বিস্ময় অ্যানসারস এ আপনাকে সুস্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং বিস্ময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...
93 জন দেখেছেন
"হাদিস" বিভাগে করেছেন (461 পয়েন্ট)
পূনঃরায় খোলা করেছেন
মোটকথা জানতে চাইছি তাদের জন্যে কি কোনো পুরস্কার আছে? এ ব্যাপারে কোরআন হাদিস কি বলে?

2 উত্তর

+2 টি পছন্দ
করেছেন (10,638 পয়েন্ট)
কোরবানিকৃত পশুদের পরকালে তাদের জন্যে কোনো পুরস্কার নেই। কিয়ামতের দিন ন্যায্য বিচারের পর সব পক্ষীকুল ও জন্তু-জানোয়ার তৎক্ষণাৎ মাটির স্তুপে পরিণত হবে।

আল্লাহ তায়ালা বলেনঃ ভূপৃষ্ঠে বিচরণশীল প্রত্যেকটি জীব এবং দুই ডানা দিয়ে উড়ে এমন প্রতিটি পাখি তোমাদের মতই এক একটি জাতি। এ কিতাবে আমি কোন কিছুই বাদ দেইনি। অতঃপর তাদের সকলকে স্বীয় প্রতিপালকের কাছে সমবেত করা হবে। (সুরাআন আমঃ ৩৮)

অর্থাৎ, উল্লিখিত সমস্ত জাতিকেই কিয়ামতে একত্রিত করা হবে। এই দলীলের ভিত্তিতেই উলামাগণের একটি দল মনে করেন যে, যেভাবে সমস্ত মানুষকে জীবিত করে তাদের হিসাব নেওয়া হবে, অনুরূপ জীব-জন্তু এবং অন্যান্য সকল সৃষ্ট জীবকে জীবিত করে তাদেরও হিসাব নেওয়া হবে।

মহান আল্লাহ আরো বলেছেন, যখন বন্য পশুগুলিকে একত্রিত করা হবে। (সূরা তাকবীরঃ ৫)

আর এই ধরনের কথা একটি হাদীসেও নবী করীম (সাঃ) বলেছেন। শিংবিশিষ্ট কোন ছাগল যদি শিংহীন কোন ছাগলের উপর যুলুম করে থাকে, তাহলে কিয়ামতের দিন শিংবিশিষ্ট ছাগলের কাছে থেকে প্রতিশোধ গ্রহণ করা হবে। (মুসলিমঃ ১৯৯৭)

আয়াত থেকে জানা যায় যে, কিয়ামতের দিন মানুষের সাথে সর্বপ্রকার জানোয়ারকেও জীবিত করা হবে। আবু হুরাইরা রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন যে, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেনঃ কেয়ামতের দিন তোমরা সব হক আদায় করবে, এমনকি 'আল্লাহ তায়ালা এমন সুবিচার করবেন যে', কোন শিং বিশিষ্ট জন্তু কোন শিংবিহীন জন্তুকে দুনিয়াতে আঘাত করে থাকলে এ দিনে তার প্রতিশোধ তার কাছ থেকে নেয়া হবে। (মুসনাদে আহমাদঃ ৩৬২)

এমনিভাবে অন্যান্য জন্তুর পারস্পরিক নির্যাতনের প্রতিশোধও নেয়া হবে। (মুসনাদে আহমাদঃ ৩৬২)

অন্য হাদীসে এসেছে, যখন তাদের পারস্পরিক অধিকার ও নির্যাতনের প্রতিশোধ নেয়া সমাপ্ত হবে, তখন আদেশ হবেঃ তোমরা সব মাটি হয়ে যাও। সব পক্ষীকুল ও জন্তু-জানোয়ার তৎক্ষণাৎ মাটির স্তুপে পরিণত হবে। এ সময়ই কাফেররা আক্ষেপ করে বলবেঃ অর্থাৎ আফসোস আমিও যদি মাটি হয়ে যেতাম এবং জাহান্নামের শাস্তি থেকে বেঁচে যেতাম।

রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেনঃ কিয়ামতের দিন সব পাওনাদারের পাওনা পরিশোধ করা হবে, এমনকি, শিংবিহীন ছাগলের প্রতিশোধ শিংবিশিষ্ট ছাগলের কাছ থেকে নেয়া হবে। (মুসনাদে আহমাদঃ মুস্তাদরাকে হাকিমঃ)
সাবির ইসলাম অত্যন্ত ধর্মীয় জ্ঞান পিপাসু এক জ্ঞানান্বেষী। জ্ঞান অন্বেষণ চেতনায় জাগ্রতময়। আপন জ্ঞানকে আরো সমুন্নত করার ইচ্ছা নিয়েই তথ্য প্রযুক্তির জগতে যুক্ত হয়েছেন নিজে জানতে এবং অন্যকে জানাতে। লক্ষ কোটি মানুষের নীরব আলাপনের তীর্থ ক্ষেত্রে যুক্ত আছেন একজন সমন্বয়ক হিসেবে।
0 টি পছন্দ
করেছেন (6,444 পয়েন্ট)

সৃষ্টিকূলে মানুষই সেরা, তাতে কোন সন্দেহ নেই। মানুষ স্রষ্টার প্রতিনিধিত্ব করে, কাজটাও সব সৃষ্টির চেয়ে আলাদা। আর, মানুষই এক মাত্র জীব, যে শান্তিময় স্থানে (জান্নাতে) প্রবেশ করবে - বই আর কেউ নয়। এছাড়াও, কিয়ামত বা পরকালের ব্যাপারে আল্লাহ তায়ালা পবিত্র কুরআনে শুধুমাত্র মানুষদের নিয়েই কথা বলেছেন, বই অন্য কারো নয়। কুরআনের বাণীঃ "সেদিন মানুষ বলবে, 'পালাবার স্থান কোথায়'?" (সুরা কিয়ামাহ, আয়াত নং ১০)

জনাব, পরকাল শুধুমাত্র মানুষের জন্যই বিদ্যমান, কোনো পশুর জন্য নয়। হোক সেটা কোরবানীকৃত কিংবা সাধারণভাবে মৃত। বস্তুত, মানুষ ছাড়াও অন্য কিছু প্রাণী আছে, যারা জান্নাতে প্রবেশ করবে। তবে, তাদের কথা ভিন্ন। যেমনঃ আসহাবে কাহাফ-এর কুকুর কয়েকজন যুবকের ছোহবাতে থাকার কারণে জান্নাতে যাবে।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

2 টি উত্তর
04 ফেব্রুয়ারি 2014 "হাদিস" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন alamgir_max (662 পয়েন্ট)
2 টি উত্তর

359,103 টি প্রশ্ন

454,239 টি উত্তর

142,248 টি মন্তব্য

190,067 জন নিবন্ধিত সদস্য

বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
...