user-avatar

রায়হানকাবির

◯ রায়হানকাবির

আমার জানা মতে একজন শিক্ষার্থী প্রতিমাসে ৮০০ টাকা করে ৩ টি সেমিস্টার পর ১৪৪০০ টাকা বৃত্তি পায়। এব্যাপারে আমাকে সঠিক তথ্যগুলো দিয়ে সাহায্য করুন
আমি উইন্ডোজ টেন প্রোফেশনাল ব্যবহার করছি যা 64 বিট এর। নেটে অনেক খোজাখুজি করলাম কিন্তু ড্রাইভারটি ডাউনলোড করতে পারলাম না। যদি কারোর ট্রু ডাউনলোড লিংক জানা থাকে তবে শেয়ার করবার জন্য অনুরোধ রইলো।
এক্ষেত্রে আপনি বি-ক্যাশ অ্যাকাউন্ট খুলে বি-ক্যাশ অ্যাপটি ব্যবহার করতে পারেন অথবা ইউএসডিডি কোড ডায়াল করেও বি-ক্যাশ অ্যাকাউন্ট অপারেট করে আপনি আপনার চাহিদা মতো যখন ইচ্ছে তখন আপনার ফোনে এয়ারটাইম রিচার্জ করতে পারবেন।
ভিডিওটি প্লে করার জন্য আপনি যে প্লেয়ারটি ব্যাবহার করছেন উক্ত প্লেয়ারে EAC3 ফরমেট এর অডিও সাপোর্ট করেনা। এজন্যই ভিডিওটির সাথে সাউন্ড প্লে হচ্ছেনা।  এক্ষেত্রে আপনি QQ Player নামের প্লেয়ারটি ইন্সটল করে ব্যাবহার করতে পারেন।    
না।  ২য় পর্যায়ের আবেদনে চয়েজ দিতে গেলে পূর্বের সিকিউরিটি কোডের প্রয়োজন নেই।  তবে হ্যা, আপনি যদি ১ম পর্যায়ের আবেদনে কোনো কলেজে ভর্তির জন্য মনোনীত না হয়ে থাকেন তবে ২য় পর্যায়ের আবেদনে আপনাকে আবেদন ফি দিতে হবেনা  আর যদি ইতিমধ্যেই কোনো কলেজে ভর্তির জন্য মনোনীত হয়ে থাকেন কিন্তু ১৮ তারিখের পূর্বে ১৯৫ টাকা পেমেন্ট না করে ভর্তি ক্যান্সেল করেন সেক্ষেত্রে আপনাকে ২য় পর্যায়ের আবেদনের জন্য ফি প্রদান করতে হবে।                           
এক্ষেত্রে আপনাকে চয়েজের মধ্যমেই ভর্তি হতে হবে।  কোন কলেজে আপনার ভর্তি নিশ্চিত এটা বলা অসম্ভব।  আপনি ২ পর্যায়ের আবেদনে আপনার পছন্দনীয় কলেজগুলো সিলেকশন করে আবেদন সাবমিট করুন।  ২য় পর্যায়ের আবেদনের সিলেকশন রেজাল্টে আপনাকে যে কলেজে মনোনীত করা হবে আপনি সেখানে ভর্তি হতে পারবেন।             

কলেজে ভর্তির অাবেদন?

রায়হানকাবির
Jun 15, 12:11 PM
চয়েজ দিতে পারবে।  যদি তিনি ১ম পর্যায়ের আবেদনের সিলেকশনের রেজাল্টে মনোনীত হওয়া কলেজে ভর্তি নিশ্চয়ন না করলে ২য় পর্যায়ের আবেদন করতে পারবে৷  ১ম পর্যায়ের আবেদনের সিলেকশন রেজাল্ট যদি তিনি কোনো কলেজে ভর্তির জন্য মনোনীত হয়ে থাকেন কিন্তু ভর্তি নিশ্চয়ন করেন নি এক্ষেত্রে তাকে ২ম পর্যায়ের আবেদনে আবেদন ফি প্রদান করতে হবে।                    
উক্ত ফোনটিতে যদি পূর্বে থেকেই পিকচার্স ব্যাকআপ এধরণের সফটওয়্যার যেমন DiskDigger  ইন্সটল দেওয়া থাকে তবে ডিলিটেড হওয়া পিকচার্স গুলি ফেরত পাওয়া যাবে।  তবে হ্যা, যে পিকচার গুলি ডিলিট হয়েছিল ঐ পিকচার গুলির  অরিজিনাল    রেজুলুশনটুশন পাবেন না আপনি। ব্যাকআচপ সফটওয়্যারগুলি সাধারণত ডিভাইসে থাকা ফটো এবং ভিডিওর থাম্বনেইলস গুলো সেভ করে রাখে আর ব্যাকআপের  সময় ওগুলোই ব্যাকআপ করে। 

ফোনের নাম্বার ডিলেট হয়েছে?

