শিপন (@মোশিপনমিয়া)

এখনও পর্যন্ত আপনার সেরা পরিবর্তন কোনটি?

মোশিপনমিয়া
Apr 16, 2020-এ উত্তর দিয়েছেন

আমার জীবনে পরিবর্তন শুরু হয়েছে কোরান বুঝতে পেরে।

যেদিন থেকে আমি বুঝেছি এই কোরান আল্লাহর কাছ থেকে এসেছে সে দিন থেকে সব বাদ দিয়ে দিয়েছি ।

আল্লাহকে রাজি খুশি করার জন্য সব কিছু করতে ছিলাম। তাকে জয় করাই তখন আমার লক্ষ্য হয়ে গিয়েছিল।

কি বাদ দিয়ে দিয়েছি?

মা বাবার অন্ধ অনুকরণ, বন্ধু বান্ধবের সাথে পাল্লা দিয়ে চলা, মেয়েদের সাথে কথা বলা, মানে নিজেকে মাটির সাথে মিশিয়ে দিয়েছিলাম। আমার জীবনের চাকাটা একেবারে থামিয়ে দিয়েছিলা্ম।

চাকাটা কিভাবে চালানো শুরু করলাম......

নিয়ত করে ফেললাম কোরানের প্রতিটি কথাই আমার জীবনে বাস্তবায়ন করবো। তাতে কারো কথা মানবো না। 

জমিন আল্লাহর , আমিও আল্লাহর, মা বাবা যদি বাধা দেয় তাহলে পালিয়ে হলেও অন্য কোথাও চলে যাব।

আমি তখন ইন্টার পাশ করে অনার্‌সে ভর্তি হওয়ার আগে গার্মেন্টসে ছিলাম, যা কামাইতাম সব মা বাবাকে দিয়ে দিতাম খুব কৃপণতার সাথে নিজের খাওয়া দাওয়া করে সব বাড়িতে পাঠাতাম।

যখন আমি রাসুলের (স) সেই হাদিস টি পড়ি যে ব্যাক্তি কোরানের যতটুকু মুখস্থয করেছে জান্নাতে তার জায়গা হবে তত উপরে। তখনেই আমি নিয়ত করে ফেলি হাফেজি মদ্রাসায় ভর্তি হব , কথাটা শোনে মা বাবা রীতি মত আসমান থেকে পরেছিল।

তারা কোন ভাবেই রাজি নয়। অবশেষে যখন জানতে পারলাম ইসলামের বিরোধী নয় মা বাবা এমন আদেশ করলে তা পালন  করাও আল্লাহর আদেশ তখন আমি তাদের কথা মেনে বিদেশে চলে আসি। আমার টাকা কামানোর কোন উদ্দেশ্য ছিল না। আমি কেবল মা বাবার আদেশ পালনে আল্লাহর আদেশ পালন করছি। 

আমার জীবনের বড় লক্ষ্য কোন ডাক্তার হওয়া না, বড় কোন বাড়ি বানানো না।

আমার লক্ষ্য একটাই আমি জিহাদ  করে শহীদ হব ইংসাল্লা।

আল্লাহর কসম............         

ইসলামে পুরপুরি ঢোকার আগে আমি

  •  সব সময় হতাশায় ভোগতাম
  • কোন কিছু হারিয়ে গেলে অসহনীয় কষ্ট পেতাম
  • বাজে বন্ধুদের সাথে পাল্লা দিয়ে চলার পেরেশানি সব সময় আমাকে চিনতায় রাখত
  • মেয়েদের মন আকর্ষণ করার জন্য টাইট ফিট পোশাক কিনতে হত বছরে অনেক বার
  • নিজেকে বড় বানাতে গিয়ে অনেক ছোট হয়ে যেতাম অপমানের হারও বেড়ে গিয়েছিল
  • সারাক্ষণ মনের মধ্যে কি যেন হারিয়ে যাবে হারিয়ে যাবে পেরেশানি থাকত

