বিস্ময় অ্যানসারস এ আপনাকে সুস্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং বিস্ময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...
115 জন দেখেছেন
"শিক্ষা+শিক্ষা প্রতিষ্ঠান" বিভাগে করেছেন (4,046 পয়েন্ট)
bumped করেছেন
করেছেন (4,430 পয়েন্ট)
শুধুমাত্র শিক্ষা যে দুর্নীতির মূলোৎপাটন করতে পারে না, এর বড় উদাহরণ হচ্ছেঃ বাংলাদেশ। এদেশে শিক্ষার কোনো অভাব নেই, শিক্ষিত লোকেরও কোনো অভাব নেই, তাহলে এদেশে কেনো এতো দুর্নীতি? কারণ একটাই, এদেশে শিক্ষার অভাব না থাকলেও রয়েছে ●সুশিক্ষার অভাব, ●ধর্মীয় শিক্ষা ও ধর্মীয় মূল‍্যবোধের অভাব, ●সৎ সাহস ও অন‍্যায়ের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর অভাব, ●কঠোর আইন ও আইনের কঠোর প্রয়োগের অভাব, ●দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির অভাব (যে শাস্তির কথা শুনলে ভয়ে হৃদয়ে কম্পন শুরু হয়ে যায়, যে শাস্তির বাস্তবায়ন থাকলে কুশিক্ষিত লোকেরা কখনো অপরাধ করার সাহস পাবে না)। ধন‍্যবাদ।

2 উত্তর

+3 টি পছন্দ
করেছেন (4,430 পয়েন্ট)
শুধুমাত্র শিক্ষাই যদি পারে দুর্নীতির মূলোৎপাটন করতে, তাহলে শিক্ষিত লোকেরাও কেনো দুর্নীতি করে? শুধু শিক্ষা নয়, বরং সুশিক্ষার পাশাপাশি কঠোর আইন ও আইনের কঠোর প্রয়োগই পারে দুর্নীতির মূলোৎপাটন করতে। জাতিকে শুধু শিক্ষিত নয়, বরং সুশিক্ষিত হতে হবে। কেননা, সুশিক্ষিত জাতি কখনো দুর্নীতি না করলেও কুশিক্ষিত জাতি ঠিকই দুর্নীতি করে। আবার যেখানে কঠোর আইন ও আইনের কঠোর প্রয়োগ নেই, সেখানে দুর্নীতির মাত্রা অনেক বেশি। যেমনঃ বাংলাদেশে কঠোর আইন ও আইনের কঠোর প্রয়োগ না থাকায়, এখানে দুর্নীতির পরিমাণ অনেক বেশি। এমনকি দুর্নীতিতে বাংলাদেশ বিশ্বে ১ম অবস্থানে রয়েছে, এর কারণঃ এদেশে শিক্ষা আছে, কিন্তু সুশিক্ষা নেই। এদেশে আইন আছে, কিন্তু আইনের সঠিক প্রয়োগ নেই। আইনের শাসনের দিক দিয়ে বাংলাদেশে বিশ্বে ১০২টা দেশের মধ‍্যে পিছিয়ে ৯৩তম অবস্থানে রয়েছে। যেই দেশে সর্বত্র ধর্মীয় শিক্ষা নেই, সর্বত্র সুশিক্ষা নেই, সর্বত্র আইনের শাসন নেই, সেই দেশ দুর্নীতিতে বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হবে সেটাই স্বাভাবিক। অতএব, শুধুমাত্র শিক্ষা বা লেখাপড়া নয়, বরং সুশিক্ষা, ধর্মীয় শিক্ষা, ধর্মীয় মূল‍্যবোধ, কঠোর আইন ও আইনের কঠোর প্রয়োগই পারে দুর্নীতির মূলোৎপাটন করতে। আইনের শাসন তথা কঠোর আইন ও আইনের কঠোর প্রয়োগ থাকলে শুধুমাত্র দুর্নীতি নয়, সকল অপরাধেরই মূলোৎপাটন করা সম্ভব। ধন‍্যবাদ।
+1 টি পছন্দ
করেছেন (103 পয়েন্ট)
আপনি কী শিক্ষামন্ত্রীর বক্তব্যটি শুনেছিলে-তিনি বক্তব্যে বলেছিলেন "আমিও ঘুষ খাই মন্ত্রীও ঘুষ খান।সহনীয় পর্যায়ে খান"।আপনারা জানেন ঘুষ খাওয়া অবৈধ -মানুষের উপর জুলুম-মানবতার সাংঘর্সিক।এবং অনৈতিক কাজ । যদি শিক্ষাই যদি দুর্নীতী মুক্ত করতে পারলে এসব অনৈতিক বক্তব্য শিক্ষামন্ত্রীর মুখে প্রকাশ হতো না। আজকের ছেলেমেয়েরা স্কুল-কলেজে ভর্তির আগে গাজা-মদ,ব্যাভিচার,সন্ত্রাস হয়না বরং স্কুল কলেজে পড়ার পরে এসব নিয়ে ব্যাস্ত হয়ে পড়ে।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

312,939 টি প্রশ্ন

402,502 টি উত্তর

123,637 টি মন্তব্য

173,340 জন নিবন্ধিত সদস্য

বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
...