রায়হানকাবির
Jun 15, 11:54 AM
আপনি যদি আপনার ফোনের উক্ত কন্টাক্ট নাম্বারগুলি ইতিপূর্বেই কন্টাক্ট ব্যাকআপ সফটওয়্যার দিয়ে ব্যাকআপ করে নিয়ে থাকেন তবে ঐ সফটওয়্যারটি দিয়েই ব্যাকআপ করা নাম্বারের ফাইল্টি আপনার ফোনে ইন্সটল করতে পারবেন তাহলেই পূর্বের সেভ করা কন্টাক্ট নাম্বার গুলি ফেরত পাবেন।  অন্যথায় পাবেননা  । 
আপনার প্রশ্নটি একেবারে ক্লিয়ার নয় তবুও যতটুকু বুঝেছি তার উত্তর দেবার চেষ্টা করলাম।     উইন্ডসরের অপারেটিংসিস্টেম (ওএস)  ইন্সটল দেবার পর কিছু ফিচার আপনি শো করছে না এমনটা হবার কিছু কারন আছে। আসলে আমরা যেসকল উইন্ডসরের ওএস আমাদের ডিভাইসগুলোতে ইন্সটল দিয়ে থাকে সেগুলো ক্র‍্যাক ভার্সন  হয়ে থাকে। আমরা অরিজিনাল ভার্সন/প্রোডাক্ট উইন্ডসরের কাছ থেকে কিনি না।   ক্র‍্যাক ভার্সনের ওএস গুলো কখনো কখনো এডিট করা হয়ে থাকে যার কারণে ইন্সটলের পর সব ফিচার শো করেনা আবার ঐ এডিটেড ওএস আপনার ল্যাপটপে ইন্সটলের জন্য আপনার প্রাইভেসির নিরাপত্তাও হুমকির সম্মুখে আসতে পারে।  আবার এমনটাও  হতে পারে যে আপনি উইন্ডসরের যে ওএস আপনার ল্যাপটপে ইন্সটল দিয়েছেন ঐ ওএস এ উক্ত ফিচার নেই। উদাহরণ হিসেবে বলি, আপনি যদি ল্যাপটপ বা পিসিতে উইন্ডোজ টেন হোম ইন্সটল দিয়ে থাকে তবে কিন্তু আপনি উইন্ডোজ টেন প্রোফেশনালের কিছু  ফিচার  পাবেন না।      
উক্ত ফোনটি রুট করার পর গুগল প্লেস্টোর  থেকে ifont নামের সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করে নিন তারপর আইফন্ট অ্যাপে প্রবেশ করে সেখানে হাজারো স্টাইলের ফন্ট দেখতে পাবেন যেগুলো ডাউনলোড করতে পারবেন। আপনার পছন্দের ফন্ট টি ডাউনলোডে পর ফন্ট টি ইন্সটল দিন তারপর আপনার ফোনটি অটমেটিক রিবুট হবে। রিবুটের পর আপনার ফোনে নতুন ফন্টের সব লেখা দেখতে পারবেন ।             
www.xiclassadmission.gov.bd    আপনি এই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে বামপাশের নির্দিষ্ট বোর্ডের উপর ক্লিক করলেই একটি পিডিএফ ফাইল ডাউনলোড হবে আর ডাউনলোড হওয়া   পিডিএফ  ফাইলে আপনি ঐ বোর্ডের সকল কলেজের খালি সিট সংখ্যা বা এধরণের তথ্য পাবেন।     
জি, শিক্ষার্থীদের জন্য ল্যাপটপ উপকারি কারন এই ডিভাইসটা তার পড়ালেখায় বিভিন্নভাবে সহায়তা করে আবার বিভিন্ন কাজেও লাগে।  আর আজকাল আইসিটি সাবজেক্টের প্রায় পুরোটাই এই কম্পিউটারকেই নিয়ে। শিক্ষার্থী তার প্রেজেন্টেশন খুব সহজেই বানাতে পারে এই ল্যাপটপের মাধ্যেমে। এভাবে নানা ক্ষেত্রে একজন শিক্ষার্থী ল্যাপটপের দ্বারা সুবিধাদি নিতে পারে।                          
আপনার উল্লেখকৃত উক্ত জাভা ফোনের দ্বারা ইউটিউব হতে ভিডিও ডাউনলোড করতে পারবেন না।      
আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্টে আগতো ফ্রেন্ড  রিকুয়েষ্ট  গুলি এক্সেপ্ট না করলেই ঐসকল রিকুয়েষ্টকারি ফেসবুক ইউজাররা আপনার অ্যাকাউন্টের ফলোয়ার হয়ে যাবে।      
হুম, সম্ভব।  তবে এটা পুরোটাই আপনার ব্যবহারের ওপর নির্ভর করবে যে আপনি ঐ স্মার্টফোনটি ৭ বছর একইভাবে ইউজ করতে পারবেন কিনা।  তবে হ্যা, আমার মনে হয়না যে ৭ বছর পর্যন্ত উক্ত ফোনের ব্যাটারিটি একই পারফর্মেন্স দিতে পারবে।  এই সময়ের মধ্যে ব্যাটারি সমস্যা ফেস করতে পারেন সেক্ষেত্রে আপনাকে ব্যাটারি চেঞ্জ করে নিতে হবে।                
এক্ষেত্রে আপনাকে তারা সিলেকশন করবেনা বা রিজেক্ট করে দিবে কারণ সেনাবাহিনীর মাঠে তো অনেকেই আবেদন করে কিন্তু শুধু  তাদেরকে সিলেক্ট করা হয় যারা সিলেকশনের  সাধারণ  পরিক্ষাগুলো পাশের পর মেডিক্যাল টেস্টে ক্লিয়ারেন্স পায়।  মেডিক্যাল টেস্টে তাদের শারীরিক বিষয়গুলো খুবই নিখুঁত ভাবে দেখা হয়।           
একাদশ শ্রেণিতে যেহেতু আপনি মানবিক শাখা নিয়ে পড়ছেন সেহেতু মানবিক শাখায় একাদশ শ্রেণির সিলেবাসে যে কয়টি সাবজেক্টস আছে সেগুলো সবই আপনাকে পড়তে হবে।          
এখন চেষ্টা করুন, প্রবেশ করতে পারবেন। আমি এই মাত্র ব্রাউজার থেকে প্রবেশ করলাম। গুগল ক্রোম ব্রাউজার থেকে করতে আপনাকে https://www.internet.org টাইপ করতে হবে তাহলেই প্রবেশ করতে পারবেন।