এখন আমার ফলাফল

  • মনের মাঝে সারাক্ষণ প্রশান্তি থাকে সত্যিই দারুণ একটা প্রশান্তি।
  • আল্লাহর প্রশংসা করি মনে মনে সারাক্ষণ এজন্য আমার আর কোন ভয় নেই
  • আমার কোন কিছু হারিয়ে গেলেও কন কষট হয় না ,কারণ এসব কোন কিছুই অপরিহার্য না, আর আমি ত আল্লাহর কাছেই চলে যাব আর কয়েকদিন পর
  • প্রেম নিয়ে কোন টেনশন নাই, কারন আমি ছেলে আল্লাহ আমার জন্য কোন মেয়ে রেখেছেন নাহয় বিয়ার আগেই মরণ।
  • বন্ধুরা সবাই টাকার পাহাড় বানালেও আমার সে বিষয়ে কোন চিন্তা নাই । কারণ আল্লাহ বলেছেন তাদের দিকে চক্ষু তুলে না দেখতে। এসব দুনিয়ার সাজসজ্জা

 

সিজদায় সাহু এর নিয়ম কি?

মোশিপনমিয়া
Apr 16, 2020-এ উত্তর দিয়েছেন

আমাদের দেশের প্রচলইত নিয়মে সাহু সেজদা অনেক ঝামেলা।

অথচ সহজ পদ্ধতি হল নামাজ শেষ করে, সালাম ফিরানর পর দুটা সেজদা দেয়া।

 

হযরত আব্দুল্লাহ বিন মাসঈদ (রা) ছাড়াও হযরত আব্দুল্লাহ বিন জুবায়ের (রা), হযরত আনাস বিন মালিক (রা), হযরত সাদ বিন আবী ওয়াক্কাস (রা) প্রমূখ সাহাবাগণ থেকে সালাম ফিরানোর পর সাহু সেজদা করা প্রমানিত। (শরহু মাআনিল আসার, হাদীস নং-২৫৬৪)

# হযরত আব্দুল্লাহ বিন মাসঈদ (রা) থেকে বর্ণিত। রাসূল (সা) ইরশাদ করেছেনঃ তোমাদের মাঝে যখন কারো নামাযের ব্যাপারে সন্দেহ হয়ে যাবে, তখন তার জন্য উচিত এ ব্যাপারে চিন্তা ফিকির করা, তারপর নামায পূর্ণ করে সালাম ফিরাবে তারপর দুই সিজদা করবে। (সহীহ বুখারী-১/৫৮, হাদীস নং-৪০১, সহীহ মুসলিম, হাদীস নং-৫৭২)

# হযরত সাওবান (রা) থেকে বর্ণিত। রাসূল (সা) ইরশাদ করেছেনঃ প্রত্যেক ভুলের কারণে দুই সিজদা দিতে হবে সালাম ফিরানোর পর। (সুনানে আবু দাউদ, হাদীস নং-১০৩৮, সুনানে ইবনে মাজাহ, হাদীস নং-১২১৯, মুসনাদে আহমাদ, হাদীস নং-২২৪১৭)

# হযরত আব্দুল্লাহ বিন যাফর (রা) থেকে বর্ণিত। রাসূল (সা) ইরশাদ করেছেনঃ যার নামাযে সমস্যা হয়ে যায়, সে যেন দু’টি সেজদা করে সালাম ফিরানোর পর। (সুনানে নাসায়ী, হাদীস নং-১৫৫০)

আবাসিক ও অনাবাসিক বলতে কি বুঝায়?

মোশিপনমিয়া
Dec 25, 2019-এ উত্তর দিয়েছেন
হোটেল বলতে যেখানে খাওয়া দাওয়ার ব্যাবস্থা আছে,, আবাসিক হোটেল হল থাকাও যাবে খাওয়াও যাবে, অনাবাসিক হোটেলে থাকা যায় না।

photo edit করার সফটওয়্যার চাই?

