুন।
  • তার ভালো কাজে সঙ্গ দিন।
  • তাকে ভালো উপদেশ দিন, যাতে সে জীবন গড়তে পারেন।
  • তার মোবাইলে আসক্তি থাকলে তা ব্যবহার মানা করুন।
  • তাকে ধর্ম অনুসারে চলতে বলুন।
  • তাকে কাজে ব্যস্ত থাকতে বলুন।
  • বিভিন্ন গুণীজনের জীবনী পড়তে তাকে বলুন।
টি উত্তর

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

294,278 টি প্রশ্ন

380,915 টি উত্তর

115,164 টি মন্তব্য

161,630 জন নিবন্ধিত সদস্য

বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
...