Free basic সমস্যা?

রায়হানকাবির
Jun 14, 08:25 AM
আপনি আপনার ফোনের নেট কানেকশন অন করে গুগল ক্রোম ব্রাউজারে গিয়ে www.internet.org লিখলেই free basics এ প্রবেশ করতে পারবেন। আমিও এইভাবেই প্রবেশ করে উত্তর প্রদান করছি।

Free basic নিয়ে?

রায়হানকাবির
Jun 14, 08:14 AM
না। আপনি অ্যাপের মাধ্যমে এই সেবাটি নিতে পারেন আবার ব্রাউজারের মাধ্যমেও সেবাটি নিতে পারবেন।
আপনার ফোনের ভার্সন যেহেতু ৪.৪.৪ সেহেতু স্মার্টফোনটি সহজেই রুট করতে সক্ষম হবেন আশা করি৷ আপনাকে প্রথমে Kingroot নামের সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করে স্মার্টফোনে ইন্সটল করতে হবে। গুগলে সার্চ করলেই অনেক ওয়েবসাইট পেয়ে যাবেন যেখান থেকে সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করতে পারবেন কিন্তু গুগল প্লেস্টোরে পাবেননা। ইন্সটলের পর ডাটা কানেকশন অন করে কিংরুটে প্রবেশ করে রুট নাও বাটনে ক্লিক করলেই আপনার ফোনটি রুট প্রসেসিং দেখাবে। রুট প্রসেসিং কমপ্লিট হলেই হয়ে গেল ডিভাইস রুট। এবার আপনি রুট করা স্মার্টফোনের সুবিধাদি নিতে পারবেন। বলেরাখি, কিংরুট সফটওয়্যারকে গুগল প্লেস্টোর এবং গুগল প্লে-সাপোর্ট সমর্থন করেনা তাই সবসময় ওয়ারনিং দেয় আনইন্সটল করার জন্য৷

Youtube এর টাকার বিষয়?