মোশিপনমিয়া
Nov 25, 2019-এ প্রশ্ন করেছেন
Windows 10 এর জন্য ছবি এং ভিডিও কাজ করার সফটওয়্যার ডাউনলোড লিংক দিবেন দয়াকরে,,

নফল নামাজ কি? ব্যাখা করুন?

মোশিপনমিয়া
Jan 10, 2019-এ উত্তর দিয়েছেন
নফল হলো নিজের জন্য ভাল কিছু করা,, নফল শুধু নামাজই না অনেক কিছুই নফল হতে পারে,, ফরজ অয়াজিব আর কিছু সুন্নত পালন না করলে গুনাহ হয়,, কিন্তু নফল পালন না করলে গুনাহ হয় না,, এটা অতিরিক্ত অভারটাইমের মত,, যার ফল আখেরাতে পাওয়া যাবে
সাহাবা মানে সাথি,, ইসলামে সাহাবা তাদেরকেই বলা হয় যেসব মুসলমান রাসুল স) কে সরাসরি দেখেছিলেন,, তাফসীর মানে ব্যখ্যা,, কোরানের তাফসীর হল কোরানের ব্যাখ্যা,, বর্তমানে বাংলাদেশে জিবিত আছে এরকম একজন মুফাসসিরের নাম যিনি আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পুন্ন তিনি, দিলোয়ার হোসেন সাইদি
আসআলুল্লাহাল আজিম, রাব্বাল আরশিল আজিম, আঁইয়্যাশফিয়াক’ অর্থাৎ আমি সুমহান আল্লাহ, মহা আরশের প্রভুর নিকট তোমার আরোগ্য (সুস্থতা) প্রার্থনা করছি ’ (তিরমজি, আবু দাউদ)

ফরজ গোসল করব কিভাবে?

মোশিপনমিয়া
Jan 7, 2019-এ উত্তর দিয়েছেন
ফরজ গোসলের নিয়ত করে,, নাকের নরম জায়গা নাগাত ধুইবেন, গড়্গড়া কুলি করবেন তারপর সারা শরীর ধুবেন নাপাকি সহ,, চুল পরিমান জায়গাও যদি শোকনা তাহলেও গোসল হবে না
এটা বলা যায় না,,, কারন অনেকেই জানে প্রেম করলে গুনাহ হয়,, জিনা করলে গুনাহ হয়,, তারা জানে আখিরাত নিশ্চিত,, তার পরেও কেন মানুষ দুনিয়াতে সারা জীবন বাচার মত কাজ করে,,, , সবাই ভ্রান্ত পথে গেলেও কিচ্ছু করার নাই,, যেটা নাজায়েজ তা নাজায়েজেই কোনভাবেই তা জায়েজ করা যাবে না,,, কারন ইসলাম পুর্নাঙ্গ জীবন ব্যাবস্থা,, ,, আমরা এর তীব্র নিন্দা জানাই আর আল্লাহর জমিনে আল্লাহর আইন প্রচলন করার জন্য জিহাদের ডাকের আশায় আছি
তাকদির আল্লাহ নির্ধারিত করে রেখেছেন এটা সবার জন্যই,, এই কথাটা স্পষ্ট ভাবে কোরান ও হাদিস দিয়ে প্রমাণিত,, তাই আর দলিল দিলাম না,, ভাই কথাটা বুঝতে চেষ্টা করুন,, আপনি কার সম্পর্কে ভুল ধরার চেষ্টা করতেছেন তা কি কখনো ভেবেছেন,, , তার জ্ঞান আর আমাদের জ্ঞান,, হ আমরা ত তারাই যারা জানি যে পাথর দিয়ে ঢিল দিলে আম মাটিতে পড়ে যায়,, কিন্তু আম কেন উপরে উঠে যায় না,, , উঠবে না কারন এটা আল্লাহর বানানো আইন,, এখন আল্লাহ যদি এমন আইন বানাতেন যে কাচা আম মাটিতে পড়ে যাবে পাকা গুলো উড়ে যাবে তাহলেও কিচ্ছুই বলার ছিল না,,, , এরকম ভাবেই আল্লাহ এমন আইন করে রেখেছেন যে মানুষ ডানে যেতে চাচ্চে ডানে যাচ্ছে, বামে যেতে চাচ্ছে বামে যাচ্চে,, وَأَن لَّيْسَ لِلْإِنسَٰنِ إِلَّا مَا سَعَىٰ-। অর্থঃ এবং মানুষ তাই পায়, যা সে করে,(সূরা আন-নাজম (النّجْم), আয়াত: ৩৯) কিন্তু আল্লাহ একই সাথে আবার আরেকটি নিয়ম চালু করে রেখেছেন যে যা কিছু করবে সব আল্লাহর দ্বারা,, আল্লাহর ইচ্ছার বাইরে কেউ তিল পরিমাণ ও লড়তে পারে না,, , এভাবে অনেক গুলো নিয়ম চালু করে রাখা, যা ভাবলে আমাদের মাথা ঘুরাবে,, আমরা কোন দিন ভেবেও কুল কিনারা পাব না,, , কিন্তু আল্লাহর একথাও ত সত্য যে إِنَّ ٱللَّهَ لَا يَظْلِمُ ٱلنَّاسَ شَيْـًٔا وَلَٰكِنَّ ٱلنَّاسَ أَنفُسَهُمْ يَظْلِمُونَ অর্থঃ আল্লাহ জুলুম করেন না মানুষের উপর, বরং মানুষ নিজেই নিজের উপর জুলুম করে।( ইউনুস (يونس), আয়াত: ৪৪) , এমনেই আল্লাহর বিধান,, এত কিছুর পরেও আল্লাহ বলতেছেন কারো প্রতি তিনি বিন্দুমাত্র জুলুম করেন না,, অন্যান্য কথার মত এটাও মহাসত্য। , আর আপনি ত জানেনই যে যারা অবুঝ তাদের হিসাব হয় না,, কিন্তু আল্লাহ এক কে অপরের পরিক্ষার জন্য বানিয়েছেন,, তাছাড়া শিশুরা ভাল কাজ করলে এর লাভ মা বাবা পায় অনুরুপ খারাপ কাজ করলে মা বাবা দায়ি আর যে ধর্ষন করেছে সে দায়ি,, আল্লাহর সৃষ্টিতে কোন ত্রুটি নেই,, সূরা আল-মুলক (الملك), আয়াত: ৩ ٱلَّذِى خَلَقَ سَبْعَ سَمَٰوَٰتٍ طِبَاقًا مَّا تَرَىٰ فِى خَلْقِ ٱلرَّحْمَٰنِ مِن تَفَٰوُتٍ فَٱرْجِعِ ٱلْبَصَرَ هَلْ تَرَىٰ مِن فُطُورٍ অর্থঃ তিনি সপ্ত আকাশ স্তরে স্তরে সৃষ্টি করেছেন। তুমি করুণাময় আল্লাহ তা’আলার সৃষ্টিতে কোন ত্রুটি দেখতে পাবে না। , ভাই যারা ঈমান্দার জ্ঞানি তারা কখনো আল্লাহর সৃষ্টির মধ্যে কোন ত্রটি খোজে পায়নি,, , যারা হতবাগা তারাই আল্লাহর নিয়ম নিয়ে হাসি তামাসা করে ভুল খোজে,, কিন্তু নিজেকে বাচানো চিন্তা করে না,,,, আচ্ছা আল্লাহ যদি এমন হতেন যে সবাইকে শুধু শুধু বিনা কারনে জাহান্নমে পাঠাতেন,, অথবা দুনিয়াতে এরকম শাস্তি সারাদিন ভোগতাম, তাহলে কার কাছে নালিশ নিয়ে যেতাম,, কিচ্ছুই করার ছিল না,, আলহামদুলিল্লাহ,, , , তাই আমি নিজেও জানিনা আল্লাহ কি আমাকে জাহান্নামের জন্য বানিয়েছন নাকি জান্নাতের জন্য, সাহাবিরা রাসুলকে বলতেন আল্লাহ যদি আগে থেকেই জানে যে কারা জাহান্নামে যাবে আর কারা জান্নাতে যাবে তাহলে আমল করার কি দরকার উত্তরে রাসুল বলেছিলেন তুমি কি জানো তুমি কোন দলে এজন্যই তোমাকে আমল করতে হবে,, আল্লাহ যদি শাস্তি দেয় তাহলে কোন উপায়েও কোন কাজ হবে না, আজ কিছু হলেই ইন্টারনেটে আল্লাহর নামে সবাই,,,,,,,,,,,