রায়হানকাবির
Jun 13, 11:59 AM
ইউটিউবে লাইক, কমেন্টস, শেয়ার বা সাবসক্রাইবের  দ্বারা টাকা আয় হয় না।  ইউটিউবের ভিডিওগুলোতে কিছু অ্যাড শো করায় আর ভিউয়ার যখন ঐ অ্যাডে ক্লিক করে বা উক্ত অ্যাডে সেবা গ্রগন করে তখন  অ্যাড কর্তৃপক্ষ  নির্দিষ্ট  পরিমাণ কমিশন দিয়ে থাকে আর ঐ কমিশনের অর্থ উক্ত ইউটিউব ওনারের অ্যাকাউন্টে জমা হয়ে থাকে। এভাবেই ইউটিউব থেকে আয় হয়।  তবে হ্যা, যে চ্যানেলে যত বেশি সাবসক্রাইবার এবং ঐ চ্যানেলের ভিডিওগুলোতে যত বেশি লাইক এবং ভিউ থাকে মানুষ ঐ ভিডিওগুলোই বেশি দেখে আর উক্ত ভিডিওগুলোতে যে অ্যাড শো করা হয় সেগুলোতে ক্লিক পাবার সম্ভাবনাও বেশি থাকে আর আয় ও বেশি হয়।              

কোন ল্যাপটপ কিনব?

রায়হানকাবির
Jun 13, 11:43 AM
এই বাজেটের মধ্যে ভালো মানের ল্যাপটপ কিনতে পারবেন না। ১০-১৫ হাজারের মধ্যে i-Life এর ল্যাপটপ কিনতে পারবেন তবে পারফর্মেন্স আপনার মনের মতো হবেনা যেমনটা চাচ্ছেন।  স্লো চলবে।         

জি, ২য় পর্যায়ের আবেদন করতে পারবেন তবে শুধু ৩টি কলেজ সিলেক্ট করলে আবেদন করতে অক্ষম হবেন। আপনি সর্বনিম্ন ৫টি থেকে সর্বোচ্চ ১০ কলেজ সিলেকশনের মাধ্যমে আপনার আবেদন সাবমিট করতে পারবেন।  

আপনি কোনো কলেকের সিট/আসন সংখ্যা ফাকা আছে কিনা বা কতটি ফাকা আছে এগুলো দেখতে হলে আপনাকে https://www.xiclassadmission.gov.bd এই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে বাম পাশের নির্দিষ্ট বোর্ডের উপর ক্লিক করলেই একটি পিডিএফ ফাইল ডাউনলোড হবে।  উক্ত পিডিএফ ফাইলের ঐ বোর্ডের সকল কলেজের আসন সংখ্যা বা ফাকা আসন সংখ্যা এসকল ইনফরমেশন দেওয়া থাকবে। আপনাকে কলেজের নাম খুজে বের করে ঐসকল তথ্য খুজে নিতে হবে। 


তবে হ্যা, আগামি ১৮ তারিখের পর যদি আপনি পিডিএফ ফাইলটি ডাউনলোড করেন তবে ফাইনাল আপডেট করা ইনফরমেশন পাবেন কারন এখনও স্টুডেন্টস উক্ত কলেজগুলোতে ভর্তি হচ্ছে যারা উক্ত কলেজে ভর্তির জন্য মনোনীত হয়েছে।                
আপনার প্রশ্নটি পরিষ্কার নয়।  আপনি কিধরনের অ্যাপের কথা জানতে চাচ্ছেন?  যদি আপনার প্রশ্নটি ওইরকমই হয়ে থাকে তবে হ্যা, ২০১৯ সালে নানা ধরনের অ্যাপ তৈরি হয়েছে।    
হতেপারে আপনার ল্যাপটপের ইন্টারনাল ব্যাটারিটি ডাউন হয়ে গিয়েছে  বা নষ্ট হয়ে গিয়েছে।  এজন্যই চার্জার কানেক্ট করলে প্লাগইন দেখায়  কিন্তু ব্যাটারি বিদ্যুৎ স্টোর করতে পারেনা তাই বিদ্যুৎ চলে গেলে ব্যাটারি হতে বিদ্যুৎ সাপ্লাই না পাবার কারণে তৎক্ষনাৎ ল্যাপটপটি অফ হয়ে যায়।           এই সমস্যার সমাধান নিতে চাইলে আপনাকে উক্ত ল্যাপটপের কোম্পানির সার্ভিসিং সেন্টার হতে ল্যাপটপের ব্যাটারিটি চেঞ্জ করে নিতে হবে। অন্যান্য সার্ভিসিং সেন্টার হতেও আপনি সার্ভিস নিতে পারেন তবে এক্ষেত্রে আপনি আপনার ল্যাপটপের ওয়ারেন্টি হারাবেন।             
এই বাজেটের মধ্যে ল্যাপটপ কিনতে পারবেন না। তবে স্মার্টফোন কিনতে পারবেন।  ল্যাপটপ কিনতে হলে বাজেট কিছুটা বাড়াতে হবে।