সর্বপ্রথম নবওয়াত ও রাজত্ব পান কোন নবী?

মোশিপনমিয়া
Jan 6, 2019-এ উত্তর দিয়েছেন
হযরত আদম আ) তিনিই প্রথম আল্লাহর বানিবাহক আর তিনিই মানুষের মধ্যে প্রথম রাজা,
হযরত আবু হুরায়রা রা. স্বীয় দাঁড়ি ধরতেন, অতঃপর অতিরিক্ত অংশ কেটে ফেলতেন। (মুসান্নাফ লি-ইবনি আবি শাইবা- ১৩/১১২) ওমর রা.যখন হজ্জ্ব বা উমরা আদায় করতে, তখন স্বীয় দাঁড়ি মুষ্টি করে ধরতেন, অতঃপর অতিরিক্ত অংশ কেটে ফেলতেন। ইমাম হা দারি মুন্ডানো হারাম ,, https://m.somewhereinblog.net/mobile/blog/asksumon0000/29542234, , তাছাড়া অধিকাংশ মাজহাবের মতে দারি মুন্ডানো হারাম,, তবে দারির অতিরিক্ত চুল যা সৌন্দর্য নষ্ট করে দেয় তা কেটে দেয়া যায়,,
আরবিরা একে অন্যকে শোকরান বললে পরে যাকে শোক্রান বলেছে সে আফওয়ান বলে মানে শোকরান = ধন্যবাদ আফওয়ান = মাফ করবেন
আল্লাহ মুমিন দের গুণাবলি দিতে গিয়ে বলেন যারা অনর্থক কথা-বার্তায় নির্লিপ্ত(সুরা মুমিন ৩) বেগানা মেয়েদের সাথে অপ্রয়োজনীয় কথা বলা জিহ্বা র জিনা,, তার দিকে হেটে যাওয়া পায়ের জিনা, তাকে দেখা চোখের জিনা,, এভাবে লজ্জাস্থান তা পুর্ন করে দেয়,,, এই হাদিসটা সবাই জানি একজন মেয়ের হাসি, কান্না, চাহনি- সবকিছুতেই রয়েছে পুরুষের জন্য আকর্ষণ। মেয়েদের সাথে অপ্রয়োজনীয় কথা বললে সেখানে দিগুন গুনাহ হয়,, একটা অপ্রয়োজনীয় কথা বলতে গিয়ে,, আর অপরটি জিনার গুনাহ,,
সৌদি আরবে অনেকেই সুন্নত আর বেতর নামাজ পড়ে না,,,

পশ্চিম দিকে পা দিলে কি গুনাহ হয়?

মোশিপনমিয়া
Jan 1, 2019-এ প্রশ্ন করেছেন
দলিল সহকারে উত্তর দিলে সবচেয়ে ভাল হয়

আমি জেএসসি দিয়া নবম শ্রেণীতে উঠব?

মোশিপনমিয়া
Dec 28, 2018-এ উত্তর দিয়েছেন
এজন্য আপনাকে অনেক সময় কম্পিউটার এর পিছনে ব্যায় করতে হবে তাই একটা কম্পিউটার কিনে রাখুন,, কিন্তু বিজ্ঞান বিভাগে ভরতি হলে পড়ালেখায় বেশি সময় দিতে হবে তাই আশাকরি মানবিক শাখায় ভরতি হলে ভাল হয়,, , কম্পিউটার শিখার জন্য কোন কিছুই করতে হয় না যেমন মোবাইল চালানোর জন্য কোন কিছু করতে হয়নি,, যে যত সময় ব্যায় করে সে তত বেশি শিখে,,, আপনি কম্পিউটার এ বেশি সময় ধরে ঘটি গটি করবেন প্রতিদিন নতুন নতুন কিছু শিখতে পারবেন
আপনি ত আসলেই একা,,, সবাইকে ত ভালবাসেন আল্লাহর আদেশ পালনের জন্য,, কারন আল্লাহ মা বাবার কথা বলেছেন,, আত্মিয়দের সাথে ভাল ব্যাবহার করতে বলেছেন,, এমন কি রাসুল স) বলেছেন আত্মিয়তার সম্পর্ক ছিন্ন কারি জান্নাতে প্রবেশ করবে না,, এরকম ভাবে সৎ বন্দুদের সাথে মিশতে বলেছেন,, এসব করবেন কেবল আল্লাহর জন্য অন্য কিছুর জন্যই নয়,, এমন কি ধন্যবাদ পাওয়ার জন্যও নয়,,, , আর আল্লাহর নিষেধ থেকে দূরে থাকুন,,১০০০ গজ,, , দেখবেন আপনার কত শান্তি,, রাতে একা একা জংগল দিয়ে হাটবেন তবুও শান্তি,,, কারন আপনার মন থেকেই এই কথা বের হয়ে আসবে,, হে আল্লাহ তুমি আমায় শত বিপদ দাও কিন্তু আমার সাথে থেকো,,, তুমি যদি অভিবাভক হও আর কিছুই ভয় নাই, সব ত তোমারই,, জিন, জায়গা জমি সোনা রুপা,, এগুলো ত তোমারই,, এভাবে যেখানে ঔষধ দেয়া দরকার সেখানে দিন,,, , তাছাড়া অন্যান্য জায়গায় ঔষধ দিলে সামান্য শান্তি পাবেন ঠিকই কিন্তু বেশি দিন ঠিকসই হবে না,, যেমন আপনি যদি কাউকে খুশি করার জন্য অনেক টাকা খরচ করে থাকেন তাহলে সে সাময়িক খুশি হবে, কিন্তু এ খুশিতে আপনার সামান্য পরিমান লাভ হবে না,, কারন আল্লাহর সুত্র সামনে আসছে, ইন্না মায়াল উসরি ইয়ুসরান,, নিশ্চই কষ্টের সাথে সস্তি আছে।, তাই আসল পথটা বেচে নিন,, দুনিয়ায় টাকার পাহাড় বানানো আসল পথ নয়,,,কারন এসব ছেড়ে চলে যেতে হবে।,,,, ,, কথা শেষ হবে না,, তাই আর লিখলাম না

ভিসা নিয়া ব্যাবসা করা কি জায়েজ?

মোশিপনমিয়া
Dec 28, 2018-এ প্রশ্ন করেছেন
আমি যদি একজন লোক কে এই বলে ভিসা বেচি যে ভিসার জন্য কফিল আমার কাছ থেকে ২০০০ রিয়াল নিয়েছে আপনাকে ১০০০ রিয়াল লাভ দিয়ে নিতে হবে,, আর এই লাভের কথাটা কফিল কে বলা যাবে না,, এভাবে কি জায়েজ হবে?

১৬-১৭ বছর একজন ছেলের জন্য কতক্ষন ঘুমানো উচিত?

মোশিপনমিয়া
Dec 27, 2018-এ উত্তর দিয়েছেন
শিশুদের জন্য বেশি ঘুম প্রয়োজন,, কিন্তু আপনার জন্য ৫ / ৬ ঘন্টা ঘুম হলেই যথেষ্ট যদি বেশি পরিশ্রম না করেন। পরিশ্রম বেশি হলে ঘুমের পরিমাণ বাড়ানো উচিৎ। আর এক টানা না ঘুমিয়ে পৃথিবীর সেরা মানুষটিকে (নবিজি স)অনুসরণ করতে পারেন,, তিনি দুপুরে সামান্য বিশ্রাম।নিতেন আবার এশার পরেই তাড়াতাড়ি শোয়ে পড়তেন,, মাঝরাতে ইবাদত এ মগ্ন থাকতেন আবার ফজরের আগে উঠে পড়তেন,,,
এটা আপনা আপনিই ঠিক হয়ে যাবে,,, কিন্তু প্রতিকারের চেয়ে প্রতিরোধ ভাল,, আপনি যখন কোন কিছু খাবেন তখন ঘৃনা বা অসংকোচনীয় ভাবে খেলে উপযুক্ত হরমোন খাদ্য হজমে আসে না,, এজন্যই এই সমস্যা দেখা যায়,,, ,
আপনি যা হতে চান পড়ালেখার পাশাপাসজি তা চেষ্টা করুন,,, একটা লক্ষ স্থির করুন যদি কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ার হতে চান তাহলে কম্পিউটার কিনে রাখুন আর অডিও ভিডিও এর পিছনে না দৌড়ে সব সফটওয়্যার এর কাজ ঘাটি ঘুটি করুন,, 

আমি নবম শ্রেণির ছাএ আমি কীভাবে DBBL Account খুলব?

মোশিপনমিয়া
Dec 25, 2018-এ উত্তর দিয়েছেন
জাতিয় পরিচয় পত্র আর ছবি নিয়া মোবাইল সাথে নিয়া যান,,, নিজের পরিচয় পত্র না থাকলে যার আছে তার ছবি ও NID নিয়ে যান
unrooted ডিভাইসের জন্য,,,  
আমি কোন বিশেষজ্ঞ নই তবে আমার কথা আপনার কাজে লাগতে পারে,, আপনি যে প্রশ্নে ক্লিক করবেন সেই পেজ লোড হয়ার পর উপরের এড্রেস বক্সে ক্লিক করুন তারপর এড্রেস টা কপি করে নোট করে রাখুন যাতে পরে আবার পেতে পারেন,, যেমন আপনার প্রশ্নের এড্রেস https://www.bissoy.com/951846/
এটাকে মজি বলে,, এসব বের হলে গোসল ফরজ হয় না,,, কিন্তু পুরুষের লিঙ্গ যদি স্ত্রীর যোনিতে প্রবেশ করে তাহলে মজি বের হলেও গোসল ফরজ যদিও বীর্য বের না হয়।। অন্যথায় ধুয়ে অজু করলেই হবে,,,,

আউটসোর্সিং কি এবং কিভাবে আউটসোর্সিং করতে হয়?

মোশিপনমিয়া
Dec 25, 2018-এ উত্তর দিয়েছেন
আউটসোর্সিং হল অনলাইন থেকে আয়ের একটা পদ্ধতির নাম। এর জন্য আপনার কাছে পিসি থাকতে হবে,,, আর আশেপাশের কোন দক্ষ লোকের কাছ থেকে এই পদ্ধতি শিখে নিন,,, এই পদ্ধতি এক মিনিটে বোঝানোর মত নয়,,, এর জন্য অনেক সময় দরকার,,, আর এসব সাইটে কেউ বলে দিবে না সবাই শিখিয়ে আয় করতে চায়।

আমি রিসেলার ডলারের ব্যাবসা কিভাবে শুরু করব,,?

মোশিপনমিয়া
Dec 23, 2018-এ প্রশ্ন করেছেন

Loading...